চট্টগ্রাম রবিবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২০

সর্বশেষ:

সামাজিক দূরত্ব না মেনে ইফতারির দোকানে ভীড়

৭ মে, ২০২০ | ৬:৫৮ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

সামাজিক দূরত্ব না মেনে ইফতারির দোকানে ভীড়

করোনাভাইরাসের সংক্রমণের ঝুঁকি মধ্যেও অলিগলির হোটেল ও চায়ের দোকানে বাড়ছে মানুষের ভিড়। বিকেল শুরু হওয়ার আগ থেকেই ইফতারির জন্য ভীড় বাড়তে থাকে এসব দোকানে। কোন প্রকার সামাজিক দূরত্ব না মেনেই এসব দোকান থেকে সাধারণ মানুষেরা ইফতারি পণ্য কিনে নিয়ে যায়। তবে সামাজিক দূরত্ব না মেনে এভাবে সাধারণ মানুষের জড়ো হওয়া থেকে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঘটতে পারে বলে জানান সংশ্লিষ্টরা।
গতকাল বুধবার নগরীর বিভিন্ন সড়ক ও অলিগলিতে ঘুরে দেখা যায়, বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষকে ইফতারি কেনার জন্য হোটেল-রেস্টুরেন্ট ও চায়ের দোকানে ভিড় করতে দেখা যায়। এক্ষেত্রে হোটেল-রেস্টুরেন্টে কিছুটা সামাজিক দূরত্ব মানা হলেও অলিগলির চায়ের দোকানে সামাজিক দূরত্বের বালাই নেই। করোনাভাইরাসের সংক্রমণের ঝুঁকি সত্ত্বেও গাদাগাদি করে ইফতারি কিনছেন ক্রেতারা।
নগরীর ১৯নং বাকলিয়া থানার মিয়াখান নগর এলাকায় দেখা যায়, মাগরিবের আজানের ৩০ মিনিট বাকি আছে, এসময় মমতাজ বেকারি নামের একটি দোকানে ইফতারি পণ্য কেনার জন্য সাধারণ মানুষের প্রচুর ভীড়। ইফতারির জন্য দোকানে ভীড় করা মানুষের মধ্যে অধিকাংশের মুখে মাস্ক নেই। তাড়াহুড়ো করে কিনতে গিয়ে একজনের গায়ে অন্যজন পড়ার অবস্থা।
দিদার নামের এক ক্রেতার কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বাসায় সব ইফতার তৈরি করা হয়। তাই বাইরে থেকে তেমন কিছু কেনা হয় না। কিন্তু আজ বাসা থেকে মোবাইলে ফোন করে বলেছে, বাইরে থেকে জিলাপি আনার জন্য। দোকানে এসে দেখি প্রচুর ভীড়। অনেকেই সামাজিক দূরত্ব মানছে না এবং মুখে মাস্কও নেই। সরকারের পক্ষ থেকে বারবার সামাজিক দূরত্বের কথা বলা হলেও, কে শুনে কার কথা।
জানতে চাইলে মমতাজ বেকারির এক দোকানদার বলেন, মানুষ যে একটু লাইন ধরে ইফতারি কিনবে সে ধৈর্য্য মানুষের নেই। একজনের গায়ের উপর অন্যজন পড়ার অবস্থা। লাইন ধরে সিরিয়ালি আসতে বললেও কেউ কারো কথা শুনছে না। আমরা অনেক চেষ্টা করেও মানুষকে সামাজিক দূরত্ব মানাতে পারছি না।

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
The Post Viewed By: 252 People

সম্পর্কিত পোস্ট