চট্টগ্রাম বুধবার, ২৭ মে, ২০২০

পানির উৎস সংরক্ষণে বাঁচাতে হবে কর্ণফুলী ও হালদাকে

২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ | ৩:৩৪ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক হ চট্টগ্রাম

ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে সেমিনারে বক্তারা

পানির উৎস সংরক্ষণে বাঁচাতে হবে কর্ণফুলী ও হালদাকে

কর্ণফুলী নদীর সঙ্গে জাতীয় অর্থনীতির সম্পর্ক। হালদা নদী উপমহাদেশের অন্যতম প্রাকৃতিক মৎস্য প্রজনন ক্ষেত্র। তাছাড়া এ দুই নদী থেকে চট্টগ্রাম ওয়াসা পানি উত্তোলন করে পরিশোধনের মাধ্যমে নগরের প্রায় ৭০ লাখ মানুষের কাছে সরবরাহ করে। তাই পানি উৎস সংরক্ষণে যেকোনো মূল্যেই এ দুই নদীকে বাঁচাতে হবে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে নগরীর ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারের কনফারেন্স হলে আন্তর্জাতিক প্রকৃতি ও প্রাকৃতিক সম্পদ সংরক্ষণ সংঘের (আইইউসিএন) উদ্যোগ এবং জাতিসংঘের ফুড এন্ড এগ্রিকালচার অর্গানাইজেশন (এফএও) এর সহায়তায় ‘ডেভলপিং দ্যা ড্রাফট ওয়াটারশেড ম্যানেজমেন্ট পলিসি এন্ড ইমপ্লিমেন্টেশন ফ্রেমওয়ার্ক’ শীর্ষক সেমিনারে বক্তারা এ কথা বলেন। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) ইনস্টিটিউট অব ফরেস্ট্রি এন্ড এনভায়রনমেন্ট বিভাগের অধ্যাপক ড. মোশাররফ হোসাইনের সঞ্চালনায় সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন আইইউসিএন এর কান্ট্রি প্রতিনিধি রাকিবুল আমিন। বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক ড. কামাল হোসেন, ড. এস এম শামসুল হুদা, ড. জেরিন আকতার, আবদুল্লাহ আল মামুন, অধ্যাপক ড. মনজুরুল কিবরিয়া, সহযোগী অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ মোসলেম উদ্দিন মুন্না ও ড. ওয়াহিদুল আলম, প্রফেসর ড. এম আতিকুর রহমান ও ইকবাল সরওয়ার, অধ্যাপক ড. রেজা এ মল্লিক, নির্বাহী প্রকৌশলী শীবেন্দু খাস্তগীর ও বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা সাফাত হোসেন, জমির উদ্দিন, ড. রফিকুল হায়দার, গোলাম মওলা ও ইসমত আরা নুর এবং ওয়াসার নির্বাহী প্রকৌশলী আবদুর রউফ প্রমুখ।

অধ্যাপক ড. মনজুরুল কিবরিয়া বলেন, ‘মুজিববর্ষকে সামনে রেখে হালদা নদীকে ‘বঙ্গবন্ধু মৎস্য হ্যারিটেজ’ ঘোষণা করা হবে। আমরা আশা করছি, হ্যারিটেজ ঘোষণার পর হালদা নদী রক্ষায় প্রয়োজনীয় কার্যকর সব উদ্যোগ নেওয়া হবে।’
অধ্যাপক ড. মোশাররফ হোসাইন বলেন, ‘প্রতিটি নদীর চরিত্র, বৈশিষ্ট, অবস্থান ও প্রকৃতি ভিন্ন ভিন্ন। নদী বাঁচাতে সমন্বিত উদ্যোগের কোনো বিকল্প নেই।’

The Post Viewed By: 61 People

সম্পর্কিত পোস্ট