চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ০৬ আগস্ট, ২০২০

সর্বশেষ:

যে সড়কের অভিভাবক নেই

৭ মার্চ, ২০২০ | ২:১৭ পূর্বাহ্ণ

অনুপম কুমার অভি, বাঁশখালী

বাঁশখালী ৩৫ বছর দুর্ভোগে কাথারিয়ার মানিক পাঠান-বাগমারা গ্রামবাসী

যে সড়কের অভিভাবক নেই

বাঁশখালী উপজেলার কাথারিয়া ইউনিয়নের মানিক পাঠান-বাগমারা সড়কটি ৩৫ বছর ধরে সংস্কার না হওয়ায় কার্পেটিং উঠে গিয়ে বিশাল বিশাল গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। গত ৩৫ বছরে ৪ বার চেয়ারম্যান পরিবর্তন হওয়ার পরও এই সড়কের ভাগ্যে পরিবর্তন আসেনি।

সরেজমিনে দেখা যায়, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের অধীনে ২ কিলোমিটার দীর্ঘ কাথারিয়া মানিক পাঠান-বাগমারা সড়কটির কঙ্কর-ইট উঠে চলাচল-অযোগ্য হয়ে পড়েছে। রোগী বহনকারী মানুষগুলো এই সড়ক ব্যবহার করে যাতায়াতে চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছে। সড়কটি ব্যবহার করে স্কুল-কলেজ-মাদ্রাসার শিক্ষার্থীসহ চাকুরে ও ব্যবসায়ীগণও। আগামী বর্ষা মৌসুমের আগে সড়কটির সংস্কার করা না হলে তাদের দুর্ভোগের মাত্রা প্রতি বছরের ন্যায় এ বছরও অব্যাহত থাকবে।

স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা আবু তালেব জানান, বাগমারা সড়কটি সংস্কারের জন্য স্থানীয় চেয়ারম্যানদেরকে ১০/১৫ বছর ধরে তাগাদা দেয়া হচ্ছে। বার বার চেয়ারম্যানগণ উপজেলা প্রশাসনকে অবহিত করে সড়কটি সংস্কারপূর্বক যাতায়াত উপযোগী ঘোষণা দিলেও কার্যত কিছুই হয়নি। নির্বাচন পূর্ববর্তী সময়ে চেয়ারম্যান প্রার্থীরাও সড়কটি সংস্কার করবে বলে ঘোষণা দেন।

ইউপি সদস্য মো. রমিজ বলেন, কাথারিয়ার এই সড়কটি সংস্কার না হওয়ায় ৩৫ বছর ধরে মানুষ কষ্ট পাচ্ছে। সড়কটি সংস্কারের ব্যাপারে উপজেলা প্রশাসনকে চেয়ারম্যানের মাধ্যমে অবহিত করা হয়েছে। হয়তো ভবিষ্যতে সংস্কার করা হবে।
বাঁশখালী উপজেলা প্রকৌশলী আশরাফুল ইসলাম ভূইয়া বলেন, কাথারিয়ার মানিক পাঠান-বাগমারা সড়কটি সংস্কারের জন্য পরিমাপ করা হয়েছে।

The Post Viewed By: 43 People

সম্পর্কিত পোস্ট