চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ০৩ ডিসেম্বর, ২০২০

সর্বশেষ:

৭ জুলাই, ২০২০ | ২:০৮ অপরাহ্ণ

মহেশখালী সংবাদদাতা

মহেশখালীতে জোয়ারের পানিতে বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত, আতঙ্কে লক্ষাধিক মানুষ

ক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলার মাতারবাড়ি ইউনিয়নের সাইরার ডেইল জালিয়া পাড়া এলাকায় খোলা বেড়িবাঁধ দিয়ে জোয়ারের পানি প্রবেশ করে বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়েছে। এতে দ্বীপের লক্ষাধিক মানুষ জোয়ার পানির আতঙ্কে দিনাতিপাত করছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

মঙ্গলবার (৭ জুলাই) দুপুর ১ টার সময় বঙ্গোসাগরের জোয়ারে পানি লোকালয়ে প্রবেশ করলে লোকজনের দুর্ভোগ চরমে পৌঁছে। জোয়ারের পানির তোড়ে ভেঙে গেছে ঘরবাড়ি ও গাছপালা। ভেসে গেছে ঘর বাড়ির মালামাল।

স্থানীয় বাসিন্দা মোহাম্মদ রশিদ বলেন, সাইরার ডেইলের দক্ষিণ পশ্চিমে কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্পের পাথরের বেড়িঁবাধের সাথে পানি ধাক্কা খেয়ে ঘুরে যাওয়ায় লোকালয়ে পানি প্রবেশ করছে।

জানা যায়, উপজেলার মাতারবাড়ি ইউনিয়নের সাইরার ডেইল জালিয়া পাড়া এলাকায় প্রতিনিয়ত খোলা বেড়িবাঁধ দিয়ে জোয়ারের পানি উঠানামা করছে। মঙ্গলবার জোয়ারের পানিতে ঘরবাড়ি রাস্তাঘাট তলিয়ে যায়। স্থানীয়দের ভোগান্তি বৃদ্ধি পায়।

সাইরার ডেইল জালিয়া পাড়ার বাসিন্দা আব্দু সালামের স্ত্রী ছানোয়ারা ও মোহাম্মদ নুরুর স্ত্রী বুলু আরা বেগম বলেন, এখন জোয়ার পানিতে আমাদের ঘর-বাড়ি তলিয়ে গেছে। আমরা খোলা আকাশের নিচে বসবাস করছি। অন্তত চলতি বর্ষা মৌসুমে জোয়ার পানি থেকে রক্ষা করতে জিও টিউব দিয়ে হলেও খোলা বেড়িঁবাধটি নির্মাণ আমাদের মাতারবাড়িবাসীর প্রাণের দাবি হয়ে দাঁড়িয়েছে।

স্থানীয় ইউপি সদস্য হামেদ হোছাইন জানান, জোয়ারের পানিতে কমপক্ষে এক হাজার পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। তাদের দুঃখ কষ্টের শেষ নেই।

স্থানীয় চেয়ারম্যান মাস্টার মোহাম্মদ উল্লাহ জানান, জোয়ারের পানিতে বাড়িঘর-ভাসছে। এছাড়া জেলেপাড়া ও ষাইট পাড়া এলাকায়ও জোয়ারের পানি লোকালয়ে প্রবেশ করে প্লাবিত হয়েছে। এটি মাতারবাড়িবাসীর লক্ষাধিক মানুষের অস্তিত্বের বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। সংশ্লিষ্ট প্রশাসন ও পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তাদেরকে বিষয়টি অবগত করা হয়েছে।

কক্সবাজার পানি উন্নয়ন বোর্ড পাউবোর উপসহকারী প্রকৌশলী মো. সালমান পূর্বকোণকে বলেন, মাতারবাড়ি সাইরার ডেইল কিছু পরিবারে পানি প্রবেশ করার বিষয়টা আমি শুনেছি। এ বিষয়ে প্রদক্ষেপ নেওয়া হবে।

পূর্বকোণ/পিআর

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 159 People

সম্পর্কিত পোস্ট