চট্টগ্রাম শুক্রবার, ২৯ মে, ২০২০

চমেক ল্যাবে করোনা পরীক্ষা সিভাসু’র পিসিআর দিয়েই

৫ মে, ২০২০ | ৬:১৮ অপরাহ্ণ

ইমাম হোসাইন রাজু

চমেক ল্যাবে করোনা পরীক্ষা সিভাসু’র পিসিআর দিয়েই

ল্যাব তৈরি কিংবা নতুন পিসিআর মেশিন স্থাপন- সবকিছুর কাজই শেষ। টার্গেট ছিল আজ মঙ্গলবার থেকেই নমুনা পরীক্ষার কাজ শুরু হবে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে। কিন্তু পিসিআর মেশিনটিতে ত্রুটি ধরা পড়ায় পুরোপুরিই অনিশ্চিত হয়ে পড়ে নমুনা পরীক্ষা। তবে সুখের খবর হচ্ছে, চট্টগ্রামের তিন রাজনৈতিক নেতার উদ্যোগেই চমেকে চালু হচ্ছে অনিশ্চিত হয়ে পড়া করোনা ল্যাবটি। ইতোমধ্যে ল্যাবটি পুনরায় চালু করতে চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি এন্ড এনিম্যাল সায়েন্সেস ইউনিভার্সিটি (সিভাসু) থেকে একটি পিসিআর মেশিন ধার নেওয়া হচ্ছে। যার বিষয়ে সিভাসু কর্তৃপক্ষের সম্মতিও পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।
জানা যায়, গত রবিবার সকালে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে স্থাপন করা পিসিআর মেশিনটিতে ত্রুটি ধরা পড়ায় তা খুলে ঢাকায় নিয়ে যায় সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানটি। এজন্য করোনার পুরোপুরি পরীক্ষা অনিশ্চিত হয়ে পড়ে। এমন পরিস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়–য়ার উদ্যোগে সিভাসু ও স্বাস্থ্য দপ্তরের কর্তৃপক্ষসহ সংশ্লিষ্টদের সাথে যোগাযোগ করেন। একই সাথে চট্টগ্রামের সন্তান তথ্যমন্ত্রী ড. হাসান মাহমুদ ও শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলও ল্যাবটি চালু করতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে অবহিত করেছেন। এছাড়া সরাসরি সিভাসু কর্তৃপক্ষের সাথেও কথা বলেছেন তারা। সংশ্লিষ্টদের সাথে কথা বলে এ তথ্য জানা যায়।
এদিকে, আজ মঙ্গলবার সিভাসু থেকে পিসিআর মেশিনটি পাঠানোর কথা রয়েছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। মেশিনটি পাঠানো হয়ে এ সপ্তাহের শেষ দিকেই চালু করা সম্ভব হবে বলেও মনে করেন ল্যাব সংশ্লিষ্টরা। যার জন্য সিভাসু ও স্বাস্থ্য দপ্তরের সাথেও যোগাযোগ করা হয়েছে বলে জানান চমেক অধ্যক্ষ ডা. শামীম হাসান। তিনি পূর্বকোণকে বলেন, ‘সিভাসুতে মেশিন থাকার বিষয়টি জানার পর বিশ^বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ও স্বাস্থ্য দপ্তরে লিখিতভাবে জানানো হয়েছে। একই সাথে এ বিষয়ে ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়–য়াও তাদের অনুরোধ করেছেন। আজ মঙ্গলবার মেশিনটি যদি পাঠানো হয়ে তাহলে, তা পুনরায় স্থাপন করে এ সপ্তাহের শেষ দিকে চালু করা যাবে। আর দেরি হলে হয়তো আগামী সপ্তাহে চালু করা যাবে। এখন শুধু মেশিনটি পাওয়া যায় কিনা তা চিন্তা করতে হবে।’
স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের (স্বাচিপ) সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. আ ম ম মিনহাজুর রহমান এ প্রসঙ্গে পূর্বকোণকে বলেন, ‘চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে করোনার নমুনা পরীক্ষা নিয়ে যে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছিল, তা কেটে যাচ্ছে। মঙ্গলবার সিভাসু থেকে ধার করা একটি পিসিআর মেশিন চমেক হাসপাতালে স্থাপন করা হবে। এ বিষয়ে সিভাসুর উপাচার্যের সাথে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়ার কথাও হয়েছে। তিনি সম্মতি দিয়েছেন। বিপ্লব বড়–য়া ছাড়াও শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলও এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে প্রয়োজনীয় বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার পাশাপাশি দ্রুত সময়ের মধ্যে ল্যাবটি চালুর জন্য নির্দেশনা দিয়েছেন বলেও উল্লেখ করেন তিনি।’
এদিকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ছাড়াও সিভাসু থেকে মেশিনটি ধার দিতে স্বাস্থ্য দপ্তর থেকেও চিঠি ইস্যু করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়–য়া। তিনি এ প্রসঙ্গে পূর্বকোণকে বলেন, ‘গণমাধ্যমে চমেকের ল্যাবের পিসিআর মেশিন নষ্ট হওয়ার বিষয়টি চোখে পড়ায় তথ্যমন্ত্রী ও শিক্ষা উপমন্ত্রীর সাথে কথা হয়। এরপর তারাও স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়সহ সংশ্লিষ্ট বিভাগে যোগাযোগ করেন। একপর্যায়ে সিভাসুর উপাচার্যের সাথেও আমার কথা হয়। তিনি মেশিন দিতে সম্মতি প্রকাশ করেছেন। এরমধ্যেই চমেক অধ্যক্ষের সাথেও কথা হয়েছে। স্বাস্থ্য দপ্তর থেকেও সিভাসুকে একটি চিঠি ইস্যু করা হয়েছে। মঙ্গলবার মেশিনটি পাঠানোর কথা রয়েছে। সব ঠিক থাকলে এ সপ্তাহে চালু হবে চমেকের ল্যাবটি।’
প্রসঙ্গত রিয়েল টাইম পলিমারেজ চেইন রি-অ্যাকশন (আরটি-পিসিআর) মেশিনটি চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের (চমেক) সম্প্রতি তৈরি করা ল্যাবে সরবরাহ করে ওভারসিজ ম্যানেজমেন্ট করপোরেশন (ওএমসি) নামে ঢাকার এক ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান। যা গত ২০ এপ্রিল করোনা ল্যাবের জন্য প্রয়োজনী যন্ত্রপাতি ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে আনা হয়। কিন্তু যন্ত্রপাতি পাঠানোর ১৩ দিন পরে মেশিন চালু করতে এসে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিদের কাছে মেশিনে ক্রটি ধরা পড়ে। যার কারণে রবিবার সকালে ত্রুটিপূর্ণ মেশিনটি খুলে নিয়ে যায় সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান ওএমসি। তবে এতে কতদিন সময় লাগতে পারে সে বিষয়ে কেউ কিছু জানেন না সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

The Post Viewed By: 286 People

সম্পর্কিত পোস্ট