চট্টগ্রাম সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২০

সর্বশেষ:

করোনা আক্রান্তের হার : কমছে ঢাকায়, অধিক ঝুঁকিতে চট্টগ্রাম

১৬ মে, ২০২০ | ৬:৩৫ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা অফিস

করোনা আক্রান্তের হার : কমছে ঢাকায়, অধিক ঝুঁকিতে চট্টগ্রাম

ঢাকা জেলা ও ঢাকা বিভাগে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্তের হার কমেছে। তবে চট্টগ্রাম অঞ্চলে এই হার বেড়েছে বলে দাবি করেছে স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলাতানা। তবে ঢাকা অঞ্চলেই করোনা রোগী শনাক্তের হার বেশি ছিল। গতকাল কোভিড-১৯ নিয়ে আয়োজিত নিয়মিত অনলাইন সংবাদ বুলেটিনে এ তথ্য জানান তিনি।
অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা বলেন, কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়ে শনাক্ত হওয়াদের মধ্যে ঢাকা মহানগর এবং ঢাকা বিভাগের মধ্যে শতকরা হার কমেছে, এ হার বর্তমানে ৮০ শতাংশের নিচে নেমেছে। তিনি জানান, ঢাকা শহর এবং ঢাকার বিভিন্ন জেলা মিলিয়ে ঢাকা বিভাগে এখন সর্বশেষ তথ্যানুযায়ী শনাক্তের হার ৭৯ দশমিক ৫৪ শতাংশ। এর মধ্যে আবার ঢাকা সিটিতে ৫৮ দশমিক ১১ শতাংশ এবং ঢাকার বিভিন্ন জেলার মধ্যে ২১ দশমিক ৪৩ শতাংশ। তবে ঢাকা বিভাগের বিভিন্ন জেলার মধ্যে শনাক্ত হওয়া রোগীর হার নারায়ণগঞ্জে সবচেয়ে বেশি। তবে চট্টগ্রাম বিভাগে রোগী শনাক্তের হার বাড়ছে জানিয়ে তিনি বলেন, সর্বশেষ তথ্যানুযায়ী চট্টগ্রাম বিভাগে আট দশমিক ৪৭ শতাংশ রোগী শনাক্ত হচ্ছে। শনাক্তের হার অনুযায়ী এরপর ময়মনসিংহে তিন দশমিক ৫০ শতাংশ, রংপুরে দুই দশমিক ৫৩ শতাংশ, সিলেটে এক দশমিক ৫৪ শতাংশ, রাজশাহীতে এক দশমিক ৩৯ শতাংশ এবং বরিশালে এক দশমিক ১০ শতাংশ রোগী শনাক্ত পাওয়া যাচ্ছে বলে জানান তিনি।
এদিকে চট্টগ্রামের তিনটি করোনা ল্যাবে একদিনে নতুন করে ৬১ জনের নমুনায় করোনা শনাক্ত হয়েছে। অন্যদিকে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন এক ট্রাফিক পুলিশের কনস্টেবল। গতকাল দুপুরে চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি বলেন, বৃহস্পতিবার রাত পর্যন্ত তিনটি ল্যাবে পরীক্ষা করা নমুনায় সর্বশেষ তথ্যানুযায়ী চট্টগ্রামে একদিনে ৬১ জন পজিটিভ পাওয়া গেছে। সিভিল সার্জন বলেন, এর মধ্যে নগরের বাসিন্দা ৫১ জন। বাকি ১০ জন চট্টগ্রামের পটিয়া, রাঙ্গুনিয়া, বাঁশখালী, বোয়ালখালীর বাসিন্দা। নতুন শনাক্তদের তালিকায় দুজন চিকিৎসক, দুজন পুলিশ সদস্য ও একজন সাংবাদিক রয়েছেন। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন চারজন। আইসোলেশন থেকে ছাড়া পেয়েছেন একজন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন একজন।

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
The Post Viewed By: 239 People

সম্পর্কিত পোস্ট