চট্টগ্রাম বুধবার, ২৭ মে, ২০২০

বাঁশখালীতে করোনা উপর্সগে আরও ১ জনের মৃত্যু

৫ মে, ২০২০ | ১১:০৭ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

চট্টগ্রামে দুই চিকিৎসকসহ আরও ৬ করোনা রোগী শনাক্ত

চট্টগ্রামে দুই চিকিৎসক আর এক নার্সসহ আরও ছয়জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। বাদ পড়েনি পুলিশ সদস্যও। এই ছয়জনসহ চট্টগ্রামে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১১৩ জনে। আজ মঙ্গলবার (৫ মে) ফৌজদারহাটের বিআইটিআইডি হাসপাতালের ল্যাবে নমুনা পরীক্ষার পর এ ছয়জন শনাক্ত হয়।

তথ্যমতে, মঙ্গলবার ফৌজদারহাটের বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল এন্ড ইনফেকশাস ডিজিজেজ (বিআইটিআইডি) হাসপাতালের ল্যাবে সর্বমোট ২৩৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। যারমধ্যে ৭ জনের নমুনা পজেটিভ আসে। এদের মধ্যে একজন পুরানো রোগী। যার দ্বিতীয় নমুনা পরীক্ষায় করোনা পজেটিভ আসে। বাকি ছয়জনেই নতুন করে শনাক্ত হয়। এরমধ্যে পাঁচজন নগরীর ও একজন লোহাগাড়া উপজেলার বাসিন্দা।

নতুন করে শনাক্ত হওয়া ছয়জনের মধ্যে মা ও শিশু হাসপাতালের ৩৫ বছর বয়সী এক নারী চিকিৎসক রয়েছেন। তিনি নগরীর নাসিরাবাদ হাউজিং সোসাইটি এলাকার ৫ নম্বর সড়কের ১৮ নম্বর বাড়ির বাসিন্দা। একই বাড়িতে এর আগে এক ব্যবসায়ী করোনা আক্রান্ত হোন। এছাড়া একই হাসপাতালের ৩৬ বছর বয়সী সিনিয়র এক স্টাফ নার্স রয়েছেন। তার বাসা হালিশহর থানাধীন ছোটপুল এলাকায়। তিনি গত সোমবার (৪ মে) থেকে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। নগরীর কোতোয়ালী থানাধীন নন্দনকানন এলাকার গোলাপসিং লেইনের ৩৪ বছর বয়সী আরেক চিকিৎসক রয়েছেন। শনাক্ত হওয়াদের মধ্যে বরাবরের মতো পুলিশের এক সদস্য রয়েছেন। ৩৮ বছর বয়সী ওই পুলিশ সদস্য বর্তমানে ফৌজদারহাটের ফিল্ড হসপিটালে চিকিৎসাধীন আছেন। এছাড়া নগরীর কাটগড় এলাকার ২৩ বছর বয়সী এক শিক্ষার্থী রয়েছেন। তিনি কাটগড় সিটি কর্পোরেশন মহিলা কলেজের শিক্ষার্থী বলে জানা গেছে। সে গত ২০ দিন ধরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের ১৩ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন আছে। এর বাইরে লোহাগাড়া পৌরসভার এক নম্বর ওয়ার্ডের আমিন বিল্ডিয়ের ৪২ বছর বয়সী এক পুরুষ সদস্য রয়েছেন।

স্বাস্থ্য দপ্তর চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিচালক ডা. হাসান শাহরিয়ার কবির পূর্বকোণকে বলেন, ‘বিআইটিআইডি নমুনা পরীক্ষায় পজেটিভ আসা সাতজনের মধ্যে ৬জন নতুন রোগী। যাদের মধ্যে চিকিৎসক ও স্বাস্থ্য কর্মীই রয়েছেন তিনজন। আক্রান্তদের অনেকেই বাসায় অবস্থান করছেন, আবার অনেকেই বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।’

প্রসঙ্গতঃ গত ৩ এপ্রিল চট্টগ্রামে সর্বপ্রথম দামপাড়ায় করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। এর দুইদিন পরেই ৫ এপ্রিল ওই রোগীর ছেলে শনাক্ত হন। ৮ এপ্রিল তিনজন, ১০ এপ্রিল দুইজন, ১১ এপ্রিল দুইজন, ১২ এপ্রিল পাঁচজন, ১৩ এপ্রিল দুইজন, ১৪ এপ্রিল ১১ জন, ১৫ এপ্রিল পাঁচজন, ১৬ এপ্রিল একজন, ১৭ এপ্রিল একজন, ১৮ এপ্রিল একজন, ১৯ এপ্রিল চারজন, ২১ এপ্রিল এক শিশু, ২৩ এপ্রিল তিনজন, ২৪ এপ্রিল একজন, ২৫ এপ্রিল দুইজন, ২৬ এপ্রিল সাতজন, ২৭ এপ্রিল নয়জন, ২৮ এপ্রিল তিনজন, ২৯ এপ্রিল চারজন, ৩০ এপ্রিল একজন, ১ মে তিনজন, ২ মে তিনজন ও ৩ মে পাঁচজন করোনা রোগী শনাক্ত হয়। সর্বশেষ গতকাল সোমবার (৪ মে) সবোর্চ্চ সংখ্যক ২৪ জন করোনা রোগী শনাক্ত হন। এদের মধ্যে এখন পর্যন্ত এক শিশুসহ মোট আটজন করোনা আক্রান্ত রোগীর মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া এখন পর্যন্ত ৩১ জন রোগী সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

 

 

 

পূর্বকোণ/আইএইচ-আরপি

The Post Viewed By: 455 People

সম্পর্কিত পোস্ট