চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ০৪ জুন, ২০২০

বাঁশখালীতে সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ যুবকের মৃত্যু

১৩ মে, ২০২০ | ৭:২৮ অপরাহ্ণ

বাঁশখালী সংবাদদাতা

বাঁশখালীতে সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ যুবকের মৃত্যু

বাঁশখালী উপজেলার বাহারছড়া ইউনিয়নের মধ্যম ইলশা গ্রামে গোলাগুলির ঘটনায় আহত গুলিবিদ্ধ হাফেজ মোহাম্মদ ইব্রাহিম (২২) মারা গেছেন।

আজ বুধবার (১৩ মে) বিকাল ৪ টার দিকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। 

গুলিবিদ্ধ হাফেজ মোহাম্মদ ইব্রাহিম (২২) ওই এলাকার আবু ছালেকের ছেলে ।

বাহারছড়া ইউনিয়নের মধ্য ইলশা গ্রামের ‘মদিনা ব্রিকস’ ইট ভাটার মালিক মোহাম্মদ নুরুল আবছার ও এম.বি.এম. ব্রিকসের মালিক জয়নাল আবেদীন ঝন্টুর মধ্যে দীর্ঘ ২০ বছর ধরে এলাকায় আধিপত্য বিস্তার ও জায়গা-জমি নিয়ে সামাজিক ভাবে বিরোধ রয়েছে। এ বিরোধকে কেন্দ্র করে ৪ জন খুনসহ অন্তত এক পক্ষ অপর পক্ষের বিরুদ্ধে ২৫/২৬ টি মামলা রয়েছে।

এম.বি.এম. ব্রিকসের মালিক জয়নাল আবেদীন ঝন্টু জানান, আহত অবস্থায় গুলিবিদ্ধ হাফেজ মোহাম্মদ ইব্রাহিম বুধবার বিকালে চট্টগ্রাম মেডিকেলে মারা গেছেন। তার চাচাত ভাই মাওলানা মো. খালেদ মঙ্গলবার রাতে গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা গিয়েছিল।

এর আগে মঙ্গলবার রাতে মধ্যম ইলশা গ্রামে হাফেজ মাওলানা মো. খালেদ (২৫) খুন হয়। এ ঘটনায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এলাকার পরিস্থিতি থমথমে বিরাজ করছে। মধ্যম ইলশা গ্রামের ৩০টি বাড়ি ভাংচুর, লুট করার হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এলাকায় এক পক্ষের ঘর-বাড়ি ছাড়া হয়ে পুরুষশূণ্য হয়ে গেছে।

এদিকে বাঁশখালীতে জোড়া খুনের ঘটনায় আজ বুধবার সকালে পুলিশ সুপার এস.এম. রশিদুল হক (পিপিএম সেবা), অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আফরোজুল হক টুটুল, সহকারী পুলিশ সুপার আনোয়ারা সার্কেল মফিজ উদ্দীন পরিদর্শন করেছেন। ৩টি খুনের ঘটনার মধ্যে মধ্যম ইলশা ও দক্ষিণ সাধনপুর গ্রামে অতিরিক্ত পুলিশ পাহারা বসিয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, কালীপুর ইউনিয়নের পশ্চিম গুনাগরী সীমান্তে জায়গা-জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে দক্ষিণ সাধনপুর গ্রামের জহির আহমদ (৫০) গত মঙ্গলবার সকালে খুনের ঘটনায় নিহতের স্ত্রী নুর আয়শা বাদী হয়ে বুধবার মোহাম্মদ ইলিয়াছ কে প্রধান আসামী করে ২৩ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো ৪/৫জন দেখিয়ে মামলা দায়ের করেছে। মামলা নং ২২ (১২/৫/২০২০ই)। বুধবার আড়াইটায় দক্ষিণ সাধনপুর গ্রামে নামাজে জানাজা শেষে পারিবারিক কবর স্থানে তাকে দাফন করা হয়েছে।

নিহত জহিরের ভাই দিদারুল আলম ঝন্টু বলেন, মামলা দায়েরের পর আসামীরা প্রভাব দেখিয়ে বিভিন্নভাবে হুমকিতে আমাদের পরিবার নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। এলাকা থেকে পুলিশ প্রত্যাহার করলে আমাদের কি হবে একমাত্র আল্লাহই জানেন।

অপরদিকে, বাহারছড়া ইউনিয়নে ৬নং ওয়ার্ড মধ্যম ইলশা গ্রামের হাফেজ মাওলানা মো. খালেদ (২৫) মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে গুলিবিদ্ধ হয়ে খুন হয়েছে। একই ঘটনায় মধ্যম ইলশা গ্রামের আবু ছালেকের ছেলে গুলিবিদ্ধ হাফেজ মোহাম্মদ ইব্রাহিম (২২) চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার বিকাল ৪টার দিকে মারা গেছেন।

বাঁশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ রেজাউল করিম মজুমদার বলেন, সামাজিক কোন্দল ও আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে পৃথক ২টি ঘটনা ঘটেছে। বাহারছড়ার মধ্যম ইলশার আহত ব্যক্তির মো. ইব্রাহিম মারা গেছেন এছাড়াও একই ঘটনায় মাওলানা মো. খালেদ মারা গিয়েছিল। দক্ষিণ সাধনপুর গ্রামের ট্রাক চালক খুনের ঘটনায় মামলা দায়ের করেছে তার স্ত্রী। উভয় স্থানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

পূর্বকোণ/পিআর

The Post Viewed By: 114 People

সম্পর্কিত পোস্ট