চট্টগ্রাম শুক্রবার, ০৫ জুন, ২০২০

সর্বশেষ:

করোনার সুযোগে পাহাড় কাটা, কলাতলীতে উচ্ছেদ অভিযান

২ এপ্রিল, ২০২০ | ৪:৪০ অপরাহ্ণ

কক্সবাজার সংবাদদাতা

করোনার সুযোগে পাহাড় কাটা, কলাতলীতে উচ্ছেদ অভিযান

কক্সবাজার কলাতলী উত্তর আদর্শগ্রাম এলাকায় অবৈধভাবে পাহাড় কেটে নির্মাণাধীন ভবনে উচ্ছেদ অভিযান চালানো হয়েছে। একদিকে পাহাড় কাটা অন্যদিকে অবৈধ ভবন নির্মাণের বিরুদ্ধে এই অভিযান চালান কক্সবাজার সদর সহকারি কমিশনার (ভূমি) মুহাম্মদ শাহরিয়ার মুক্তার। অভিযানে পাহাড় কেটে নির্মিত ভবনটি গুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২ এপ্রিল) দুপুরে এই অভিযান চালানো হয়।

সহকারি কমিশনার (ভূমি) মুহাম্মদ শাহরিয়ার মুক্তার বলেন, ‘উত্তর আদর্শগ্রাম এলাকায় জসিম নামে একব্যক্তি রাতের আধারে পাহাড় কাটে আর দিনের বেলায় ভবন নির্মাণ করছে; এমন তথ্যের ভিত্তিতে সেখানে অভিযান চালানো হয়েছে। অভিযানে বিশাল পাহাড় কাটার সত্যতা পাওয়া যায়। পাহাড় কেটে নির্মিত স্থাপনা গুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। এসময় পাহাড় কাটার বিভিন্ন সরঞ্জামও জব্দ করা হয়। পাহাড় কাটায় জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য পরিবেশ অধিদপ্তরকে বলা হয়েছে । অভিযানে পরিবেশ অধিদপ্তরের কর্মকর্তারাও ছিল।’

এলাকাবাসীরা জানিয়েছে, রবিউল নামে একব্যক্তির জমি ছিল অভিযান হওয়ার স্থানটি। গত দেড় বছর আগে পাহাড় কেটে ভবন নির্মাণ করছিল রবিউল। ওই সময় কক্সবাজার পরিবেশ অধিদপ্তর সেখানে অভিযান চালিয়ে জরিমানা ও উচ্ছেদ করেছিল। উচ্ছেদ অভিযানের পর জসিম নামে একব্যক্তিকে সরকারি খাস জমি ও নির্মাণাধীন ভবনটি বিক্রি করে দেয় রবিউল। সরকারি এই খাস জমিটি জসিমকে প্রায় ১৩ লাখ টাকায় বিক্রি করে রবিউল। জসিমের বাড়ি হলে উখিয়ার মরিচ্যা এলাকায়। মাদক মামলায় কারাগার থেকে সম্প্রতি বের হন জসিম। কারাগার থেকে বের হয়ে জসিম সেখানে আবার পাহাড় কাটা শুরু করে। করোনা ভাইরাসে প্রশাসনের ব্যস্ততার এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে রাত দিন শ্রমিক লাগিয়ে পাহাড় কাটছিল জসিম। পাহাড় কাটার পাশাপাশি দালানও নির্মাণ করছিল।

বৃহস্পতিবার দুপুরে আদর্শগ্রাম এলাকার রবিউল পূর্বকোণকে বলেন, আমি জায়গাটি জসিমকে বিক্রি করে দিয়েছি অনেক আগেই। এখন (বৃহস্পতিবার দুপুরে) সেখানে উচ্ছেদ অভিযান করছে ম্যাজিস্ট্রেট। আমিও এই অভিযানে সহযোগিতা করেছি। বিক্রি করে দেওয়ার পর আমার কোনো হাত নেই আর ওই জায়গায়।

পূর্বকোণ/পিআর

The Post Viewed By: 142 People

সম্পর্কিত পোস্ট