চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ২৮ মে, ২০২০

সর্বশেষ:

ডেঙ্গু ও জলাবদ্ধতা ভয়াবহ রূপ ধারণের আশঙ্কা

১১ এপ্রিল, ২০২০ | ৭:৪৫ অপরাহ্ণ

ইফতেখারুল ইসলাম

ডেঙ্গু ও জলাবদ্ধতা ভয়াবহ রূপ ধারণের আশঙ্কা

  • অপসারণ হয়নি জলাবদ্ধতা প্রকল্পের খালের বাঁধ
  • গতবারের তুলনায় এবার জলাবদ্ধতা কম হবে

নগরবাসী একদিকে করোনা ভাইরাসের আতংকে আছে। আরেক আতঙ্ক ভর করেছে ডেঙ্গুসহ মশাবাহিত রোগ। নগরীতে মশার উৎপাত ব্যাপকহারে বেড়ে গেছে । তার সাথে যুক্ত হয়েছে জলাবদ্ধতার ভয়। মশা বৃদ্ধির জন্য সিটি কর্পোরেশন জলাবদ্ধতা নিরসনের খাল-নালার বাঁধগুলোকে দায়ী করছে। অপরদিকে সাধারণ মানুষের আশঙ্কা তারা এবার করোনায় নয়, ডেঙ্গ এবং জলাবদ্ধতায় ডুবে মরবেন। তবে জলাবদ্ধতা নিরসনে চলমান মেগা প্রকল্প পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল শাহ আলী পূর্বকোণকে বলেন, এবারের শুষ্ক মৌসুমে প্রকল্পের অন্তত পঞ্চাশ ভাগ কাজ সম্পন্ন হবে, তাই গতবারের তুলনায় জলাবদ্ধতা এবার কম হবে।
সরেজমিন পরিদর্শনকালে দেখা গেছে, নগরীর বড় একটি অংশের পানি নিষ্কাশনের অন্যতম মাধ্যম চাক্তাই খালের বদ্দারহাট পুলিশ বক্স থেকে কিছু অংশ মাটি ভরাট করা হয়েছে রিটেইনিং ওয়াল নির্মাণের জন্য। কিন্তু খালের তলা পরিষ্কার করা হয়নি, খালে এমনভাবে পলি জমে আছে কোথাও কোথাও ঝোপঝাড় জন্মে বড় হয়ে গেছে। ঘাসিয়া পাড়া এলাকায় খালের একটি অংশে টমেটো-শসা ইত্যাদি সবজিও ফলতে দেখা গেছে। গত বৃহস্পতিবার সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন বহদ্দারহাট হতে চকবাজার পর্যন্ত চাক্তাই খালে মশক নিধন কার্যক্রম উদ্বোধন করতে গেলে এলাকার মানুষ তাকে অনেকটা ঘিরে ধরে অভিযোগ করেন, করোনা ভাইরাস রোগে নয়। আমরা এবার হয় জলাবদ্ধতায় ডুবে মরব, নয় তো মশার কামড় খেয়ে ডেঙ্গসহ মশাবাহিত রোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যাবো। চাক্তাই খালের মাঝে টমেটো এবং শসার ফলন দেখিয়ে দিয়ে মেয়রকে উদ্দেশ্য করে বলেন, বর্ষা আর বেশি দূরে নয়, অথচ চাক্তাই খালের উপর দিয়ে মানুষ হেঁটে চলাচল করতে পারে। এই খাল কখন পরিষ্কার করা হবে। এ সময় মেয়র তাদেরকে আশ্বস্ত করে বলেন, তিনি বিষয়টি নিয়ে সেনাবাহিনীর সাথে আলোচনা করবেন।

The Post Viewed By: 38 People

সম্পর্কিত পোস্ট