চট্টগ্রাম বুধবার, ২৭ মে, ২০২০

আক্রান্ত পুলিশের দ্বিতীয়বার পরীক্ষায় ফল পজেটিভ

১৯ এপ্রিল, ২০২০ | ২:৫৪ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

পতেঙ্গায় প্রথমবারের মতো করোনা রোগী শনাক্ত

আক্রান্ত পুলিশের দ্বিতীয়বার পরীক্ষায় ফল পজেটিভ

করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা হঠাৎ করে গেল সপ্তাহে বৃদ্ধি পেলেও গত তিনদিন ধরে চট্টগ্রামে শনাক্তের সংখ্যা কম হয়েছে। একদিকে এটি চট্টগ্রামবাসীর জন্য অনেকটা স্বস্তি নিয়ে আসলেও, বিপরীতে পাশর্^বর্তী জেলাগুলোতে ঠিকই বৃদ্ধি পাচ্ছে। গতকাল শুক্রবারও বৃহত্তর চট্টগ্রামের একমাত্র করোনাভাইরাস শনাক্তের পরীক্ষাগার চট্টগ্রামের ফৌজদারহাটের বিআইটিআইডি হাসপাতালে ১২২টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। যারমধ্যে পাঁচটি নমুনার ফল পজেটিভ আসে। এদেরমধ্যে নতুন আক্রান্তের সংখ্যা চার হলেও একজনের দ্বিতীয় দফায় পরীক্ষা পজেটিভ আসে। নতুন শনাক্ত হওয়া চারজনের মধ্যে চট্টগ্রামে একজন এবং লক্ষ্মীপুর জেলার তিনজন রয়েছেন।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, চট্টগ্রামে নতুন আক্রান্ত হওয়া ওই রোগী নগরীর পতেঙ্গা এলাকার ৩৩ বছর বয়সী এক নারী। এর আগে নগরীর বিভিন্ন স্থানে আক্রান্ত হওয়ার খবর থাকলেও পতেঙ্গা এলাকায় এই প্রথম করোনাভাইরাসের রোগী শনাক্ত হয়েছে। পতেঙ্গার এ বাসিন্দাসহ চট্টগ্রামে এখন পর্যন্ত কোভিড-১৯ সংক্রমণে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩৫ এ। যাদের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে পাঁচজনের।
এছাড়া লক্ষীপুরের নতুনভাবে শনাক্ত হওয়া তিনজনের মধ্যে জেলার শামসেরাবাদের ২৫ বছর বয়সী এক যুবক, ১৫ নম্বর ওয়ার্ড লাখের কান্দির ৬২ বছর বয়সী এক বৃদ্ধ এবং রামগঞ্জ কাসিম নগর এলাকার ২০ মাস বয়সি এক শিশু রয়েছে ।
এছাড়া এই দিন নগরীর দামপাড়া পুলিশ লাইনের ব্যারাকে থাকা আক্রান্ত প্রথম পুলিশ সদস্যেও শরীরে নমুনা সংগ্রহ করা হয়। কিন্তু দ্বিতীয়বারের মতো পরীক্ষায়ও পুলিশের ওই কনস্টেবেলরে ফলাফল পজেটিভ আসে। যিনি আক্রান্ত হওয়ার পর থেকে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
গতকাল শনিবার রাতে বিষয়টি নিশ্চিত করেন স্বাস্থ্য দপ্তর চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিচালক ডা. হাসান শাহরিয়ার কবির পূর্বকোণকে বলেন, ‘ শনিবার চট্টগ্রামের ফৌজদারহাটের বিশেষায়িত হাসপাতাল ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেসে (বিআইটিআইডি) ল্যাবে মোট ১২২ জনের নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। তারমধ্যে পাঁচটি পজেটিভ আসে। এদের মধ্যে একজন পুরানো আক্রান্ত রোগী। নতুন শনাক্ত হয় চারজন। যাদের মধ্যে চট্টগ্রামে একজন বাকি তিনজন লক্ষ্মীপুর জেলার।
এদিকে, চট্টগ্রামে আক্রান্ত হওয়া ওই ব্যাক্তির বাড়িসহ আশপাশে কিছু বাড়ি লকডাউনের ব্যবস্থা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন পতেঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) উৎপল বড়–য়া। রাতে তিনি মুঠোফোনে বলেন, ‘আক্রান্ত মহিলার বাড়ি লকডাউনের ব্যবস্থা করতে প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। সিভিল সার্জন অফিসের সহযোগিতায় তা লকডাউন করা হবে। পরে বিস্তারিত জানানো হবে।
গত ২৪ ঘন্টায় পরীক্ষা করা ১২২ জনসহ বিআইটিআইডিতে এ নিয়ে ১হাজার ৩৩৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। তার মধ্যে এ পর্যন্ত ৬১ জন রোগী শনাক্ত হয়েছে। সব মিলিয়ে চট্টগ্রাম জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা দঁড়িয়েছে ৩৫ জনে। চট্টগ্রামে শনাক্ত করোনা রোগীদের মধ্যে পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। যাদের মধ্যে তিনজন করোনা শনাক্ত হওয়ার আগেই মৃত্যু বরণ করেন। আরেকজন শনাক্ত হওয়ার মাত্র কয়েকঘণ্টা পর মৃত্যু হয়। অন্যজন বিআইটিআইডি হাসপাতালে শনাক্তে ১২ ঘণ্টা পর মৃত্যু হয়।

The Post Viewed By: 218 People

সম্পর্কিত পোস্ট