চট্টগ্রাম বুধবার, ০৩ জুন, ২০২০

বোরকা পরে ক্রেতা সাজলেন ইউএনও, স্বাস্থ্যবিধি না মানায় জরিমানা

১৪ মে, ২০২০ | ৯:৩৭ অপরাহ্ণ

পটিয়া সংবাদদাতা

বোরকা পরে ক্রেতা সাজলেন ইউএনও, স্বাস্থ্যবিধি না মানায় জরিমানা

বোরকা পরে ক্রেতা সেজে  ইউএনও ফারহানা জাহান উপমা চট্টগ্রামের পটিয়া পৌর সদরের শহীদ ছবুর রোড় এলাকায় দুই কাপড় দোকানিকে জরিমানা করেন।

এদিকে, ইউএনওর অভিযানের খবর পেয়ে ওই এলাকা ও আশপাশের অন্যান্য মার্কেটগুলোর দোকানদাররা দোকানে তালা লাগিয়ে পালিয়ে যায়। আজ বৃহস্পতিবার (১৪ মে) বেলা ১১টা থেকে দুপুর ৩টা পর্যন্ত স্বাস্থ্যবিধি না মেনে জমজমাট কেনাবেচায় মত্ত দোকানিদের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। পটিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফারহানা জাহান উপমার নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান অভিযানে সহযোগিতা করেন সেনাবাহিনী ও পুলিশ।

অভিযানে স্বাস্থ্যবিধি না মেনে দোকানে কেনাবেচা চালু রাখায় ‘মনে রেখ’ নামের এক কাপড়ের দোকানকে ১৫ হাজার, সৌখিন স্টোরকে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এছাড়া মোটর সাইকেল আরোহী দুইজনকে এক হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও পটিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফারহানা জাহান উপমা জানান, ‘আমি বোরকা পরে ক্রেতা সেজে মার্কেটলোতে অভিযান পরিচালনা করেছি। স্বাভাবিকভাবে অভিযানে আসার আগে দোকানিরা খবর পেয়ে যায়, আমরা চলে যাওয়ার পর স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করে আবারো শুরু করে ব্যবসা। প্রথম দিনে জরিমানা করা হয়েছে। পরবর্তীতে জেলসহ কঠোর শাস্তি দেয়া হবে। এ অভিযান অব্যাহত থাকবে। পটিয়া সদরের বড় মার্কেটগুলোর কাপডের দোকান খোলা ছিলো। বৃহস্পতিবার সেখানকার পরিস্থিতি দেখতে অভিযানে যাই আমরা।

তিনি বলেন, গিয়ে দেখি, কোনো কাপড়ের দোকানেই স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না। ক্রেতা-বিক্রেতা কারও মাস্ক বা হ্যান্ড গ্ল্যাভস নেই। ১২০-১৫০ স্কয়ার ফুটের একটি দোকানে গাদাগাদি করে বসে ১০-১২ জন ক্রেতা কেনাকাটা করছেন।

‘অভিযানের খবর পেয়ে অনেক দোকানি দোকান বন্ধ করে সরে পড়েন। অনেকে দোকানে ক্রেতা রেখেই পালিয়ে যান। দুই দোকানিকে ৩০ হাজার টাকাসহ দুই মোটরসাইকেল আরোহীকে এক হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।’

 

 

পূর্বকোণ/আরআর/হারুন

The Post Viewed By: 400 People

সম্পর্কিত পোস্ট