চট্টগ্রাম রবিবার, ০৭ জুন, ২০২০

সীতাকুণ্ডে আক্রান্ত ব্যক্তির বাড়ি লক ডাউন, জনমনে আতঙ্ক

৮ এপ্রিল, ২০২০ | ১১:৫১ অপরাহ্ণ

সীতাকুণ্ড সংবাদদাতা

সীতাকুণ্ডে আক্রান্ত ব্যক্তির বাড়ি লক ডাউন, জনমনে আতঙ্ক

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে এক ব্যাংক কর্মকর্তা করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। আজ বুধবার (৮ এপ্রিল) করোনা পরীক্ষায় তার শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে বলে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. নুর উদ্দিন রাশেদ নিশ্চিত করেছেন। এদিকে এ ঘটনার পর প্রশাসন তার বাড়ি ও আশপাশের এলাকা লকডাউন করেছে। এ ঘটনায় পুরো সীতাকুণ্ডজুড়ে তীব্র আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছে।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সীতাকুণ্ড পৌরসদর বাজারের গোডাউন রোডের কবির মঞ্জিলে পরিবার নিয়ে ভাড়ায় থাকতেন ঢাকার নারায়ণগঞ্জের কমার্স ব্যাংকের এক কর্মকর্তা (৫০)। গত কয়েকদিন আগে তিনি নারায়ণগঞ্জ থেকে সীতাকুণ্ডে আসেন। এখানে এসে অসুস্থ হয়ে পড়ায় বুধবার সকালে তিনি নিজে একটি রিক্সাযোগে সীতাকুণ্ড সরকারি হাসপাতালে গিয়ে তার করোনা পরীক্ষার নমুনা দিয়ে আসেন। রাতে চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন সারাদিনে সংগ্রহকৃত নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট প্রদান করলে দেখা যায় এ ব্যাংক কর্মকর্তার শরীরে করোনা ভাইরাসের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে। ফলে সর্বত্র তোলপাড় সৃষ্টি হয়। এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।
সীতাকুণ্ড উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. নুর উদ্দিন রাশেদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আমরা আজ মোট পাঁচজনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠিয়েছিলাম। এর মধ্যে মধ্যবয়সী ওই ব্যাংক কর্মকর্তার করোনা পজিটিভ এসেছে। তিনি বলেন, ওই ব্যক্তি নিজে রিক্সাযোগে এসে করোনা পরীক্ষার নমুনা দিয়ে গিয়েছিলো। তার বাড়ি গোডাউন রোডে। এর বেশি কিছু জানি না।
সীতাকুণ্ড থানার ওসি মো. ফিরোজ হোসেন মোল্লা বলেন, লোকটির আসল বাড়ি সন্দ্বীপ উপজেলায়। তার পরিবার নিয়ে তিনি দীর্ঘদিন পৌরসদরের ৩নং ওয়ার্ড গোডাউন রোডের কবির মঞ্জিলে ভাড়া থাকতেন। তবে চাকুরি করতেন নারায়নগঞ্জের কমার্স ব্যাংকে। আমরা রাতে তার করোনা ধরা পড়ার খবর পেয়ে বাড়িতে এসে চারপাশ ঘিরে রেখেছি।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিল্টন রায় বলেন, লোকটির করোনায় আক্রান্ত হবার খবর শুনে আমি পুলিশ, স্বাস্থ্যকর্মকর্তাকে নিয়ে তার বাড়ি ও আশপাশের বাড়িগুলো লকডাউন করে দিয়েছি। তাকে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হবে। সবাইকে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়ে তিনি বলেন, এখন সবাইকে আরো বেশি সতর্ক থেকে নিজ নিজ ঘরে অবস্থান করতে অনুরোধ করছি। নইলে এ ভাইরাস দ্রুত ছড়িয়ে পড়বে।
এদিকে, করোনায় আক্রান্ত ঐ ব্যক্তি নারায়নগঞ্জ থেকে গত কয়েকদিন আগে সীতাকুণ্ডে ভাড়া বাসায় আসার পর এলাকায় বিভিন্ন স্থানে ঘুরেছেন। এমনকি বুধবার তিনি হাসপাতালে নমুনা দিতে যাবার সময় রিক্সাযোগেও বিভিন্ন স্থানে ঘুরেছেন।
 নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সীতাকুণ্ড থানার এক কর্মকর্তা বলেন, যে বাসায় ওই লোকটি থাকেন সেখানে এক পুলিশ সদস্যসহ বেশ কয়েকটি পরিবার রয়েছে। ওই পুলিশ সদস্য যেহেতু বাসায় আসা যাওয়া করতেন তাই এ ঘটনার পর আতঙ্কিত হয়ে উঠেছে পুলিশের অন্যান্য সদস্যরা। ফলে ওই বাড়ির ভাড়াটিয়া পুলিশ সদস্যকে থানায় আসতে নিষেধ করা হয়েছে।
পূর্বকোণ/সৌমিত্র-আরপি

The Post Viewed By: 662 People

সম্পর্কিত পোস্ট