চট্টগ্রাম সোমবার, ২৫ মে, ২০২০

সর্বশেষ:

চকরিয়ায় সিদ্ধান্ত অমান্য করে দোকান খোলায় ১৯ দোকানিকে জরিমানা

১৪ মে, ২০২০ | ৬:১০ অপরাহ্ণ

চকরিয়া-পেকুয়া সংবাদদাতা

চকরিয়ায় সিদ্ধান্ত অমান্য করে দোকান খোলায় ১৯ দোকানিকে জরিমানা

কক্সবাজারের চকরিয়ায় সিদ্ধান্ত না মেনে দোকান খোলার অভিযোগে ১৯টি দোকান থেকে ১ লাখ ৩৮ হাজার ৫’শ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। এ সময় একজন দোকান কর্মচারীকে আটক করা হয়। 

আজ বৃহস্পতিবার (১৪ মে) ভোর সাড়ে ৪ টা থেকে সকাল ৯ টা পর্যন্ত ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান চালিয়ে এই দণ্ড দেয়া হয়।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট  সৈয়দ শামসুল তাবরীজের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান চালানো হয়।

গত ৮ মে যৌথ বৈঠকে ঈদের আগে মুদির দোকান ও ফার্মেসি ব্যতিত অন্য সকল দোকান বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত হয়। মালিকপক্ষ ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে দুই মাসের ভাড়া না নেয়া এবং সকল দোকানের কর্মচারীদের পৌরসভার পক্ষ থেকে উপহার দেয়ার ঘোষণা দেয়া হয়।

কিন্তু গুটিকয়েক ব্যবসায়ী ওই সিদ্ধান্ত তোয়াক্কা না করে ভোরে দোকান খোলে। তাদের দোকানে ক্রেতাদেরও ভিড় জমে। ফলে সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখার সরকারি নির্দেশনা লঙ্ঘন হয়। তাই খবর পেয়ে অভিযান চালানো হয় চকরিয়া পৌরশহরের বিভিন্ন বিপনী বিতান, স্বর্ণের দোকান, শাড়ির দোকান, রড-সিমেন্টের দোকানসহ বিভিন্ন দোকানে।

চকরিয়া উপজেলা টেকনেশিয়ান এরশাদুল হক বলেন, ইতিমধ্যে চকরিয়ায় করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে গেছে। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে প্রশাসনের পক্ষ থেকে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ধরনের নির্দেশনা দেয়া হচ্ছে। তেমনিভাবে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে চকরিয়ায় শপিং কমপ্লেক্সসহ বিভিন্ন ধরনের দোকান বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয় স্থানীয় প্রশাসন ও ব্যবসায়ীরা।

ওই সিদ্ধান্তে শুধুমাত্র মুদির দোকান ও ওষুধের দোকান ছাড়া অন্যসব দোকান বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়। কিন্তু তারপরও কিছু কিছু ব্যবসায়ী এসব সিদ্ধান্তকে বৃদ্ধাঙ্গুলী দেখিয়ে এবং প্রশাসনের চোঁখ ফাঁকি দিয়ে প্রতিদিন ভোর ৪টা থেকে সকাল ৯টা পর্যন্ত ব্যবসা চালিয়ে আসছে। এই সংবাদ পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ শামসুল তাবরীজের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান পরিচালনা করেন। এসময় ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে ১ লাখ ৩৮ হাজার ৫’শ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে।

ইউএনও সৈয়দ শামসুল তাবরিজ বলেন, চকরিয়া বর্তমানে করোনা সংক্রমণ ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। করোনার সংক্রমণ রোধ করতে গিয়ে আমার এসিল্যান্ড করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। তারপরও কিছু অসাধু ব্যবসায়ী লোভের বশবর্তী হয়ে ব্যবসা করছে। প্রতিদিন ভোর থেকে রাত পর্যন্ত প্রশাসনের এই অভিযান অব্যাহত থাকবে। কাউকে ছাড় দেয়া হবেনা।

 

পূর্বকোণ/পিআর

The Post Viewed By: 114 People

সম্পর্কিত পোস্ট