চট্টগ্রাম শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০

নগরীতে আড্ডাবাজি বন্ধে উড়ছে পুলিশের ড্রোন

১৩ এপ্রিল, ২০২০ | ২:৫৬ পূর্বাহ্ণ

নগরীতে আড্ডাবাজি বন্ধে উড়ছে পুলিশের ড্রোন

নগরীর অলিগলিতে আড্ডাবাজি বন্ধ করতে প্রথমবারের মতো ড্রোন ওড়াচ্ছে কোতোয়ালী থানা পুলিশ। ড্রোনের মাধ্যমে অপ্রয়োজনে রাস্তায় বের হওয়া, আড্ডা দেওয়া মানুষকে চিহ্নিত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।-বাসস
গতকাল রবিবার (১২ এপ্রিল) বিকেলে নগরীর কোতোয়ালী থানা এলাকার জামালখান, কাজীর দেউরি, ব্যাটারি গলি, পাথরঘাটা, আলকরণ এলাকায় পরীক্ষামূলকভাবে ড্রোন উড়ানো হয়। ড্রোনে থাকা ৩টি ক্যামেরার মাধ্যমে ছবি ও ভিডিও করা হয়। এসব ফুটেজ যাচাই বাছাই শেষে দায়ীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান কোতোয়ালী থানার ওসি মো. মহসীন।
তিনি বলেন, গতকাল রবিবার পরীক্ষামূলকভাবে চালানো হলেও সোমবার থেকে নিয়মিতভাবে আকাশে উড়বে ড্রোন। পাহারা দেবে চট্টগ্রাম। নিশ্চিত করবে সামাজিক দূরত্ব। চট্টগ্রাম মেট্টোপলিটন পুলিশ (সিএমপি) এর কোতোয়ালী থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মহসীন জানান, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সরকার ঘোষিত বন্ধ ও হোম কোয়ারেন্টাইনের মধ্যে নগরবাসীকে সচেতন করতে পুলিশ বিভিন্নভাবে কাজ করে যাচ্ছে। নগরীর অলিগলিতে আড্ডাবাজি বন্ধে এবার এ্যাকশনে নামছে সিএমপি। এর অংশ হিসেবে পাড়া মহল্লা ও অলিগলিতে নজরদারি ও তথ্য প্রমাণ সংগ্রহ করতে সিএমপির কোতোয়ালী থানা প্রথমবারের মত আধুনিক প্রযুক্তি ড্রোন ব্যবহার শুরু করেছে। তিনি বলেন, অনেক বুঝানোর পরেও এখনো দেখা যাচ্ছে অনেক অলিগলিতে আড্ডাবাজি বন্ধ করা যাচ্ছে না। তাই পুলিশ বাধ্য হয়ে এ্যাকশানে যাচ্ছে। যেহেতু সব জায়গায় দিনরাত ২৪ ঘন্টা পাহারা দেওয়াও সম্ভব হচ্ছে না। পুলিশ গেলে আড্ডাবাজরা পালিয়ে যায়। আবার পুলিশ চলে গেলে ঘর থেকে বেরিয়ে আ্ড্ডায় মেতে উঠে। তাই ড্রোনের মাধ্যমে তাদের ছবি এবং ভিডিও সংগ্রহ করে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
ওসি মোহাম্মদ মহসীন বলেন, ‘আমরা বিভিন্ন উপায়ে সচেতন করেছি। তবুও অনেকে অহেতুক ঘোরাফেরা করছে। তাই টহল দেওয়া শুরু করি। কিন্তু তাতে দেখা যায় অনেকেই আমরা গেলে গায়েব হয়ে যায়। আমরা চলে এলে আবারও আড্ডাবাজি শুরু করে। তাই এখন ড্রোন ব্যবহার করছি। এর মাধ্যমে প্রাপ্ত তথ্য উপাত্তের ভিত্তিতে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
নগরবাসীর উদ্দেশ্যে ওসি মহসীন বলেন, অলি-গলিতে আড্ডা দেয়া অনেকের ছবি-ভিডিও ইতিমধ্যে আমাদের হাতে এসেছে। এখন আপনাদের সিদ্ধান্ত নিতে হবে, ঘরে থাকবেন, নাকি থানায়-জেলখানায় থাকবেন।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 291 People

সম্পর্কিত পোস্ট