চট্টগ্রাম শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০

ফটিকছড়িতে অস্ত্র ও ইয়াবাসহ ১৪ মামলার আসামি গ্রেপ্তার

১৯ জুলাই, ২০২০ | ২:২৭ অপরাহ্ণ

ফটিকছড়ি সংবাদদাতা

ফটিকছড়িতে অস্ত্র ও ইয়াবাসহ ১৪ মামলার আসামি গ্রেপ্তার

ফটিকছড়ির দাঁতমারা ইউপি থেকে অস্ত্র, গুলি ও মাদক এবং মাদক বিক্রির টাকাসহ মো. সুমন (৩৫) নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

আটক সুমন  দাতঁমারা ইউপির পশ্চিম সিকদারখিল এলাকার লেংড়া আব্বাসের ছেলে

রবিবার (১৯ জলাই) ভোর ৪ টার দিকে টাকাসহ দাতঁমারা ইউপির ২ নম্বর ওয়ার্ড হেয়াকো পশ্চিম সিকদারখিল এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

ভুজপুর থানার ওসি শেখ আবদুল্লাহ জানিয়েছেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রাতে পুলিশের একটি দল অভিযান পরিচালনা করে পশ্চিম সিকদারখিল আব্বাস ওরফে লেংড়া আব্বাসের বাড়ী থেকে সুমনকে আটক করে। পরে তাকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে তার দেয়া স্বীকারোক্তি মতে তার শয়ন কক্ষ হতে ১ টি দেশীয় তৈরি বন্ধুক, ১ টি পাইপগান (যাতে ৩০৩ রাইফেলের গুলি ব্যবহৃত হত), ৬ রাউন্ড ৩০৩ রাইফেলের গুলি। ৩ টি ১২ বোর কার্তুজ, ১৫০ টি ইয়াবা এবং মাদক বিক্রয়ের ৩৮ হাজার ৫০০ টাকা উদ্ধার করা হয়েছে।

তিনি আরো জানান, সুমন মীরশ্বরাই উপজেলার জোরারগন্জ এলাকায় ডাকাতি, মাদক কারবারের সাথে যুক্ত রয়েছে। তার বিরুদ্ধে ভূজপুর এবং জোরারগন্জ থানায় ১২ টি মাদক মামলা, ১ টি অস্ত্র মামলা এবং ১ টি সরকারি কর্মচারির উপর হামলার মামলাসহ মোট ১৪টি মামলা রয়েছে। তাকে ধরার জন্য পুলিশ হন্য হয়ে খুঁজছিল।

এ ঘটনায় পুলিশ পরিদর্শক সোহরাওয়ার্দী সরওয়ার বাদী হয়ে ১ টি অস্ত্র মামলা এবং ১ টি মাদক মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে দাঁতমারা তদন্ত কেন্দ্রর ইনচার্জ সোহারাওয়ার্দ্দী সরোয়ার জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, জানা গেছে, গত বছর উক্ত সুমনকে হেয়াকো ক্যাম্পের বিজিবি গোয়েন্দা সদস্য নায়েক সোহেল আটক করতে চাইলে তার সাথে থাকা চাকু দিয়ে সোহেলকে কুপিয়ে আহত করে সুমন। সে ঘটনায় মামলা হলে সুমন দীর্ঘদিন জেলে ছিল। তার পিতাও একজন পেশাদার চোর। আব্বাইচ্যা চোরা হিসেবে তাকে এক নামে সবাই চিনে। তার অত্যাচারে এলাকাবাসী অতিষ্ঠ ছিল। বিগত ১৫/১৬ বছর আগে বাগান বাজার ইউপির আমতলী এলাকায় চুরি করতে যায় আব্বাস। পরে স্থানীয়রা তাকে হাতে নাতে ধরে মেরে পা ভেঙ্গে দেয়। মুমুর্ষ অবস্থা আব্বাসকে হাসপাতালে ভর্তি করা হলে ডাক্তারদের পরামর্শে তার পা কেটে ফেলতে হয়।

পূর্বকোণ/পিআর

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
The Post Viewed By: 111 People

সম্পর্কিত পোস্ট