চট্টগ্রাম শুক্রবার, ০২ অক্টোবর, ২০২০

সর্বশেষ:

ব্যবসায়ীরা অর্থনীতির প্রাণশক্তি

৫ মার্চ, ২০২০ | ৩:৩৫ পূর্বাহ্ণ

যৌথ সেমিনারে ট্যারিফ কমিশনের চেয়ারম্যান

ব্যবসায়ীরা অর্থনীতির প্রাণশক্তি

সচিব ও বাংলাদেশ ট্রেড এন্ড ট্যারিফ কমিশন’র চেয়ারম্যান তপন কান্তি ঘোষ বলেন, দেশীয় শিল্পের স্বার্থ সংরক্ষণের মৌলিক দায়িত্ব নিয়ে যাত্রা শুরু করলেও পরবর্তীতে কমিশন বহুপাক্ষিক, আঞ্চলিক ও দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য ও বাণিজ্য সংক্রান্ত চুক্তি এবং শুল্ক সম্পৃক্ত বিষয়গুলোর উপর পর্যালোচনাপূর্বক সরকারকে প্রয়োজনীয় পরামর্শ প্রদান করে আসছে। তিনি আন্তর্জাতিক বাণিজ্যকে অত্যন্ত কঠিন ও তীব্র প্রতিযোগিতামূলক উল্লেখ করে অসাধু বাণিজ্য প্রতিকারের মাধ্যমে দেশীয় শিল্পের স্বার্থ রক্ষার্থে ডাম্পিং বিরোধী শুল্ক, কাউন্টারভেইলিং শুল্ক এবং সেইফগার্ড মেজারস’র মাধ্যমে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয় বলে উল্লেখ করেন। চেয়ারম্যান ব্যবসায়ীদেরকে অর্থনীতির প্রাণশক্তি উল্লেখ করে বর্তমান সরকারের ভিশন ২০২১ ও ২০৪১ বাস্তবায়নে রপ্তানি পণ্যের বৈচিত্র্যকরণ, ব্যবসা সহজীকরণ ও বাণিজ্য সক্ষমতার উপর গুরুত্বারোপ করেন। দি চিটাগাং চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি ও বাংলাদেশ ট্রেড এন্ড ট্যারিফ কমিশন’র যৌথ উদ্যোগে দেশীয় শিল্পের স্বার্থ সংরক্ষণে বাংলাদেশ ট্রেড এন্ড ট্যারিফ কমিশনের ভূমিকা এবং শুল্ক সংক্রান্ত সহায়তা বিষয়ে মতবিনিময় ও সচেতনতা বৃদ্ধিমূলক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন। গতকাল বুধবার সকালে ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারস্থ বঙ্গবন্ধু কনফারেন্স হলে এ সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম’র সভাপতিত্বে এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার এ. বি. এম. আজাদ, কাস্টমস, এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনার মোহাম্মদ এনামুল হক, কমিশনার অব কাস্টমস এম. ফখরুল আলম, এডিসি (শিক্ষা ও আইসিটি) মো. আবু হাসান সিদ্দিক, চেম্বার পরিচালক অঞ্জন শেখর দাশ ও প্রাক্তন পরিচালক মাহফুজুল হক শাহসহ বিভিন্ন ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান ও এসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন। অন্যদের মধ্যে চেম্বার পরিচালক সৈয়দ জামাল আহমেদ, এ. কে. এম. আক্তার হোসেন, মো. জহুরুল আলম, মো. আবদুল মান্নান সোহেল, মো. এম. মহিউদ্দিন চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।
অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন শাহ মো. আবু রায়হান আলবেরুনী এবং ট্রেড এন্ড ট্যারিফ কমিশনের কার্যক্রম উপস্থাপনা করেন সহকারী প্রধান মো. মাহমুদুল হাসান। চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম দেশীয় শিল্পের স্বার্থ রক্ষা ও বিশ্ব বাণিজ্যে বাংলাদেশের অবস্থান সুদৃঢ় করতে কমিশনকে আরো কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করার অনুরোধ জানান। তিনি কমিশনের কার্যক্রমকে ব্যবসায়ী সমাজে অবহিতকরণ ও সচেতনতা বৃদ্ধিতে প্রতি ৩ মাস অন্তর সভা করার প্রস্তাব করেন। মাহবুবুল আলম দেশের আমদানি-রপ্তানি তথ্যের ঘাটতি পূরণে একটি শক্তিশালী ‘তথ্য ভা-ার’ তৈরি করাসহ সেক্টরভিত্তিক ১০ বছর মেয়াদী রোডম্যাপ তৈরির লক্ষ্যে ট্যারিফ কমিশনের সাথে যৌথ কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।
কাস্টমস, এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনার মোহাম্মদ এনামুল হক ভ্যাট সংক্রান্ত সমস্যা নিরসন ও স্টেকহোল্ডারদেরকে সার্বিক ধারণা প্রদানের লক্ষে আগামী ১১-১২ মার্চ ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে ভ্যাট মেলা অনুষ্ঠিত হবে উল্লেখ করে দেশীয় শিল্প যাতে ক্ষতিগ্রস্ত না হয় এ ব্যাপারে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে বলে জানান। এছাড়া সম্ভাবনাময় পণ্য চিহ্নিতপূর্বক প্রয়োজনে বিশেষ প্রণোদনা প্রদান করা যেতে পারে বলেও তিনি মন্তব্য করেন। এডিসি (শিক্ষা ও আইসিটি) মো. আবু হাসান সিদ্দিক শিল্প সম্পদের সুষ্ঠু ব্যহার নিশ্চিতকরণ ও দেশীয় পণ্য রপ্তানি উন্নয়নে কার্যকর ভূমিকা পালনে কমিশনের প্রতি আহবান জানান।
সেমিনারে বক্তারা নগদ প্রণোদনা, কস্ট অব ডুয়িং বিজনেস, নিয়মিত তথ্য শেয়ারিং, জিএসপি প্লাস এর আগাম প্রস্তুতি, যৌক্তিক শুল্কারোপ, ব্যাকওয়ার্ড লিংকেজ সুবিধা, নীতির স্থায়ীকরণ, দক্ষ মানবসম্পদ তৈরি, সমন্বয় সাধন, ই-কমার্স বিকাশ, ৪র্থ শিল্প বিপ্লব, গবেষণা, ভ্যাট ইত্যাদি বিষয়ের উপর বিস্তারিত আলোচনা করেন।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 126 People

সম্পর্কিত পোস্ট