চট্টগ্রাম বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০

‘রেড জোন’ এলাকা বাড়ছে কক্সবাজারে

৭ জুন, ২০২০ | ২:৪৩ পূর্বাহ্ণ

এম জাহেদ চৌধুরী ও হাফেজ কাশেম

টেকনাফ পৌর এলাকাও রেড জোন

‘রেড জোন’ এলাকা বাড়ছে কক্সবাজারে

চকরিয়া পৌরসভা ও ডুলাহাজারার রেড জোন ১২ ওয়ার্ডে ফের লকডাউন

কক্সবাজারের চকরিয়া পৌরসভা (পুরো এলাকা) এবং ডুলাহাজারা ইউনিয়নের ২, ৩ ও ৮ নম্বর ওয়ার্ডকে রেড জোন চিহ্নিত করে কঠোর লকডাউনের আওতায় নিয়ে আসা হয়েছে। করোনার বিস্তার ঠেকাতে আজ মধ্যরাত থেকে আগামী ২১ জুন রাত ১২ টা পর্যন্ত ১৪ দিন কঠোর লকডাউনের আওতায় থাকবে। কোভিড-১৯ নিয়ন্ত্রণের লক্ষ্যে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে জেলা ও উপজেলা কমিটির সিদ্ধান্ত মোতাবেক এসব এলাকায় বিশেষ ব্যবস্থা হিসেবে রেড জোন হিসেবে শনাক্ত করা হয় চকরিয়া পৌরসভার ৯ টি ও ডুলাহাজারা ইউনিয়নের ৩ ওয়ার্ডকে। গতকাল শনিবার বিকালে বিজ্ঞপ্তি জারি করে এ আদেশ দেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সৈয়দ শামসুল তাবরীজ। এ ব্যাপারে চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সৈয়দ শামসুল তাবরীজ বলেন, করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে রেড জোন এর আওতায় পড়া এলাকায় ১৪ দিনের লকডাউনটি কার্যকর করা হবে অনেকটা কারফিউর মতোই। এই সময়ে সর্বসাধারণকে কার্যত বাড়িতেই অবস্থান করতে হবে। কেউ বাহির থেকে আসলেও তাদেরকে আইনের মুখোমুখি হতে হবে। লক ডাউন চলাকালীন কর্মহীন যেসব শ্রমজীবী পরিবার রয়েছে তাদের তালিকা করে বাড়ি বাড়ি খাদ্যসহায়তা পৌঁছে দেওয়া হবে। কোভিড-১৯ মোকাবেলায় দায়িত্বপ্রাপ্ত বেসরকারি গাড়ি চলাচলে জেলা প্রশাসনের অনুমতি গ্রহণ করবে। অ্যাম্বুলেন্স, রোগী পরিবহন, স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারী ব্যক্তিবর্গের (অনডিউটি) পরিবহন, কোভিড-১৯ মোকাবেলা ও জরুরী সেবা প্রদানকারী কর্তৃপক্ষের গাড়ি এর আওতার বাইরে থাকবে।
এ ছাড়া সকল ব্যক্তিগত ও গণপরিবহন বন্ধ থাকবে। নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য বহনকারী হালকা ও ভারী যানবাহন রাত ৮টা থেকে সকাল ৮টা পর্যন্ত চলাচল করতে পারবে।
সকল প্রকার দোকান, মার্কেট, হাট-বাজার, ফুটপাতের দোকান ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে। কেবলমাত্র শনিবার, সোমবার ও বুধবার কাঁচাবাজার এবং শুক্রবার, শনিবার, সোমবার ও বুধবার মুদি দোকান স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত আকারে সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত খোলা যাবে। ওষুধের দোকান এর আওতার বাইরে থাকবে।
সকল হাসপাতাল, চিকিৎসাসেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান ও কোভিড-১৯ মোকাবেলায় পরিচালিত ব্যাংকিং সেবা প্রদান এর আওতার বাইরে থাকবে। রেড জোনে জরুরী সংবাদ সংগ্রহের জন্য নির্বাচিত সংবাদকর্মী এবং কোভিড-১৯ মোকাবেলায় রেডজোনে কাজ করার নিমিত্তে নিয়োজিত স্বেচ্ছাসেবীদের উপজেলা নির্বাহী অফিসার, চকরিয়া কর্তৃক ছবিযুক্ত বিশেষ পরিচয় পত্র দৃশ্যমান অবস্থায় গলায় ঝুলানো থাকা সাপেক্ষে কাজ করার অনুমতি দেওয়া হবে।
এদিকে টেকনাফ পৌর এলাকাকে ‘রেড জোন’ ঘোষণা করা হয়েছে। ৬ জুন সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ সংক্রান্ত উপজেলা কমিটির সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক রাতে টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম সাইফ এ সংক্রান্ত নির্দেশ জারি করেন। উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে. রবিবার (আজ) ৭ জুন এ ব্যাপারে মাইকিং করা হবে। টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম সাইফ স্বাক্ষরিত টেকনাফ পৌর এলাকাকে ‘রেড জোন’ হিসাবে ঘোষণার পর বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরা হয়।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 174 People

সম্পর্কিত পোস্ট