চট্টগ্রাম সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২০

আওয়ামী লীগ নেতার হাত কেটে কুয়ায় নিক্ষেপ করল ভাতিজা

২৮ আগস্ট, ২০২০ | ৮:৩১ অপরাহ্ণ

চকরিয়া-পেকুয়া সংবাদাদাতা

আওয়ামী লীগ নেতার হাত কেটে কুয়ায় নিক্ষেপ করল ভাতিজা

কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলায় আলী হোসেন (৫০) নামের এক আওয়ামী লীগ নেতার হাতের কব্জি কেটে কুয়ায় ফেলে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে তার ভাতিজার বিরুদ্ধে। এ সময় তাকে উদ্ধার করতে গিয়ে হাতের আঙ্গুল হারিয়ে আহত হয়েছেন কামাল উদ্দিন (৩০) নামের এক দোকানদার। আজ শুক্রবার সকাল ৮টার দিকে উপজেলা সদর ইউনিয়নের মইয়াদিয়া স্টেশনে এ ঘটনা ঘটে।

গুরুতর আহত আলী হোসেনকে স্থানীয় লোকজন উদ্ধার করে প্রথমে পেকুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দেন। পরে তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আহত আলী হোসেন ওই গ্রামের মৃত নূর আহমদের ছেলে ও উপজেলা সদর ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সহসভাপতি।

জানা যায়, আলী হোসেনের কলেজ পড়ুয়া মেয়ে গত ১২ জুন অপহৃত হয়। এ ঘটনায় তিনি বাদী হয়ে ২৬ জুন পেকুয়া থানায় একটি অপহরণ মামলা দায়ের করেন। তার ভাতিজা আলমগীর ওই মামলার দুই নম্বর আসামি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, দেড় মাস আগে ওই মামলায় গ্রেপ্তার হন আলমগীর। আলমগীর সম্প্রতি জেল থেকে ছাড়া পান। মামলার আসামি করায় ও জেল খাটায় ক্ষিপ্ত হয়ে আজ শুক্রবার সকালে বাড়ি থেকে পেকুয়া সদরে যাওয়ার পথে ধারাল দা দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে চাচা আলী হোসেনের ডান হাতের কব্জি বিচ্ছিন্ন করেন আলমগীর। পরে বিচ্ছিন্ন হাতের কব্জি সড়কের পার্শ্ববর্তী একটি কুয়ায় ফেলে দিয়ে তিনি পালিয়ে যান। আলমগীর আহত আলী হোসেনের বড় ভাই আশরাফ মিয়ার ছেলে।

জানা যায়, ভাতিজা আলমগীরের শ্যালক হুমায়ুন কবিরের সঙ্গে আলী হোসেনের কলেজ পডুয়া মেয়ের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। এর জেরে তারা দুজনে পালিয়ে যান। এ ঘটনায় আলী হোসেন বাদী হয়ে একটি অপহরণ মামলা করেন। ওই মামলায় আলমগীরকে আসামি করা হলে তিনি গ্রেপ্তার হয়ে জেল খাটেন। পেকুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কামরুল আজম বলেন, ‘খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়। আলী হোসেনের হাত থেকে বিচ্ছিন্ন কব্জি সড়কের পাশের একটি কুয়া থেকে উদ্ধার করা হয়। ঘটনার সঙ্গে জড়িতকে ধরতে পুলিশ মাঠে রয়েছে।’

পূর্বকোণ / জাহেদ-আরআর

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
The Post Viewed By: 79 People

সম্পর্কিত পোস্ট