চট্টগ্রাম বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২০

চবি কর্মচারীকে ছাত্রলীগ নেতার মারধর, অস্ত্র উদ্ধার

১৩ এপ্রিল, ২০২০ | ২:৪৫ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব সংবাদদাতা, চবি

পুলিশের অভিযান

চবি কর্মচারীকে ছাত্রলীগ নেতার মারধর, অস্ত্র উদ্ধার

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) এক কর্মচারীর পুরুষাঙ্গে লাথি ও মারধর করার অভিযোগ উঠেছে ছাত্রলীগ নেতা মোহাম্মদ নাজিমের বিরুদ্ধে। গতকাল রবিবার দুপুর ১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ২ নং গেট এলাকায় এঘটনা ঘটে। পরে প্রক্টরিয়াল বডি পুলিশের সহায়তায় অভিযুক্তের বাড়ি ও দোকানে অভিযান চালিয়ে বেশ কিছু দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করলেও নাজিমকে আটক করা যায়নি। মারধরের শিকার ওই কর্মীর নাম মো. বেলায়েত। তিনি বিশ^বিদ্যালয় নিরাপত্তা দফতরের সুপারভাইজার হিসেবে কর্মরত বলে জানা যায়। অন্যদিকে অভিযুক্ত নাজিম শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি ও ছাত্রলীগের বগিভিত্তিক গ্রুপ ‘বাংলার মুখ’র নেতা। জানা যায়, গত শনিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের ২ নং গেট দিয়ে মোটরসাইকেলে নাজিমের ভাই ও তার বন্ধুরা প্রবেশ করতে চাইলে ক্যাম্পাস বন্ধ থাকায় পুলিশ বাধা প্রদান করে। এ ঘটনার জেরে রোববার নিরাপত্তা দফতরের সুপারভাইজার মো. বেলায়েতের সাথে অভিযুক্ত নাজিমের কথা কাটাকাটি হয়। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে নিরাপত্তাকর্মী বেলায়েতকে তলপেটে ও পুরুষাঙ্গে উপর্যুপরি লাথি মারতে থাকে নাজিম। এক পর্যায়ে লাথির আঘাতে বেলায়েতের প্র¯্রাবের রাস্তা দিয়ে রক্ত বের হয়। সেখান থেকে স্থানীয়দের সহায়তায় তাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টারে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে প্রক্টরিয়াল বডি পুলিশের সহায়তায় অভিযুক্ত নাজিমের বাড়িতে অভিযান চালায়। সেখানে নাজিমকে না পেয়ে কেন্দ্রীয় খেলার মাঠের আশপাশের এলাকায়ও অভিযান চালানো হয়। তবে কেন্দ্রীয় খেলার মাঠের সামনে তার দখলকৃত দুটি দোকান থেকে রামদা, চাপাতি, ছোড়া, চোরাই লোহার রড ও প্যাগোডার সামনের একটি দখলকৃত দোকান থেকে চোরাই ভ্যানগাড়ি উদ্ধার করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর এস এম মনিরুল হাসান বলেন, ‘ঘটনাটি শুনার পর আমরা নাজিমের বাড়িতে পুলিশ পাঠাই। সেখান থেকে একটি মোটরবাইক জব্দ করা হয়েছে। পুলিশ এখনো তাকে আটকের জন্য খুঁজছে।’
প্রসঙ্গত, এর আগে চাঁদা না দেওয়ায় গত বছরের ২৩ মার্চ বিশ্ববিদ্যালয়ের মুদি দোকানের এক কর্মচারীকে মারধরের অভিযোগ উঠে নাজিমের বিরুদ্ধে। এছাড়া গত বছরের ৪ সেপ্টেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যান বিভাগের ল্যাব সহকারী ফজলুল করিম খোকনের বাড়িঘর ভাঙচুর ও তার পরিবারের সদস্যদের মারধরসহ ডজনখানেক অভিযোগ উঠে ছাত্রলীগ এ নেতার বিরুদ্ধে।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 67 People

সম্পর্কিত পোস্ট