চট্টগ্রাম শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০

হোম কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করতে মাঠে জেলা প্রশাসন

৩০ মার্চ, ২০২০ | ৩:১৪ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

হোম কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করতে মাঠে জেলা প্রশাসন

বিদেশ থেকে চট্টগ্রামে ফিরে আসা প্রবাসীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে হোম কোয়ারেন্টিন নিশ্চিতে খোঁজখবর নিচ্ছেন জেলা প্রশাসক (ডিসি) মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেন। পাশাপাশি করোনাভাইরাস দুর্যোগ পরিস্থিতিতে কর্মহীন হয়ে পড়া হতদরিদ্র মানুষদের মাঝে খাবার বিতরণ করেন তিনি। গতকাল রবিবার জেলা প্রশাসক মো. ইলিয়াস হোসেন নিজেই নগরীর খুলশী এলাকায় প্রবাসীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকা লোকজনের খবর নেন। এসময় জেলা প্রশাসক হোম কোয়ারেন্টিনে থাকা ব্যক্তিদের যেকোনো ধরনের সহযোগিতা প্রয়োজন হলে তা নিশ্চিত করতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন।
চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন সেখ ফজলে রাব্বি জানান, চট্টগ্রাম জেলায় বর্তমানে মোট ৯৪৭ জন কোয়ারেন্টিনে আছেন। এর মধ্যে খুলশী এলাকায় আনুমানিক ৭০ জনের মতো প্রবাসী ও বিদেশি নাগরিক হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন।
তিনি জানান, চলতি বছরের ১ মার্চ থেকে বর্তমান পর্যন্ত চট্টগ্রামে বিদেশ থেকে এসেছেন ৩৯ হাজার ২৮৩ জন। এদের মধ্যে ঠিকানা ও অবস্থান চিহ্নিত করা হয়েছে ৯৭৩ জনের। আরও ৩৮ হাজার ৩১০ জনের ঠিকানা ও অবস্থান চিহ্নিত করা যায়নি।
এ ব্যাপারে সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি বলেন, বিদেশ ফেরত কাউকে হোম কোয়ারেন্টিনের বাইরে রাখা যাবে না। এ লক্ষ্যে কাজ করছে প্রশাসন। ৮ মার্চ কোয়ারেন্টিনের নির্দেশনা যখন আসে তখন শুধুমাত্র ছয়টি দেশের কথা উল্লেখ ছিল। পরবর্তীতে নির্দেশনা আসে সব দেশ থেকে ফেরতদের হোম কোয়ারেন্টিনে রাখতে হবে। ফলে প্রথম দিকে হিসেবের গরমিল তৈরি হয়। তারপরও তাদের চিহ্নিত করার প্রক্রিয়া চলছে এবং খোঁজ খবর নেওয়া হচ্ছে। তবে বেশিরভাগেরই কোয়ারেন্টিনের সময় শেষ পর্যায়ে। বর্তমানে কোয়ারেন্টিনের বিষয়টি সেনাবাহিনীর হাতে রয়েছে।
এদিকে, গতকাল সকালে নগরীর আগ্রাবাদ মুহুরীপাড়া এলাকায় দিনমজুর ও হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে খাবার বিতরণ করেছেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেন। করোনাভাইরাস দুর্যোগ পরিস্থিতিতে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে চলমান ত্রাণ সহায়তা কর্মসূচির আওতায় ৩০০টি পরিবারের মাঝে এসব খাবার বিতরণ করা হয়। খাবারের মধ্যে ছিল, ১০ কেজি চাল, ২ কেজি চিড়া, ১ কেজি করে ডাল, লবণ, চিনি, ১ লিটার সয়াবিন তেল এবং আধা কেজি নুডলসসহ ১৬ কেজি ৫০০ গ্রামের একটি প্যাকেট।
এ সময় জেলা প্রশাসক ইলিয়াস হোসেন বলেন, বিত্তশালীদের এ মুহুর্তে সাধ্যমত মানুষের পাশে সহযোগিতার হাত বাড়াতে হবে। কারণ দুর্যোগ মুহুর্তে সবকিছু বন্ধ থাকায় হতদরিদ্র ও খেটে-খাওয়া মানুষ অসহায় অবস্থায় রয়েছে। সরকার ইতোমধ্যে পর্যাপ্ত খাদ্য সরবরাহের প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে।
এসময় উপস্থিত ছিলেন নগরীর কাট্টলী সার্কেলের সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. তৌহিদুল ইসলাম ও খুলশী এলাকায় অভিযানে সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে নেতৃত্বে ছিলেন মেজর জাহাঙ্গীর।
জেলা প্রশাসকের স্টাফ অফিসার মাসুদুর রহমান জানান, প্রবাসীদের হোম কোয়ারেন্টিন পর্যালোচনার পাশাপাশি আগ্রাবাদ মুহুরীপাড়া এলাকায় কর্মহীন দরিদ্রদের মাঝে খাবার সহায়তা দেন জেলা প্রশাসক। এছাড়াও কয়েকটি বাজারে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা হচ্ছে কী না- তা তদারকি করেন তিনি।-বাসস

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 107 People

সম্পর্কিত পোস্ট