চট্টগ্রাম শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর, ২০২০

২২ জুন, ২০২০ | ৭:৫১ অপরাহ্ণ

রাঙ্গুনিয়া সংবাদদাতা

কাপ্তাইয়ে একদিনে আরও ১৫ জন করোনায় আক্রান্ত

কাপ্তাই উপজেলায় প্রতিদিনই বাড়ছে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। আজ সোমবার (২২ জুন) একদিনে সর্বোচ্চ ১৫ জনের করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। কাপ্তাইয়ের বেশির ভাগ করোনা আক্রান্ত রোগীরা হোম আইসোলেশন আছেন এবং সামরিক বাহিনীর যারা করোনা আক্রান্ত হচ্ছে তারা নিজস্ব হাসপাতালে  চিকিৎসা সেবা নিচ্ছে। কিন্তু সাধারন রোগীরা নিজ ঘরে আইসোলেশনে থাকায় অন্যদের মাঝে সংক্রমণের ঝুঁকি রয়েছে। তাই স্থানীয়দের মাঝে সরকারিভাবে আইসোলেশন সেন্টার প্রতিষ্ঠার দাবি জোরালো হচ্ছে।

কাপ্তাই উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ সুত্র জানায়, কাপ্তাইয়ে এ পর্যন্ত ৪২জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। মারা গেছে এক যুবক (নার্স)। আক্রান্তদের মধ্যে পুলিশ ও নৌবাহিনীর সদস্য বেশি। কাপ্তাইয়ে সোমবার পর্যন্ত শনাক্ত হওয়া করোনা রোগী পুলিশ সদস্য ১৩ জন, নৌবাহিনীর সদস্য ৮ জন, সেনাবাহিনীর ১ জন, আনসার ১ জন, চিকিৎসক ১ জন, স্বাস্থ্যকর্মী ৫ জন, সরকারি ৪র্থ শ্রেণির কর্মচারি ২ জন, উপজেলা সদর বড়ইছড়ি এলাকার ৩ যুবক, কাপ্তাই পিডিবি এলাকার ৪ জন, মিশন এলাকার ১ জন যুবক, কেপিএম এলাকার ১ জন মহিলা, রাইখালী এলাকায় মৃত  নার্স ও তার বাবা রয়েছে।

কাপ্তাই থানার ওসি নাসির উদ্দীন জানান, শুরু থেকে কাপ্তাইয়ের প্রতিটি পয়েন্টে ঝুঁকি নিয়ে পুলিশ সদস্যরা দায়িত্ব পালন করেছেন, ফলে এখন আক্রান্তদের মধ্যে পুলিশ সদস্যদের তালিকা দীর্ঘতর হচ্ছে। কাপ্তাইয়ের ১৩ জন পুলিশ সদস্য ইতিমধ্যে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তাদের মধ্যে ৫ জনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ৩য় তলায় আইসোলেশনে রেখে চিকিৎসা করানো হচ্ছে এবং বাকীদের নিজস্ব ফাঁড়িতে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। তিনি জানান, অধিকাংশ পুলিশ সদস্যদের অবস্থা বর্তমানে ভালো। যদি কারোও অবস্থার অবনতি ঘটে হাসপাতালে পাঠানো হবে।

কাপ্তাই উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মাসুদ আহমেদ চৌধুরী জানান, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ৫০ শয্যা হাসপাতাল এর ৩য় তলায় মাত্র ৪ টি বেডে করোনা আক্রান্ত রোগীদের আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। এর বাইরে রোগী আসলে এই মুহুর্তে ভর্তি করা সম্ভব নয়।

কাপ্তাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশ্রাফ আহমেদ রাসেল জানান, যদি কাপ্তাইয়ে করোনা রোগীর সংখ্যা আরও বৃদ্ধি পায় তাহলে উপজেলা সদর বড়ইছড়ি কর্ণফুলি নুরুল হুদা কাদেরী উচ্চ বিদ্যালয় এবং কাপ্তাই আল আমিন নুরিয়া মাদ্রাসায় আইসোলেশন সেন্টার গড়ে তোলা হবে। আর যদি রাইখালী ইউনিয়নে করোনা রোগী বাড়ে তাহলে নারানগিরি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়েও আইসোলেশন কেন্দ্র গড়ে তোলা হবে। অবস্থা বুঝে আমরা এসব উদ্যোগ নেব।

পূর্বকোণ / আর আর – জিগার

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 143 People

সম্পর্কিত পোস্ট