চট্টগ্রাম শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর, ২০২০

সর্বশেষ:

২৭ এপ্রিল, ২০১৯ | ৩:৫৪ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রতিশোধ নিতে হত্যার পর দিলীপকে পোড়ানো হয়

নগরীর হালিশহরে উদ্ধার হওয়া অজ্ঞাত পোড়া লাশের পরিচয় পেয়েছে পুলিশ। নিহতের নাম দিলীপ (১৮)। সে খাগড়াছড়ি জেলার মানিকছড়ির লক্ষ্মীছড়ি এলাকার বাসিন্দা।
এদিকে লাশের রহস্য উদঘাটন করতে গিয়ে পুলিশ জীবন আচার্য্য (১৬) ও দুর্জয় আচার্য্য (১৬) নামে দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে। তাদের মধ্যে জীবন শুক্রবার বিকেলে মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মো. শফিউদ্দিনের আদালতে হত্যার বিষয় স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। জবানবন্দিতে জীবন জানায় প্রতিশোধ নিতেই তারা দুই জন (জীবন ও দুর্জয়) মিলে দিলীপকে পরিকল্পনা করে হত্যা করে। পরবর্তীতে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়।
এর আগে গত ২১ এপ্রিল সন্ধ্যায় নগরীর হালিশহর থানাধীন ফইল্ল্যাতলী বাজারের খালপাড় এলাকার একটি পরিত্যক্ত বাড়ি থেকে পোড়া ও গলিত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। সে সময় লাশের পাশে পাওয়া একটি সিম কার্ডের প্যাকেটের সূত্র ধরে তদন্তে নামে পুলিশ। আর ঘটনার এক সপ্তাহের মধ্যেই মূল হত্যার রহস্য উদঘাটন করেন তারা।
বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও হালিশহর থানার এসআই মো. সাইফুল্লাহ। তিনি বলেন, ‘নিহত দিলীপ, জীবন ও দুর্জয় তিনজনই দিনমজুর। হত্যার সাথে সরাসরি জড়িত থাকার বিষয়ে জীবন আদালতে স্বীকারোক্তি দিয়েছেন। তবে দুর্জয় এখনো থানায় রয়েছে। পুরো বিষয়ে আমরা পরবর্তীতে বিস্তারিত জানাবো’।
এদিকে, নগরীর ডবলমুরিং জোনের সিনিয়র সহকারী কমিশনার আশিকুর রহমান জানান, পোড়া লাশের পাশে পাওয়া একটি মোবাইলের সিমের প্যাকেটের সূত্র ধরে তদন্তে নামে পুলিশ। এসময় ঘটনার সাথে সরাসরি জড়িত থাকায় জীবন ও দুর্জয়কে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। জীবন, দুর্জয় ও নিহত দিলীপ তিনজনেই কুমিরা এলাকার জিপিএইচ ইস্পাত কারখানার শ্রমিক। তারা এক সাথেই বসবাস করতো। খুন হওয়ার কিছু দিন আগে জীবন ও দুর্জয়কে গালিগালাজ এবং মারধর করে দীলিপ। তার প্রতিশোধ নিতেই জীবন ও দুর্জয় মিলে ১৮ এপ্রিল দিলীপকে পরিকল্পনা করে প্রথমে নাথপাড়া এলাকায় হত্যা করে। পরে ফইল্ল্যাতলী খালপাড় এলাকার পরিত্যক্ত ওই বাড়িতে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 408 People

সম্পর্কিত পোস্ট