চট্টগ্রাম বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০

ভারতে 'পালিয়ে যাওয়া' সেই মিজান বেনাপোলে আটক

১৮ জুলাই, ২০২০ | ৭:৩৬ অপরাহ্ণ

 কক্সবাজার সংবাদদাতা

ভারতে ‘পালিয়ে যাওয়া’ সেই মিজান বেনাপোলে আটক

পূর্বকোণ অনলাইনের অনুসন্ধানে উঠে আসা কক্সবাজার শহরের মাঝিরঘাটে খালাসের সময় এক কোটি ইয়াবা লুটকারীর মূলহোতা মিজানকে বেনাপোল থেকে আটক করা হয়েছে বলে পুলিশ প্রশাসনের একটি সূত্রে নিশ্চিত হওয়া গেছে। শুক্রবার (১৭ জুলাই) রাতে ভারত থেকে বাংলাদেশে ঢোকার পথেই বেনাপোল থেকে ইমিগ্রেশন পুলিশ তাকে আটক করে।

জানা গেছে, চলতি বছরের ৮ ফেব্রুয়ারি বিকালে কক্সবাজার শহরের বাঁকখালী নদীর মাঝিরঘাটস্থ আবু ছৈয়দ কোম্পানির জেটিতে মাছ ধরা ট্রলারে করে ইয়াবার একটি বিশাল চালান খালাস হয়। মাছ ধরার ট্রলার নিয়ে বিভিন্ন সময় এসব জেটি দিয়ে ইয়াবা খালাসের বিষয়ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী অবগত রয়েছে। ইয়াবা খালাসের নিরাপদ রুট হিসেবে ওই এলাকায় গড়ে উঠেছে একটি ইয়াবা সিন্ডিকেটও। যারা নিয়মিত ইয়াবা বিক্রি ও লুটের ঘটনায় জড়িত। গত ৮ ফেব্রুয়ারি এই ইয়াবা লুটের মূল কারিগর হলো মিজান নামে এক যুবক। মিজান টেকপাড়া এলাকার জজ বাবুলের ছেলে নামে পরিচিত। এক কোটি ইয়াবা ট্যাবলেট লুটের ১০ দিন পার হলেও ঘটনার সুরাহা মেলাতে পারেনি আইন শৃঙ্খলা বাহিনী। এরপর ১৯ ফেব্রুয়ারি সর্ব প্রথম দৈনিক পূর্বকোণ অনলাইনে ‘কক্সবাজারে এক কোটি ইয়াবা লুট : মিলছে না সুরাহা’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছিল।

সংবাদের সূত্র ধরে ইয়াবা লুটপাটের বিষয়ে মাঠে নামে কক্সবাজার জেলা পুলিশ। সংবাদের সূত্র ধরে যখন পুলিশ মাঠে নামেন তখন পলাতক হন টেকপাড়া এলাকার আলোচিত মিজান। এর কয়েকদিন পরে কক্সবাজার জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) অভিযান চালিয়ে লুট হওয়া ইয়াবা থেকে প্রায় দুই লাখ ইয়াবাসহ বেশ কয়েকজন আটক করেছিল। চলতি বছরের ৮ ফেব্রুয়ারি ইয়াবার এই বিশাল চালানটি লুটের পর মিজান ১৪ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সেই ইয়াবাগুলো বিক্রি করে। পরে বিষয়টি কক্সবাজার শহরজুড়ে আলোচনার ঝড় ওঠলে মিজান শহরের বিমানবন্দর রোডস্থ একটি যাত্রী পরিবহনে চট্টগ্রাম চলে যায়। এক পর্যায়ে বিমানযোগে ভারত পালিয়ে যায় ইয়াবা লুটের প্রধান হোতা। পরে মিজানের মোবাইলের সিডিএমএস পর্যাবেক্ষণ ও বিমানবন্দরের ইমিগ্রেশনের সঙ্গে কথা বলে ভারতে পালিয়ে যাওয়ার খবর নিশ্চিত হয় পুলিশ।

দীর্ঘ ৫ মাস পরে মিজান সড়ক পথে ভারত থেকে বাংলাদেশে প্রবেশ করার সময় শুক্রবার (১৭ জুলাই) বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ তাকে আটক করে এবং বিষয়টি কক্সবাজার জেলা পুলিশকে অবগত করে। মিজানকে আটকের বিষয়টি পূর্বকোণ অনলাইনকে নিশ্চিত করে কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইকবাল হোসাইন বলেন, শুক্রবার (১৭ জুলাই) রাতে বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের হাতে আটক হয় মিজান। ইমিগ্রেশন পুলিশ বিষয়টি কক্সবাজার জেলা পুলিশকে অবগত করেন। জেলা পুলিশের একটি টিম মিজানকে আনার জন্য বেনাপোলের উদ্দেশ্যে রওনা দেন। তবে ইয়াবা লুটকারি মিজান এখনো পুলিশের হাতে আসেনি। যখন কক্সবাজার জেলা পুলিশের হাতে আসবে তখন আরো বিস্তারিত জানা যাবে। সর্বপ্রথম ইয়াবা লুটের এই অনুসন্ধানী প্রতিবেদন পূর্বকোণ অনলাইনে প্রকাশের সূত্র ধরে জেলা পুলিশ মাঠে নামে বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

পূর্বকোণ/ আরাফাত- আরআর

শেয়ার করুন
  • 208
    Shares
The Post Viewed By: 150 People

সম্পর্কিত পোস্ট