চট্টগ্রাম বুধবার, ০৩ জুন, ২০২০

করোনায় ফের পেছাল প্রবর্তকের কালভার্ট নির্মাণ কাজ

৬ মে, ২০২০ | ৯:৩৩ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

করোনায় ফের পেছাল প্রবর্তকের কালভার্ট নির্মাণ কাজ

করোনাভাইরাসের কারণে ফের পিছিয়ে পড়েছে নগরীর প্রবর্তক মোড়ের কালভার্ট নির্মাণের কাজ। গত এপ্রিলে নির্মাণ কাজ শেষ হওয়ার কথা থাকলেও তা শেষ করা যায়নি। ফলে চমেক হাসপাতালসহ, এই সড়ক দিয়ে বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে যাতায়াতকারী রোগী ও স্বজনদের ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। তবে ঈদের আগেই নির্মাণ কাজ অনেকটা শেষ হবে এবং ঈদের পর যান চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হবে বলে জানান সংশ্লিষ্টরা।
জলাবদ্ধতা প্রকল্পের অংশ হিসেবে গত ২০১৯ সালের জুলাই মাসে নির্মাণ কাজ শুরু হয় কালভার্টটির। প্রকল্পের মেয়াদ পাঁচ মাস হলেও ১০ মাসেও নির্মাণ কাজ শেষ হয়নি। জলাবদ্ধতার অংশ হিসেবে ড্রেন সম্প্রসারণ করতে প্রবর্তক মোড়ে প্রিমিয়ার বিশ^বিদ্যালয়সহ অনেকগুলো ইতোমধ্যে স্থাপনা অপসারণ করা হয়েছে। এলাকাবাসীর অভিযোগ ধীরগতির কাজের ফলে এতদিনেও নির্মাণ কাজ শেষনি। উচ্ছেদ সম্পন্ন এবং কালভার্ট নির্মাণ শেষ হলে প্রবর্তক এলাকায় বসবাসকারীরা জলাবদ্ধতা থেকে মুক্তি পাবে বলে জানান সংশ্লিষ্টরা।
এ সম্পর্কে জানতে চাইলে বাংলাদেশ সেনা বাহিনীর ৩৪ ইঞ্জিনিয়ার কন্সট্রাকশন বিগ্রেড প্রকল্প পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. শাহ আলী দৈনিক পূর্বকোণকে বলেন, কালভার্টটি নির্মাণ করতে গিয়ে বিভিন্ন সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়েছে। এই কালভার্টটির নিচে ওয়াসা, বিটিসিএল ও গ্যাসের সংযোগ ছিল। সবগুলো সংযোগ দ্রুত সরানো গেলেও জাইকার একটি পাইপ নিয়ে আমরা বেশ সমস্যায় পড়েছিলাম। জাইকার পাইপটি না থাকলেও কালভার্টটি আরো অনেক আগে শেষ হতো। এ পাইপটির জন্য আমাদের ড্রইং-ডিজাইন পরিবর্তন করতে হয়েছে। অনেকদিন কাজও বন্ধ রাখতে হয়েছে।
তিনি আরো বলেন, সব সমস্যা শেষ করে যখন নির্মাণ কাজ দ্রুত গতিতে চলছিল। করোনার কারণে আবার কাজ আটকে গেছে। এক মাসের বেশি সময় কাজ বন্ধ ছিল। গত এক সপ্তাহ ধরে আবার কাজ শুরু হয়েছে। ২০ রমজানের মধ্যে গার্ডার এবং ডেক স্ল্যাবের কাজ শেষ হবে। এরপর নির্দিষ্ট সময়ের পর যান চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হবে।

The Post Viewed By: 161 People

সম্পর্কিত পোস্ট