চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০

মুক্তিযোদ্ধাদের মানববন্ধনে সাংসদ অনুসারীদের হামলা

২৪ আগস্ট, ২০২০ | ১:৫৩ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

মুক্তিযোদ্ধাদের মানববন্ধনে সাংসদ অনুসারীদের হামলা

চট্টগ্রামের প্রেসক্লাবের সামনে মুক্তিযোদ্ধা সন্তান সংসদ কমান্ড আয়োজিত মানববন্ধনে বাঁশখালীর সাংসদ মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী ও বাঁশখালী পৌরসভার মেয়র সেলিম উল হকের নেতৃত্বে এ হামলা চালানো হয় বলে অভিযোগ উঠেছে। এতে সাংবাদিকসহ অন্তত ১০/১২ জন আহত হয়েছে। আজ সোমবার (২৪ আগস্ট) সকাল সাড়ে ১১ টার দিকে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব চত্বরে এ ঘটনা ঘটে। 

আহতদের মধ্যে মোজাফফর আহমদসহ বাঁশখালী থানা কমান্ডার আবুল হাশেম, সাতকানিয়া থানা কমান্ডার আবু তাহের, মুক্তিযোদ্ধা আজিমুল ইসলাম, আবদুর রাজ্জাক, মৌলবি সৈয়দের ভাতিজা জয়নাল আবেদীন, জহির উদ্দীন বাবর, ইমরানুল ইসলাম তুহিন, আবু সাদাত মো. সায়েম, মোবাশ্বের হোসেন সোহান, কামরুল হুদা পাভেলের নাম জানা গেছে।

মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার মোজাফফর আহমদ জানান, ‘মৌলবি সৈয়দকে মুক্তিযোদ্ধা বলে অস্বীকার করা এবং বাঁশখালীতে কোনো মুক্তিযুদ্ধ হয়নি’ বাঁশখালীর এমপির এমন বক্তব্যের প্রতিবাদে আয়োজিত মানববন্ধন চলাকালে কয়েকটি গাড়ি ভর্তি লোকজন এসে মানববন্ধনে হামলা চালায়। তারা সকলেই বাঁশখালীর এমপি মোস্তাফিজুর রহমানের অনুসারী।

এদিকে হামলার ঘটনার পর মহানগর মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ডার মোজাফফর আহমদের নেতৃত্বে জামালখানে তাৎক্ষণিক প্রতিবাদ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন যুবলীগের সাবেক প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ মাহমুদুল হক, নুরুল আজিম রনিসহ মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের নেতাকর্মীরা।

সমাবেশে কমান্ডার মোজাফফর আহমদ সাংসদ মোস্তাফিজুর রহমানকে আওয়ামী লীগের সকল পদ ও সংসদ সদস্য পদ থেকে অব্যাহতি দেয়ার জন্য আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি আহ্বান জানান।

এদিকে, প্রেস ক্লাবের কর্মসূচিতে হামলার অভিযোগ প্রসঙ্গে বাঁশখালী পৌরসভার মেয়র সেলিম উল হক গণমাধ্যমকে জানায়, তার নেতৃত্বে সেখানে কোনো হামলা হয়নি। কে বা কারা সেখানে হামলা করেছে তা তিনি জানেন না।

এ ঘটনায় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তিনজনকে আটক করেছে।

পূর্বকোণ/এএ

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 169 People

সম্পর্কিত পোস্ট