চট্টগ্রাম শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০

সর্বশেষ:

চট্টগ্রামে ২৪ ঘণ্টায় ২৪ করোনারোগী শনাক্ত
১০ চিকিৎসকসহ চমেকের ল্যাবে ২৪ ঘণ্টায় ১০১ জন করোনা শনাক্ত

৫ মে, ২০২০ | ৩:৫৮ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

চট্টগ্রামে ২৪ ঘণ্টায় ২৪ করোনারোগী শনাক্ত

চট্টগ্রামে গত ২৪ ঘন্টায় সর্বোচ্চ সংখ্যক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। যাদের মধ্যে বরাবরের মতো পুলিশ সদস্য এবং চিকিৎসক রয়েছেন। রয়েছে উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া ব্যক্তিও। গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামে করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে ২৪ জন। যাদের মধ্যে একজনের মৃত্যু শনাক্তের আগেই হয়েছে। ইতোমধ্যে চট্টগ্রামে করোনা আক্রান্তের সংখ্যাও একশ’তে পূর্ণ হয়েছে।

তথ্যমতে, গতকাল সোমবার (৪ মে) ফৌজদারহাটের বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল এন্ড ইনফেকশাস ডিজিজেজ (বিআইটিআইডি) হাসপাতালের ল্যাবে সর্বমোট ২৪৩টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। যার মধ্যে ২২ জনের নমুনা পজেটিভ আসে। এদের মধ্যে চট্টগ্রাম নগরীর ১২ ও উপজেলার চারজনসহ সর্বমোট ১৬ জন রয়েছে। এছাড়া বাকি ৬ জন নোয়াখালী ও লক্ষ্মীপুর জেলার বাসিন্দা। অন্যদিকে, চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি এন্ড এনিম্যাল সায়েন্সেস (সিভাসু) বিশ্ববিদ্যালয়ের ল্যাবে রবিবার (৩ মে) নমুনা পরীক্ষা করা ৮৩ জনের মধ্যে শনাক্ত আটজনেই চট্টগ্রামের বাসিন্দা। যদিও কম্পিউটার টাইপিস্টদের কম্পোজ সংক্রান্ত জটিলতার কারণে এ তথ্য দিতে পারেনি স্বাস্থ্য বিভাগ। তবে গতকাল সোমবার দুপুরে এ আটজনের কথা জানান জেলা সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি।

তিনি বলেন, ‘সিভাসুর ৮৩ জনের পরীক্ষায় শনাক্ত আটজনের মেেধ্য ডাক্তার, পুলিশ রয়েছে। যারা প্রত্যেকেই চট্টগ্রামের বাসিন্দা। তবে ল্যাবের কম্পিউটার টাইপিস্টদের কম্পোজ সংক্রান্ত জটিলতার কারণে রবিবার তা প্রকাশ করা সম্ভব হয়নি।’

নতুন করে শনাক্ত হওয়া এ আটজনের মধ্যে দামপাড়া পুলিশ লাইনের ৪৫ বছর বয়সী এক সদস্য ও ৪৯ বয়সী এক সদস্য রয়েছেন। যারা বর্তমানে পুলিশ লাইন হাসপাতালের আইসোলেশনের আছেন। এছাড়া পাঁচলাইশ আবাসিক এলাকার বাসিন্দা নগরীর ফয়স’লেকের ইউএসটিসি হাসপাতালের এক চিকিৎসক রয়েছেন। তিনি নিজ বাসায় কোয়ারেন্টাইনে আছেন। এছাড়া নগরীর পাহাড়তীল লাকী হোটেল মোড়ের আশরাফ আলী সড়কের আশরাফ আলী নামের ব্যক্তি রয়েছেন। যিনি লংকা বাংলায় কর্মরত। রয়েছেন নগরীর বন্দর থানাধীন গোসাইলডাঙ্গার কে বি দোভাষ স্কুল রোডের ৭৩ বছর বয়সী এক বৃদ্ধ, কোতোয়ালী থানাধীন রিয়াজউদ্দিন বাজারের চৈতন্য গলির ব্যারিস্টার রওনক জাহানের বাড়ির ৫৫ বছর বয়সী বৃদ্ধ, চান্দগাঁও এক কিলোমিটার এলাকার নাফিস ভবনের ৪৮ বছর বয়সী এক পুরুষ ও ৪০ বছর বয়সী তার স্ত্রী রয়েছেন। বর্তমানে তারা নিজ বাড়িতেই কোয়ারেন্টাইনে আছেন।

বিআইটিআইডির ল্যাবে শনাক্ত হওয়ারা হলেন, বিআইটিআইডিতে চিকিৎসাধীন ৪৮ বছর বয়সী পুরুষ, দামপাড়া পুলিশ লাইনের ৩৭ বছর বয়সী পুলিশ সদস্য। যিনি নগর পুলিশের বিশেষ শাখার এএসআই হিসেবে কর্মরত। আছেন পাহাড়তলী প্রিন্স ভবন আবাসিক এরিয়ার ৩৭ বছর বয়সী যুবক, লোহাগাড়ার ২৭ বছরের একজন, পটিয়া উপজেলার ৪৫ বছর বয়সীয় পুরুষ, বাঁশখালী উপজেলার ৪৫ বছর বয়সী পুরুষ, সিএমএইচ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ২৫ বছর বয়সীয় যুবক, দামপাড়া পুলিশ লাইনের ৩৫ বছর বয়সী ট্রফিক কনস্টেবল (বর্তমানে ফিল্ড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন), পাহাড়তলী মৌসুমি আবাসিক এলাকার ৪২ বছর বয়সী পুরুষ, এনায়েত বাজারের ২১ বছর বয়সী যুবক, উত্তর কাট্টলী এলাকার ৪০ বছর বয়সী পুরুষ, আকবরশাহ এলাকার ৫১ বছর বয়সী পুরুষ, বড় কুমিরা এলাকার ৩০ বছর বয়সী যুবক, এনায়েত বাজারের বাটালি রোডের ৪৭ বছর বয়সী পুরুষ (মৃত), দক্ষিণ হালিশহর এলাকার ৭৫ বছর বয়সী নারী ও ৩৪ বছর বয়সী নারী রয়েছেন।

স্বাস্থ্য দপ্তর চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিচালক ডা. হাসান শাহরিয়ার কবির পূর্বকোণকে বলেন, ‘বিআইটিআইডি ও সিভাসুর ল্যাবে সর্বচ্চো নমুনা পরীক্ষায় সর্বচ্চো সংখ্যাক আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। এদের মধ্যে একজন আগেই মৃত্যু হয়। শনাক্তদের মধ্যে অনেকেই বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন, আবার অনেকেই নিজ বাসায় অবস্থান করছেন বলেও জানান তিনি।

গত ২৪ ঘন্টায় পরীক্ষা হওয়া ২৪৩ জনসহ বিআইটিআইডি এ নিয়ে ৩ হাজার ৭৬৯ জনের নমুনা এবং সিভাসুর ল্যাবে ৬২২টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। যারমধ্যে চট্টগ্রামে এখন পর্যন্ত ১০৭ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। এদের মধ্যে ইতোমধ্যে ৪১ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন এবং মৃত্যু হয়েছে ৮ জনের।

করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন প্রবাসী :

করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু হওয়া নগরীর কোতোয়ালী থানাধীন এনায়েত বাজারের বাটালি রোডের বাসিন্দা সেকান্দর হোসেন (৪৫) নামে এক প্রবাসীর করোনা রিপোর্ট পজেটিভ আসে। এর আগে গত রবিবার রাতে নিজ বাসায় তার মৃত্যু হয়।
বিষয়টি নিশ্চিত করে চট্টগ্রাম জেলা সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি পূর্বকোণকে বলেন, ‘মৃত্যু হওয়া সৌদি প্রবাসীর করোনা রিপোর্ট পজেটিভ এসেছে। পুলিশের সহযোগিতায় চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন কবরস্থানে দাফন কাজ করা হয়েছে।’

জানা যায়, জানুয়ারির শেষ দিকে সৌদি প্রবাসী সেকান্দর দেশে আসেন। জ্বর-সর্দির সাথে শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন গত ১৫ দিন ধরে। এর মধ্যে জেনারেল হাসপাতালে তার নমুনা দেয়া হয়। কিন্তু রিপোর্ট আসার আগেই তিনি মৃত্যু বরণ করেন।

এদিকে, ওই প্রবাসীর করোনা ফলাফল পজেটিভ আসায় বাটালি রোডে অবস্থিত একটি ভবনটি লক ডাউন করা হয়েছে। ইতিমধ্যে এলাকায় নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।

সুস্থ হয়ে ফিরেছেন আরও দুইজন :

চট্টগ্রামে করোনা আক্রান্ত আরও দুইজন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। গতকাল সোমবার বিকেলে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ওই দুইজনকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের সিনিয়র কনসালটেন্ট ডা. আবদুর রব মাসুম জানান, চিকিৎসাধীন অবস্থায় পর পর দুইবার করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ আসার দুইজনকে ছাড় দেয়া হয়েছে। তারা নিজ বাসায় আরও ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকবেন।’ তথ্য অনুযায়ী চট্টগ্রামে করোনা আক্রান্তদের মধ্যে এখন পর্যন্ত ২৪ জন রোগী সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

 

 

 

 

 

পূর্বকোণ/আইএইচ-আরপি

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
The Post Viewed By: 1048 People

সম্পর্কিত পোস্ট