চট্টগ্রাম বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২০

সর্বশেষ:

শিক্ষা ব্যবস্থাকে আধুনিকায়নের জন্য সরকার কাজ করে যাচ্ছে

১ মার্চ, ২০২০ | ৩:২১ পূর্বাহ্ণ

ইউআইটিএস এ সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে ইউজিসি চেয়ারম্যান

শিক্ষা ব্যবস্থাকে আধুনিকায়নের জন্য সরকার কাজ করে যাচ্ছে

বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (ইউজিসি)-এর চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. কাজী শহীদুল্লাহ বলেছেন, নিজস্ব ক্যাম্পাসে ইউআইটিএস মানসম্পন্ন শিক্ষা প্রদান করছে। বর্তমান শিক্ষা ব্যবস্থা আগের চেয়ে অনেক উন্নত। এ শিক্ষা ব্যবস্থাকে আরো আধুনিকায়নের জন্য সরকার কাজ করে যাচ্ছে। আমি আনন্দিত যে, সরকার এবছর সমাজসেবক আলহাজ্ব সুফি মোহাম্মদ মিজানুর রহমানকে একুশের সম্মাননায় ভূষিত করেছে। আমি তাকে হৃদয়ের গভীর থেকে অভিনন্দন জানাচ্ছি। আমি বিশ্বাস করি, সুফি মিজানুর রহমানের বিশ্ববিদ্যালয় ইউআইটিএস উচ্চশিক্ষা ক্ষেত্রে বিশেষ অবদান রেখে দেশকে আরো একধাপ এগিয়ে নিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবেন। গতকাল শনিবার রাজধানীর বারিধারা জে ব্লক সংলগ্ন মধ্য-নয়ানগরে অবস্থিত ইউনিভার্সিটি অব ইনফরমেশন টেকনোলজি এন্ড সায়েন্সেস (ইউআইটিএস)-এ অনুষ্ঠিত সুফি মোহাম্মদ মিজানুর রহমানের একুশে পদক প্রাপ্তিতে সংবর্ধনা ও নবীনবরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি নবীনদের উদ্দেশ্যে বলেন, সুশিক্ষিত আদর্শ মানুষ হিসেবে নিজেদের গড়ে তুলে দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে সেবায় আত্মনিয়োগ করতে হবে। শিল্প গ্রুপ পিএইচপি ফ্যামিলির ও ইউআইটিএস বোর্ড ট্রাস্টিজের চেয়াম্যান আলহাজ্ব সুফি মোহাম্মদ মিজানুর রহমান ২০২০ সালে সমাজসেবায় বিশেষ অবদানের জন্য একুশে পদকে ভূষিত হওয়ায় সংবর্ধনা ও ইউআইটিএস এর বসন্তকালীন নবীনবরণ ২০২০-এর আয়োজন করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ সোলায়মান-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সংবর্ধনা ও নবীনবরণ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন ঢাকায় নিযুক্ত ইন্দোনেশিয়ার রাষ্ট্রদূত রীনা পি সোয়েমারনো এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আর্থ এন্ড এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্সেস অনুষদের ডিন ও শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল। পদক প্রাপ্তির অনুভূতি ব্যক্ত করেন একুশে পদকপ্রাপ্ত সমাজসেবক ও শিক্ষানুরাগী আলহাজ্ব সুফি মোহাম্মদ মিজানুর রহমান। আলোচক ছিলেন ইউআইটিএস ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য মোহাম্মদ আলী হোসেন। স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্যার এ এফ রহমান হলের প্রাধ্যক্ষ ও ইউআইটিএস ট্রাস্টি বোর্ডের উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. কে এম সাইফুল ইসলাম খান। এছাড়াও আলোচক ছিলেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট)-এর অধ্যাপক ও বিশিষ্ট কম্পিউটার বিজ্ঞানী ড. মোহাম্মদ কায়কোবাদ।আলোচক ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো. মাজহারুল হক, ট্রাস্টি বোর্ডের লিগ্যাল এডভাইজার এডভোকেট ড. মো. আব্দুল মান্নান ভূঁইয়া ও ইইই বিভাগের প্রধান ড. মো. মিজানুর রহমান। বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুষদসমূহের ডিন, বিভাগীয় প্রধান, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ, সাংবাদিক, গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল শিক্ষক-শিক্ষার্থী কর্মকর্তা-কর্মচারী ও অভিভাবকবৃন্দ এ সময় উপস্থিত ছিলেন। উপস্থিত অতিথিবৃন্দের বক্তব্য ও আলোচনাপর্ব শেষে আমন্ত্রিত অতিথিদের ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।-বিজ্ঞপ্তি

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 120 People

সম্পর্কিত পোস্ট