চট্টগ্রাম শুক্রবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০

তেঁতুল বিচির ঘোষণায় সুপারি!

২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ | ৩:০৫ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

তেঁতুল বিচির ঘোষণায় সুপারি!

১১ লাখ টাকা শুল্ক ফাঁকির চেষ্টা

১১ লাখ টাকা শুল্ক ফাঁকি দিয়ে বন্দরে তেঁতুল বিচি আমদানির ঘোষণায় আনা সুপারির একটি চালান আটক করেছে চট্টগ্রাম কাস্টম হাউসের কর্মকর্তারা।
কাস্টম হাউস সূত্র জানায়, খাতুনগঞ্জের নুরুল আবছার চৌধুরী মার্কেটের আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান ডিএম ট্রেডিংয়ের নামে তেঁতুল বিচি ঘোষণা দেওয়া একটি চালান চট্টগ্রাম বন্দরে আসে। ওই চালানে তেঁতুল বিচি পাওয়া যায় ৯শ ২০ কেজি। আর সুপারি পাওয়া যায় ২৫ টন। তেঁতুল বিচি আমদানির ক্রয় মূল্য ছিল কেজি প্রতি ২২ সেন্ট, আর সুপারির মূল্য ছিল কেজি প্রতি ৫০ সেন্ট। মোট দামের উপর ঘোষিত পণ্য তেঁতুল বিচি আমদানির শুল্কহার ১৫ শতাংশ এবং সুপারির শুল্কহার ১০৪ শতাংশ। সব মিলিয়ে ওই চালানে ১১ লাখ টাকা শুল্ক ফাঁকি দেওয়ার চেষ্টা ছিলো।

এই ঘটনায় কাস্টম হাউসের অডিট ইনভেস্টিগেশন এন্ড রিসার্চ (এআইআর) শাখার সহকারী কমিশনার নুর এ হাসনা সানজিদা অনুসুয়া জানান, কাস্টম হাউস কর্তৃপক্ষ বেশ কয়েক মাস আগে চট্টগ্রাম বন্দরে আসা কিছু চালানের বিল অব এন্ট্রি দাখিল না হওয়ায় তালিকা অনুযায়ী কায়িক পরীক্ষা করেছে। এরই অংশ হিসেবে তেঁতুল বিচির চালানটির কায়িক পরীক্ষা সম্পন্ন করি। যাতে ঘোষিত পণ্য তেঁতুল বিচি পাওয়া গেছে ৯শ ২০ কেজি। আর সুপারি পাওয়া গেছে ২৫ টন।
এ ব্যাপারে কাস্টম আইনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, পণ্য আমদানির পর বন্দর থেকে খালাসের জন্য আমদানিকারকের পক্ষে সিএন্ডএফ এজেন্ট কাস্টম হাউসে বিল অব এন্ট্রি দাখিল করে শুল্ক পরিশোধ করে। কিন্তু এ চালানের পক্ষে বিল অব এন্ট্রি দাখিল হয়নি এবং শুল্কও জমা পড়েনি। তাই ধারণা করা হচ্ছে-আমদানিকারক কাস্টম কর্মকর্তাদের নজর এড়িয়ে বা কোনো অপকৌশলে চালানটি খালাসের সুযোগ খুঁজছিলো।

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
The Post Viewed By: 272 People

সম্পর্কিত পোস্ট