চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২০

সর্বশেষ:

ফ্যাশন হাউসেও করোনার ধাক্কা

৫ এপ্রিল, ২০২০ | ২:০৫ পূর্বাহ্ণ

ইফতেখারুল ইসলাম

ক্ষুদ্র উদ্যোক্তারা বিপাকে

ফ্যাশন হাউসেও করোনার ধাক্কা

  • মার খেল বৈশাখী ব্যবসা, ঈদ ঘিরে চরম অনিশ্চয়তা
  • দোকান ভাড়া ও কারিগরদের বেতনও দেওয়া যাচ্ছে না

বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাসের কারণে চট্টগ্রামের ঈদ এবং পহেলা বৈশাখকে কেন্দ্র করে কিছু ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা মহাবিপাকে পড়েছেন। ব্যাপক আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হয়ে তাদের অনেকেরই পথে বসার উপক্রম হয়েছে। চট্টগ্রামে এ ধরনের ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা রয়েছেন প্রায় দেড়শ থেকে দুইশ জন। বাঙালিয়ানা স্বত্বাধিকারী ফারুক তাহের পূর্বকোণকে জানান, প্রতিবছর পহেলা বৈশাখকে লক্ষ্য করে তারা বিশেষ প্রস্তুতি নেন। এবার করোনাভাইরাসের কারণে সব ভেস্তে গেছে। আর কদিন পরে পহেলা বৈশাখ, এখনো পর্যন্ত কোন অর্ডার পাননি। রমজান শুরুর আগেই ঈদের কাপড় তৈরির অর্ডার পেয়ে যান কিন্তু গতকাল পর্যন্ত ঈদের একটি অর্ডারও আসেনি। ডলস হাউসের স্বত্বাধিকারী আইভি হাসান জানান, মহামারীর কারণে সব কারিগর বিদায় করে দিয়েছেন। পহেলা বৈশাখের কাজও করা হয়নি। ঈদেরটাও করতে পারব কিনা জানি না। কানাডায় একটি মেলায় আমার ডলস হাউসের নামে একটি স্টল দেয়ার জন্য কিছু প্রবাসী যোগাযোগ করেছিলেন। কিন্তু মহামারীর কারণে এখন পুরো বিশ্ব একপ্রকার লকডাউনে আছে। তাই এখন ঘরে বসে থাকা ছাড়া অন্য কোন উপায় নেই। অথচ পহেলা বৈশাখ এবং ঈদের জন্য আমাদের জোর প্রস্তুতি ছিল। আর এক ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা শৈল্পিক-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক এইচ এম ইলিয়াস জানান, আমরা আসলে সারাবছর আশায় থাকি পহেলা বৈশাখ এবং ঈদের জন্য। এখন কারিগরদের ছুটি দিয়েছি। দোকান ভাড়া ও তাদের বেতনসহ আনুষঙ্গিক খরচ কিভাবে জোগাড় করবো জানি না। সরকার বড় শিল্প কারখানার জন্য পাঁচ হাজার কোটি টাকার প্রণোদনা দিয়েছে। দেশীয় ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের একইভাবে প্রণোদনা দিলে তারা কোনভাবে সামলে উঠবে, নতুবা অনেক ক্ষুদ্র উদ্যোক্তারা পথে বসবে। তিনি জানান, চট্টগ্রামে ২০০ জন ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা আছেন যারা পহেলা বৈশাখ এবং ঈদকে ঘিরে বিনিয়োগ করেন। তারা মূলত বাসা থেকেই এই ব্যবসা পরিচালনা করেন। তারা কঠিন পরিস্থিতিতে পড়েছেন। টেন ক্রিয়েশনস এর উদ্যোক্তা ওমর কাইয়ুম পারভেজ জানান, পহেলা বৈশাখ এবং ঈদকে ঘিরে তারা বেশকিছু পাঞ্জাবি-পায়জামা তৈরির উদ্যোগ নিয়েছিলেন। শুরুতে বেশ কিছু অর্ডার পেয়েছিলেন। কিন্তু এই বৈশ্বিক মহামারীর কারণে সব শেষ।

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
The Post Viewed By: 206 People

সম্পর্কিত পোস্ট