চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ২৮ মে, ২০২০

অনলাইনে চলছে ঈদ শপিং

২০ মে, ২০২০ | ৭:২১ অপরাহ্ণ

মরিয়ম জাহান মুন্নী

অনলাইনে চলছে ঈদ শপিং

দেখতে দেখতে রমজানের একেবারে শেষের দিকে চলে এসেছে। আর কয়েক দিন পরেই পবিত্র ঈদুল ফিতর। কিন্তু এবারে ঈদ নিয়ে কারো মধ্যে যেন নেই কোনো আগ্রহ। কারণ বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাসের কারণে চট্টগ্রামসহ সারা দেশের প্রায় সবগুলো শপিংমল বন্ধ রয়েছে। এছাড়া মহামারীর কারণে অনেক মানুষ বেকার হয়ে পড়েছে। তাই ঈদের শপিং কিংবা ঈদের আনন্দ যেন কারো মনকে আন্দোলিত করছে না। তবে এক্ষেত্রে কিছু অনলাইন সাইট দিচ্ছে ঘরে বসে শপিং করার সুযোগ। তাই করোনায়ও বন্ধ নেই ঈদ শপিং।
অনলাইনের মাধ্যমে অনকেই করছে ঈদের কেনাকাটা। ঈদ মানে খুশি, ঈদ মানেই আনন্দ। নতুন পোশাক ছাড়া ঈদের আনন্দ যেন অপূর্ণ থেকে যায়। শুধু পোশাকই নয়, ঈদকে সামনে রেখে ঘর সাজানো থেকে শুরু করে সব কিছু নতুন কেনার প্রতিও মানুষের আলাদা আগ্রহ দেখা যায়। কিন্তু এবারের ঈদ সবার কাছে একটু ভিন্নভাবে ধরা দিয়েছে। তাই এবারে ঈদ নিয়ে যেন কারো কাছে নেই কোনো আগ্রহ। নেই শিশু-কিশোর, তরুণ-তরুণী কিংবা বয়স্কদেরও। তবে ঈদ উপলক্ষে যারা কেনাকাটা করতে আগ্রহী তারা ঘরে বসেই করতে পারছে ঈদের শপিং। এতে নেই করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার ভয়ও। এছাড়া ঈদের এ কেনাকাটা করতে এখন আর আগের মতো ঝক্কিঝামেলা পোহাতে হয় না। যেতে হয় না কোনো শপিংমলেও। এখন দিন বদলেছে, আগের মতো মার্কেটে না গেলেও চলে। ঘরে বসেই কেনাকাটার সুযোগ দিচ্ছে অনলাইন শপগুলো। এখন ঘর থেকে বের হতে না পারার জন্য শপিং বন্ধ থাকে না। তাই এ মহামারীতেও অনেককে দেখা যায় ঘরে বসে অনলাইনের মাধ্যমে করছে শপিং। এমন গ্রাহকদের জন্য সারাদেশসহ চট্টগ্রামে সেবা দিচ্ছে কিছু অনলাইন ভিত্তিক ই-কমাস সাইট ও ফেসবুক। এসব ই-কর্মাস ও ফেসবুকে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে কর্মকর্তারা লাইভে এসে তাদের পোশাকের বিজ্ঞাপন দিয়ে আর বিক্রি করছে ছোট-বড় সকলের নানারকম পোশাক। ফেসবুক ও ই-কমার্সের মাধ্যমে সিটিজি সেল বাজারে অনকেগুলো অনলাইন গ্রুপ দিচ্ছে এ সেবা। এগুলোর মধ্যে যোগ হয়েছে বিক্রয় ডট কমসহ কিছু নারী ক্রেতার ফেসবুকভিত্তিক লাইভ। বর্তমানে ফেসবুক অনলাইনভিত্তিক নারীদের পোশাকের কিছু গ্রুপ ‘গালর্স প্রায়রিটি, ওমেন্স পাওয়ার’ মেহেদি সাজসহ অনকেগুলো গার্লস গ্রুপে রুম্পা কালেকশন, জেসিয়াস ফ্যাশন হাউস, রিফা কালেকশন, চৈতি বুটিক হাউসসহ নানান নামে অনলাইনভিত্তিক বিজনেস মাধ্যম নারী ও পুরুষদের দিচ্ছে ঘরে বসেই শপিং করার সুযোগ। রয়েছে ছোট-বড় ও ছেলেদের পোশাকও। এছাড়া শুধু পোশাকই নয়, ইন্টারনেটের মাধ্যমে ই-কমার্স সাইট, ফেসবুক শপ থেকে নানা পণ্য কিনছেন ক্রেতারা।
তামান্না তুসি নামের এক গৃহিণী বলেন, এবছর আমার নতুন বিয়ে হয়েছে। শশুরবাড়িতে এবারই প্রথম ঈদ। করোনাভাইরাসের কারণে এবারতো আর শপিং করতে পারছি না। তবে ফেসবুকের মাধ্যমে ঘরে বসেই কিছু শপিং করেছি। আসলে অনলাইন আমাদের একটা ধারুণ সুযোগ করে দিয়েছে। এখন যেকোনো পরিবেশে আমরা ঘরে বসেই পণ্য অর্ডার করতে পারি। আর সহজে তা পেয়েও যাই। চাইলেই যেকোনো কেনাকাটা করতে পারি ঘরে বসেই। আমি দুইদিন আগে শশুরবাড়ির জন্য অনলাইনের মাধ্যমে অনেকগুলো শপিং করেছি।

The Post Viewed By: 61 People

সম্পর্কিত পোস্ট