চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০

বিএনপিতেও ১৫ বিদ্রোহী!

২ মার্চ, ২০২০ | ২:৩২ পূর্বাহ্ণ

মোহাম্মদ আলী

বিএনপিতেও ১৫ বিদ্রোহী!

চসিক নির্বাচনে কাউন্সিলর পদ যেসব ওয়ার্ডে দলের একাধিক প্রার্থী তারা কিন্তু বিদ্রোহী নন, এটি দলের ‘কৌশল’ : আবুল হাশেম বক্কর

১৫ বিদ্রোহী প্রার্থীকে নিয়ে বেকায়দায় বিএনপি। চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন (চসিক) নির্বাচনে দলের সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে তারা ১৪টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থী হয়েছেন। এমনকি একটি ওয়ার্ডে বিএনপির দুইজন বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন। ২৬নং উত্তর হালিশহর ওয়ার্ডে বিএনপি থেকে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন নগর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক ও বর্তমান কাউন্সিলর মো. আবুল হাশেম। কিন্তু এ ওয়ার্ডে বিএনপির দুই বিদ্রোহী প্রার্থী হলেন নগর বিএনপির সদস্য মো. আজিজুর রহমান বাবুল ও মো. মহসীন আলী চৌধুরী। বিএনপি সূত্র জানা গেছে, চসিক নির্বাচনে ৪১টি সাধারণ ও ১৪টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডে একজন করে দল থেকে প্রার্থী ঘোষণা করে বিএনপি। কিন্তু দলের সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে বিএনপি থেকে ১৫ জন বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন। এ নিয়ে দলের মধ্যে অসন্তোষ সৃষ্টি হয়েছে।

তবে বিএনপি থেকে একাধিক প্রার্থী মনোনয়ন দাখিলের বিষয়টি বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে মানতে নারাজ নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বক্কর। দৈনিক পূর্বকোণকে তিনি বলেন, ‘যেসব ওয়ার্ডে দলের একাধিক কাউন্সিলর প্রার্থী হয়েছেন তারা কিন্তু বিদ্রোহী প্রার্থী নন। এটি একটি দলের ’কৌশল’। কোন কারণে দলের প্রার্থীর মনোনয়ন নিয়ে সমস্যা হলে অন্যজন দলের প্রার্থী হবেন। এরপরও কোন সমস্যা হলে ৮ মার্চ মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিনে তারা প্রার্থিতা তুলে নেবেন।’

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ৫নং মোহরা ওয়ার্ডে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন বর্তমান কাউন্সিলর ও চান্দগাঁও থানা বিএনপির সভাপতি মোহাম্মদ আজম। কিন্তু এ ওয়ার্ডে বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন মোহরা ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি জানে আলম জিকু।
৭নং পশ্চিম ষোলশহর ওয়ার্ডে বিএনপি থেকে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন মো. ইসকান্দার মির্জা। তবে এ ওয়ার্ডে দলের সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন নগর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক আর ইউ চৌধুরী শাহীন।
৮নং শুলকবহর ওয়ার্ডে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন বিএনপির ও ওয়ার্ড বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হাসান চৌধুরী। কিন্তু এ ওয়ার্ডে বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন নগর স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম সম্পাদক মো. জমির উদ্দিন নাহিদ।
১৩নং পাহাড়তলী ওয়ার্ডে বিএনপি থেকে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন নগর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক মো. জাহাঙ্গীর আলম দুলাল। কিন্তু দলের সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে এ ওয়ার্ডে বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন নগর যুবদল নেতা মো. বাদশা আলমগীর।
১৪নং লালখান বাজার ওয়ার্ডে বিএনপি থেকে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন নগর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক আব্দুল হালিম (শাহ আলম)। এ ওয়ার্ডে বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন দলের নগর সহ সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আবদুল আলিম স্বপন।

১৮নং পূর্ব বাকলিয়া ওয়ার্ডে বিএনপি থেকে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন নগর যুবদলের সাহিত্য ও পাঠাগার সম্পাদক মো. আজিজুল হক মাসুম। এ ওয়ার্ডে বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন সাবেক কাউন্সিলর ও নগর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ তৈয়ব। তবে তিনি বিএনপি পরিচয় না দিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন বলে জানা গেছে।
২০নং দেওয়ান বাজার ওয়ার্ডে বিএনপি থেকে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন কোতোয়ালী থানা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক হাফিজুল ইসলাম মজুমদার মিলন। এ ওয়ার্ডে বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন দেওয়ান বাজার বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক মো. লিয়াকত আলী।
২৩নং উত্তর পাঠানটুলি ওয়ার্ডে বিএনপি থেকে মনোনয়ন দাখিল করেছেন ওয়ার্ড বিএনপির আহ্বায়ক মোহা. মহসীন। এ ওয়ার্ডে বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী মুহাম্মদ রিয়াদ খান।

২৬নং উত্তর হালিশহর ওয়ার্ডে বিএনপি থেকে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন নগর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক ও বর্তমান কাউন্সিলর মো. আবুল হাশেম। এ ওয়ার্ডে বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন নগর বিএনপির সদস্য মো. আজিজুর রহমান বাবুল ও মো. মহসীন আলী চৌধুরী।
৩৩নং ফিরিঙ্গীবাজার ওয়ার্ডে বিএনপি থেকে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন ওয়ার্ড বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ছাদেকুর রহমান রিপন। এ ওয়ার্ডে বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন নগর যুবদল নেতা মো. মেজবাহ উদ্দিন মিন্টু।
৩৮নং দক্ষিণ-মধ্যম হালিশহর ওয়ার্ডে বিএনপি থেকে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন বন্দর থানা বিএনপির সভাপতি হানিফ সওদাগর। এ ওয়ার্ডে বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি মো. আজম উদ্দিন।

৩৯ নং দক্ষিণ হালিশহর ওয়ার্ডে বিএনপি থেকে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন ইপিজেড থানা বিএনপির সভাপতি সরফরাজ কাদের রাসেল। এ ওয়ার্ডে বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন ইপিজেড থানা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক হাসান মাহমুদ আনসারী।
সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ৪নং ওয়ার্ডে বিএনপি থেকে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন নগর মহিলা দলের সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক সকিনা বেগম। এ ওয়ার্ডে বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন আকবর শাহ থানা মহিলা দলের সভাপতি ইসমত আরা জেরিন।
সংরক্ষিত ৬নং ওয়ার্ডে বিএনপি থেকে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন নগর মহিলা দলের যুগ্ম সম্পাদক মাহমুদা সুলতানা ঝর্ণা। এ ওয়ার্ডে বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন বাকলিয়া থানা মহিলা দলের সভাপতি শামীমা নাসরিন।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 553 People

সম্পর্কিত পোস্ট