চট্টগ্রাম শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর, ২০২০

৬ জুলাই, ২০২০ | ৬:০৫ অপরাহ্ণ

বাঁশখালী সংবাদদাতা

বাঁশখালীতে সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত দোকানদারের মৃত্যু

তিনদিন মৃত্যুর সাথে লড়াই করে চট্টগ্রামের বাঁশখালীর মাস্টার নজির আহমদ কলেজের সামনে সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত ব্যবসায়ী আব্দুর রহিম (৫১) অবশেষে মারা গেছেন।

সোমবার (৬ জুলাই) সকাল ৯টার দিকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।

জানা যায়, বাঁশখালী ছনুয়া ইউনিয়ন পরিষদ ভবনের নিচে আবদুর রহিম (৫১) চায়ের দোকানদার হিসেবে পরিচিত। তার কন্যা বুলবুল আকতার অসুস্থ হয়ে জলদি আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। অসুস্থ কন্যাকে দেখার পর জলদি থেকে কন্যার চিকিৎসা খরচ বহন করতে ছনুয়া বাড়ী যাওয়ার পথে দুর্ঘটনার শিকার হয়। গত বৃহষ্পতিবার (২ জুলাই) দুপুর ১২টার দিকে নাপোড়া মাস্টার নজির আহমদ কলেজের সামনে প্রধান সড়কে মধুবন কোম্পানীর কার্ভাডভ্যানের সাথে সিএনজি অটোরিক্সার মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে গুরুতর আহত অবস্থায় ছনুয়া ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের খুদুকখালী গ্রামের কাতেবী পাড়ার মৃত করম আলীর ছেলে আবদুর রহিমকে (৫১) প্রথমে বাঁশখালী হাসপাতাল ও পরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এই সময় সিএনজি অটোরিক্সা চালক মো. ইউসুফ (৪০) গুরুতর আহত হয় । তাকে বাঁশখালী হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

ছনুয়া ইউনিয়নের খুদুকখালী গ্রামের আব্দুল মন্নান জনান, কাতেবী পাড়ার আব্দুর রহিম পারিবারিকভাবে অসচ্ছল। তার ৭টি কন্যা সন্তান ও ১টি ছেলে রয়েছে। তার মেয়ে বুলবুল আকতার অসুস্থ হয়ে জলদি আধুনিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। মেয়ের চিকিৎসা খরচের জন্য বাড়ি যাওয়ার পথিমধ্যে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়ে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে।

ছনুয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. হারুনুর রশিদ বলেন, সড়ক দুর্ঘটনার পর আহত আব্দুর রহিমকে কাভার্ডভ্যানের মালিক পক্ষ থেকে চিকিৎসা  খরচ দেয়া হয়েছে। চিকিৎসাধীন অবস্থায় সে মারা গেছেন। এখন মৃত্যুর বিষয়টি নিয়ে মালিক পক্ষকে জানানো হবে। পুলিশকে অবহিত করা হয়েছে।

বাঁশখালী থানার অফিসার ইনর্চাজ (ওসি) রেজাউল করিম মজুমদার বলেন, সড়ক দুর্ঘটনায় আহত ব্যক্তি মারা গেছেন।

পূর্বকোণ/পিআর

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 130 People

সম্পর্কিত পোস্ট