চট্টগ্রাম রবিবার, ৩১ মে, ২০২০

ইউএসটিসি'র ৩৪ স্বাস্থ্যকর্মী চাকরিচ্যুত

৯ এপ্রিল, ২০২০ | ১১:১৮ অপরাহ্ণ

নিজস্ব সংবাদদাতা

ইউএসটিসি’র ৩৪ স্বাস্থ্যকর্মী চাকরিচ্যুত

চট্টগ্রামে বাংলাদেশ বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল হাসপাতালের বিরুদ্ধে ১৯ নার্সসহ মোট ৩৪ জনকে ‘বিনা কারণে’ চাকুরিচ্যুত করার অভিযোগ উঠেছে। তবে প্রতিষ্ঠানটির ভারপ্রাপ্ত পরিচালকের দাবি, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্দেশনা মোতাবেক ডিপ্লোমা ডিগ্রি না থাকার কারণে নার্সদের অব্যাহতি দেয়া হয়েছে।

জানা যায়, প্রতিষ্ঠানটি গত ৮ এপ্রিল ১৯ জন নার্সসহ ১৫ জন আয়া ও পরিচ্ছন্নতাকর্মীর নাম উল্লেখ করে নোটিশ বোর্ডে বিজ্ঞপ্তি জারি করে। এমনকি মাস শেষ হলেও তাদের বেতন আটকে দেয়।

চাকুরিচ্যুত হওয়া বেশ কয়েকজন নার্স বলেন, আমরা ১৫ থেকে ২০ বছর ধরে চাকুরি করে আসছি। কিন্তু বিভিন্ন অজুহাতে আমাদের বাদ দেয়া হচ্ছে। সরকারের কোন নির্দেশনা থাকলে তা বাস্তবায়নের জন্য কর্তৃপক্ষ ব্যবস্থা নিবে। তার জন্য কিন্তু আমাদের কেন চাকুরিচ্যুত করা হবে। তাছাড়া দেশের এমন একটি ক্রান্তিকাল মূহুর্তে আমাদের এমন একটা সময় চাকুরিচ্যুত করা হচ্ছে। এ সময় তারা নার্সিং সুপারিন্টেন্ডেন্ট মিনুয়ারা খানম সহ বেশ কয়েকজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন।

এ প্রসঙ্গে প্রতিষ্ঠানটির নার্সিং সুপারিন্টেন্ডেন্ট মিনুয়ারা খানম বলেন, কাউকে চাকুরিচ্যুত করার এখতিয়ার আমার নেই। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নীতি বাস্তবায়নের জন্য এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। গতকাল থেকে তাকে বিভিন্ন স্থান থেকে বিষয়টি নিয়ে মুঠোফোনে হুমকি প্রদান করা হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি (ইউএসটিসি) কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি মো. মানিক মিয়া বলেন, প্রতিষ্ঠান যে কারণ দেখাচ্ছে সেটা কোন যৌক্তিক কারণ হতে পারে না। এতদিন প্রতিষ্ঠান চলতে পারলে এই ১৯ নার্সের জন্য কি প্রতিষ্ঠান চলতে পারবে না? তাছাড়া এখানে তো বেশির ভাগই এইড নার্স রয়েছে। শুধু তাই নয় ১৫ জন আয়া এবং পরিচ্ছন্নতা কর্মীকেও চাকুরিচ্যুত করা হয়েছে। আয়া বুয়া হতেও কি ডিপ্লোমা করতে হয়?
তিনি বলেন, চাকরিচ্যুত করার সাথে সাথে তাদের বেতনও বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। সারাদেশে লকডাউন চলছে আর এই সময় তাদের বেতন ভাতা বন্ধ করে দিয়ে তাদেরকে আরও কষ্টে ফেলে দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

ইউএসটিসি’র অঙ্গপ্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল হাসাপতালের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক ডা. কামরুল হাসান বলেন, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্দেশনা রয়েছে চিকিৎসাসেবায় এইড নার্স রাখা যাবে না। ডিপ্লোমাধারী নার্স দিয়ে প্রতিষ্ঠান চালাতে হবে। এমনকি প্রতিষ্ঠানের রেজিস্ট্রেশন পুনঃনবায়ন করতে  সমস্যায় পড়তে হচ্ছে। তাই প্রতিষ্ঠানের ট্রাস্টি বোর্ড সিদ্ধান্ত নিয়েছে ডিপ্লোমা ডিগ্রীধারী নার্স নিয়োগ দিবে। এরই মধ্যে ২২ জনকে নতুন নার্সও নিয়োগ দেয়া হয়েছে। প্রথমধাপে যাদের একটু বয়স বেশি এবং দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগ রয়েছে তাদেরকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। পর্যায়ক্রমে অন্যান্য এইড নার্সদেরও অব্যাহতি দেয়া হবে।

আয়া এবং পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের চাকুরিচ্যুত করার বিষয়ে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন, আসলে কাউকে চাকুরিচ্যুত করা হয়নি। সবাইকেই চাকুরি থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। আয়া এবং পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের মধ্যে যাদের বয়স একটু বেশি এবং শারীরিকভাবে অক্ষম তাদেরকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে।

চাকুরিচ্যুতদের বেতন-ভাতা বন্ধ করে দেয়ার অভিযোগের বিষয়ে ভারপ্রাপ্ত পরিচালক বলেন, কারও বেতন বন্ধ করা হয়নি। চাকুরিচ্যুতের চিঠি তাদের হাতে হাতে দেয়া হয়েছিল। কিন্তু তা তারা গ্রহণ না করায় এ সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে। তাদেরকে আগামী ৫ মে পর্যন্ত সময় বেঁধে দেয়া হয়েছে। এ দুই মাসের বেতন পরিশোধের পাশাপাশি তাদের চাকরিজীবনের সব দেনা পাওনাও পরিশোধ করা হবে বলেও জানান তিনি।

পূর্বকোণ/আরপি

The Post Viewed By: 236 People

সম্পর্কিত পোস্ট