চট্টগ্রাম সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০

সর্বশেষ:

পাহাড়ি ঢলে পানিবন্দি চকরিয়ার লাখো মানুষ
পাহাড়ি ঢলে পানিবন্দি চকরিয়ার লাখো মানুষ

১৮ জুন, ২০২০ | ৪:৫৩ অপরাহ্ণ

চকরিয়া-পেকুয়া প্রতিনিধি

পাহাড়ি ঢলে পানিবন্দি চকরিয়ার লাখো মানুষ

টানা বর্ষণে পানিতে নিমজ্জিত এখন কক্সবাজারের চকরিয়ার অন্তত ৩০ টি গ্রাম। পানিবন্দি হয়ে পড়েছে লাখো মানুষ। সড়কের উপর দিয়ে ঢলের পানি প্রবাহিত হওয়ায় উপজেলার অভ্যন্তরীণ যোগাযোগে বিপর্যয় নেমে এসেছে।

আজ বৃহস্পতিবার (১৮ জুন) বিকাল ৪ টায় মাতামুহুরী নদীতে ঢলের পানি বিপদ সীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল।

গতকাল বুধবার (১৭ জুন) সকাল থেকে উজানের লামা-আলীকদমের পাহাড়ি এলাকায় ভারী বর্ষণ শুরু হয়। ওইদিন মধ্য রাত থেকে পাহাড়ি ঢল নামতে শুরু করে। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে মাতামুহুরি নদীর দু’কূল উপচিয়ে চকরিয়ার বসতি এলাকায় প্রবেশ করে ঢলের পানি।

বৃষ্টি অব্যাহত থাকায় নদীতে পানি বাড়তে থাকে। দুপুরে উপজেলার সিংহভাগ সড়ক বানের জলে তলিয়ে যায়। ফলে বিপর্যয় নেমে আসে যোগাযোগে।

দুপুরের পর থেকে নিচু গ্রামের বসত ঘরে ঢলের পানি প্রবেশ করে। চকরিয়া পৌরসভা, কাকারা,সুরাজপুর-মানিকপুর,লক্ষ্যারচর, কৈয়ারবিল,বরইতলী, হারবাং, চিরিঙ্গা, ফাঁসিয়াখালী, সাহারবিল, ডুলাহাজারা, পূর্ব বড় ভেওলা, বিএমচর ইউনিয়নের অন্তত ৩০ টি গ্রামের বসতঘরে ঢলের পানি প্রবেশ করেছে। কয়েকটি গ্রামের টিউবওয়েল পানির নিচে তলিয়ে যাওয়ায় পানীয়জলের সঙ্কট হতে পারে। ঢলের পানি প্রবেশ করায় অসংখ্য পরিবারে দুপুরে রান্না হয়নি। এসব তথ্য নিশ্চিত করেন পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব আলমগীর চৌধুরী, ইউপি চেয়ারম্যান যথাক্রমে শওকত ওসমান, আজিমুল হক আজিম, গোলাম মোস্তফা কায়ছার,মক্কী ইকবাল, আলহাজ্ব জসীমউদ্দিন, জালাল আহমেদ সিকদার,মহসিন বাবুল, মিরানুল ইসলাম প্রমুখ।

এদিকে, ঢলের পানি আর কয়েকফুট বাড়লে চিংড়িজোনের বিপুল মাছ ভেসে যাওয়ার আশঙ্কা করেছেন চিরিঙ্গা ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব জসীমউদ্দিন।

চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ফজলুল করিম সাঈদী বলেন, করোনায় যখন মানুষ চরম আতঙ্কে ঠিক ওই সময় ভারী বর্ষণে সৃষ্ট বন্যায় চকরিয়ায় মানুষের বিপর্যয় আরও বেড়ে যায়। তবুও আমরা চেষ্টা করছি অসহায় মানুষের পাশে থাকতে।

পূর্বকোণ/জাহেদ-এএ

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 183 People

সম্পর্কিত পোস্ট