চট্টগ্রাম রবিবার, ১২ জুলাই, ২০২০

সর্বশেষ:

জ্বর থাকলে মিলবে না রেলের টিকেট

২৯ মে, ২০২০ | ৯:১১ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

জ্বর থাকলে মিলবে না রেলের টিকেট

সরকারের নির্দেশনার পর সীমিত আকারে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলাচল করতে যাচ্ছে গণপরিবহন, যাত্রীবাহি ট্রেন, লঞ্চ ও উড়োজাহাজ। আগামী ৩১ মে থেকে ফের যাত্রীবাহী ট্রেনের যাত্রা শুরু করতে যাচ্ছে রেলওয়ে বিভাগ। এরই মধ্যে চট্টগ্রাম রেল স্টেশনে বানানো হচ্ছে করোনার সংক্রমণ ঠেকনোর পথ। স্টেশনে লাল রঙে আঁকা হচ্ছে সামাজিক দূরত্ব রক্ষার চিহ্ন। এমনকি টিকেট প্রত্যাশীদের টিকেট পেতে দিতে হবে পরীক্ষা। স্টেশনে থাকা থার্মাল যন্ত্রে শরীরের জ্বর ধরা পরলেই মিলবে না টিকেট। তাৎক্ষণিক জ্বর আক্রান্ত ওই যাত্রীকে নিয়ে যাওয়া হবে প্লাটফর্মেরই একটি আলাদা কক্ষে। নিজেদের প্রস্তুতি সম্পর্কে পূর্বকোণকে এমনটাই জানালেন রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের কর্মকর্তারা।

রেলওয়ে সূত্র জানায়, স্টেশনের প্লাটফরমে ট্রেনে ওঠার এবং টিকিট কাউন্টারের সামনে স্বাস্থ্যবিধি মেনে দাঁড়ানোর জন্য তিন ফুট দূরত্বে অবস্থান নিশ্চিত করতে গোল বৃত্ত চিহ্ন দেওয়া হয়েছে।  রবিবার (৩১ মে) থেকে কয়েকটি আন্তঃনগর ট্রেন চালু করা হবে।  সেই হিসেবে শনিবার (৩০ মে) থেকে শুরু হতে পারে রেলের টিকিট বিক্রি।

তবে শারীরিক ও সামাজিক দূরুত্ব মেনে রেলে চড়তে যাত্রীদের দিতে হবে জ্বর মাপার পরীক্ষা। আর স্টেশনের থার্মাল মেশিনে কোন যাত্রীর জ্বর ধরা পড়লে তাকে রাখা হবে প্লাটফর্মের একটি আলাদা রুমে। পরে স্বাস্হ্য অধিদপ্তরের লোকজন এসে নিয়ে যাবেন করোনার সন্দেহের সেই রোগীকে।

রেল কর্মকর্তারা বলছেন, মরণঘাতী করোনার সংক্রমণ ঠেকিয়ে রেল যাত্রা নিরাপদ করতে নেওয়া হয়েছে এমন উদ্যোগ। অন্যদিকে রেল স্টেশনে কর্মরত কর্মকর্তা-কর্মচারীদেরও নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষা দিতে হবে। এছাড়া যাত্রীরা কিভাবে টিকিট নেবেন, কিভাবে স্টেশনে ঢুকবেন, কিভাবে ট্রেনে উঠবেন- এসব বিষয় প্রচারের জন্য প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।

পূর্বাঞ্চলের বিভাগীয় বাণিজ্যিক কর্মকর্তা (ডিসিও) আনসার আলী জানান, স্টেশনে আসা যাত্রীদের শারীরিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে প্লাটফরম ও টিকিট কাউন্টারের সামনে গোল চিহ্নের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশনের ম্যানেজার রতন কুমার চৌধুরী বলেন, ‘এরই মধ্যে স্টেশনে আমরা পূর্ব প্রস্তুতিমূলক কাজগুলো সম্পন্ন করেছি। ট্রেন চালু হওয়ার পর স্টেশন সংশ্লিষ্ট সবার নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হবে।’ এ ছাড়া জ্বর, সর্দি, কাশি কিংবা করোনার লক্ষণ দেখা দিলে স্টেশনে না আসার অনুরোধ জানান তিনি।

করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে সারা দেশের মত চট্টগ্রামেও গত ২৪ মার্চ থেকে সব ধরনের ট্রেন চলাচল বন্ধ করা হয়েছিল । পরে সীমিত আকারে খুলে দেওয়া হয়েছিল কিছু পণ্যবাহী ট্রেনের চলাচল। দীর্ঘদিন পরে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় স্বল্প পরিসরে যান চলাচলের অনুমতি মিলেছে। ফলশ্রুতিতে আগামী ৩১ মে রবিবার থেকে সস্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব মেনে স্বল্প পরিসরে ট্রেন চালুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ রেলওয়ে। আগামী শনিবার (৩০ মে) এ বিষয়ে বিস্তারিত গণমাধ্যমকে জানাবেন রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন। পূর্বাঞ্চল রেলের কর্মকর্তারা বলছেন প্রস্তুতি শেষে তাদের নজর রেলমন্ত্রীর এই ব্রিফিংয়ের দিকে।

পূর্বকোণ/পিআর-আল আমিন

The Post Viewed By: 161 People

সম্পর্কিত পোস্ট