চট্টগ্রাম সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০

সর্বশেষ:

সীতাকুণ্ডের এসি ল্যান্ড স্ট্যান্ড রিলিজ, বরিশালে বদলি

১৩ মার্চ, ২০২০ | ২:০৬ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব সংবাদদাতা, সীতাকুণ্ড

পর্যটকের চুল কেটে নেয়ার জের

সীতাকুণ্ডের এসি ল্যান্ড স্ট্যান্ড রিলিজ, বরিশালে বদলি

সীতাকু-ে সমুদ্র সৈকতে বেড়াতে আসা এক যুবকের মাথার চুল কেটে নেবার নির্দেশের ঘটনার জেরে সহকারী কমিশনার (ভূমি) সৈয়দ মো. মাহবুবুল আলমকে স্ট্যান্ড রিলিজ করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার জন প্রশাসন মন্ত্রণালয়ের এক আদেশে তাকে সহকারী কমিশনার (ভূমি) পদ থেকে প্রত্যাহার পূর্বক বরিশাল বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ে বদলি করা যায়।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দ মাহবুবুল হক গত ১০ মার্চ উপজেলার মুরাদপুর ইউনিয়নের গুলিয়াখালী সমুদ্র সৈকতে অভিযান পরিচালনা করতে যান। সেখানে তিনি অবৈধভাবে স্থাপন করা কিছু তাঁবুর ভেতরে অসামাজিক কাজের প্রমাণ পান। এ সময় এক যুবককে তার উপস্থিতিতে মাথার চুল কেটে ছেড়ে দেওয়া হয়। এ বিষয়টি নিয়ে সর্বত্র তোলপাড় সৃষ্টি হয়। অভিযোগ উঠে এসি ল্যান্ড মাহবুবুল হকের নির্দেশেই একজন পর্যটককে চুল কেটে অপমান করা হয়। কাউকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করা একজন ম্যাজিস্ট্রেটের কাজ কিনা এমন প্রশ্ন উঠে সামাজিক মাধ্যমগুলোতে। আবার গুলিয়াখালী সমুদ্র সৈকতে অবৈধ কর্মকা-ের বিরুদ্ধে তার এই পদক্ষেপে সাধুবাদও জানান কেউ কেউ। কিন্তু বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় তার উপস্থিতিতে পর্যটকের চুল কেটে নেবার বিষয়টি প্রশাসনের উপর মহল ভালোভাবে না দেওয়ায় শেষ পর্যন্ত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সহকারী সচিব কে এম আল আমীন সাক্ষরিত এক আদেশে তাকে সীতাকু- সহকারী কমিশনার (ভূমি) পদ থেকে প্রত্যাহার পূর্বক বরিশাল বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ে সহকারী কমিশনার পদে পদায়ন করা হয়। একই আদেশে বলা হয় আগামী ১৬ মার্চ তিনি বর্তমান কর্মস্থল থেকে অবমুক্ত হবেন। এ বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিল্টন রায় বলেন, আমিও আদেশটি পেয়েছি। জনস্বার্থে তাকে বদলি করা হয়েছে। তবে পর্যটকের চুল কাটার বিষয়ে জানতে চাইলেও তিনি বিষয়টি এড়িয়ে যান। অন্যদিকে সহকারী কমিশনার (ভূমি) সৈয়দ মো. মাহবুবুল হক বলেন, গুলিয়াখালী সমুদ্র সৈকতে স্থানীয় কিছু প্রভাবশালী অসৎ উদ্দেশ্যে তাবু স্থাপন করে সেখানে উঠতি প্রেমিক যুগলদের অবৈধভাবে মেলামেশার সুযোগ করে দিচ্ছিলেন। এমন অভিযোগে আমি সেখানে গিয়েছিলাম। সেসময় সেখানে জনতা বিষয়টি নিয়ে উত্তেজিত হয়ে এক যুবককে ধরে চুল কেটে দেয়। পরিস্থিতি সামাল দেবার আগেই কেউ ছবিটি তুলে বিভ্রান্তি তৈরি করেছে। পরে ঘটনাটি পত্রিকায় প্রকাশিত হলে ভুল বোঝাবুঝি সৃষ্টি হয়।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 71 People

সম্পর্কিত পোস্ট