চট্টগ্রাম রবিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০

বাঁশখালীতে দুটি ট্রলার ডুবি নিহত ৩, নিখোঁজ ১

২০ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ | ৫:৫৪ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব সংবাদদাতা হ বাঁশখালী

কুতুবদিয়া দরবারের ওরশে যাচ্ছিলেন

বাঁশখালীতে দুটি ট্রলার ডুবি নিহত ৩, নিখোঁজ ১

বাঁশখালী উপজেলা হতে কুতুবদিয়া দরবারে বার্ষিক ওরশ শরীফ যাওয়ার পথে গন্ডামারা খাটখালী সাগর মোহনায় ও কাথরিয়া চুনতি বাজারের দক্ষিণে জলকদর খালে পৃথক পৃথক দুটি ফিশিং ট্রলার ডুবির ঘটনা ঘঠেছে। এতে শিশুসহ নিহত হয়েছে ৩ জন। গন্ডামারা মোহনায় নিঁেখাজ জালাল (৫৫) এর খোঁজ পাওয়া যায় নিই। ধারণা করা হচ্ছে বোট ডুবিতে মারা গেছে। এ ব্যাপারে বাঁশখালী থানায় সাধারণ ডায়েরি হয়েছে।

গতকাল বুধবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) কাথরিয়া থেকে সকাল ৯টায় ও খানখানা বাদ থেকে সকাল ১০ টায় কুতুবদিয়ার দরবারের উদ্দেশ্যে বোট দুটি রওনা দেন। ১১টার দিকে কাথরিয়া জলকদর খালে ও গন্ডামারার মোহনায় সংগঠিত পৃথক ট্রলার ডুবির ঘটনা দুটি ঘটে।

দুর্ঘটনা কবলিত কাথরিয়া ট্রলার ডুবির ঘটনায় বাঁশখালী থানা ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা জলকদর খালে দুপুর ২টা ৪৫ মিনিটে আমান উল্লাহর ছেলে মিনহাজ (১০) এর লাশ উদ্ধার করে। একই বোটের যাত্রী মৃত রওশনুজ্জমার ছেলে ওমান প্রবাসী মো.আক্কাছ (৩০) ঘটনাস্থলে মৃত্যু হয়। অপরদিকে গন্ডামারা মোহনায় ট্রলার ডুবিতে খানখানাবাদ ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের মৃত ইদ্রিস মিয়ার পুত্র আবদুল মালেক(৫০) ও ২নং ওয়ার্ডের কদম রসুল গ্রামের মোহাম্মদ জালাল উদ্দীন (৫৫) নামে অপর ব্যক্তি নিখোঁজ রয়েছে। সে ওই এলাকার আহমদ হোসেনের ছেলে, ধারণা করা হচ্ছে বোট ডুবির ১০ ঘন্টা পরও জীবত অথবা মৃত উদ্ধার না হওয়ায় নিশ্চিত তার মৃত্যু হয়েছে। নিহতদেরকে বিকেলে পারিবারিক কবরে দাফন করা হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, কক্সবাজারের কুতুবদিয়া উপজেলায় আল্লামা শাহ আব্দুল মালেক শাহ কুতুবীর বার্ষিক ওরশ শরীফে যোগদান করতে কাথরিয়া ও খানখানাবাদসহ বিভিন্ন এলাকা হতে দেড় শতাধিক যাত্রী দুটি ফিশিং ট্রলার যোগে জলকদর খাল হয়ে কুতুবদিয়ার উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। পথিমধ্যে কাথরিয়া ও সরল ইউপি সংলগ্ন এলাকাও গন্ডামারার খাটখালী মোহনায় যাত্রীবাহী এ ট্রলার দুটি পৃথক স্থানে দুর্ঘটনার কবলে পড়ে। কাথরিয়ায় ট্রলার ডুবির খবর আশপাশে ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয় লোকজন দ্রুত জলকদরখালে নেমে দূর্ঘটনা কবলিত মানুষদেরকে উদ্ধার করে বাঁশখালী হাসপাতালে নিয়ে আসে। স্থানীয়রা উদ্ধার করে বাঁশখালী হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক কাথরিয়া ইউপির ১নং ওয়ার্ডের বাগমারা গ্রামের ছমেয়ার বাপের বাড়ীর ওমান প্রবাসী মৃত রওশনুজ্জমার পুত্র মো.আক্কাছ (৩০)কে মৃত ঘোষণা করেন বাঁশখালী হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক। জলকদর খালে নিখোঁজ থাকার পর ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল ওয়ার হাউজ ইন্সপেক্টর মাহবুব আলমের নেতৃত্বে ডুবুরি নাজিম উদ্দীন আমান উল্লাহর ছেলে মো. মিনহাজ (১০)এর লাশ জলকদর খালের পানি থেকে উদ্ধার করে। এদিকে খানখানাবাদ ইউপির কদমরসুলগ্রাম হতে অতিরিক্ত যাত্রী বোঝাই নিয়ে মো.হারুনের মালিকানাধীন একটি ফিশিং বোট সকাল ১০টার দিকে রওনা দেয়। অতিরিক্ত যাত্রী বোঝাই ইঞ্জিন চালিত বোটটি গন্ডামারা খাটখালী মোহনায় পৌঁছলে হঠাৎ ঢেউয়ের তোড়ে উল্টে যায়। এ সময় শতাধিক যাত্রী সাতার কেটে কূলে উঠতে সক্ষম হলে ৪জন নিঁেখাজ থাকে। দুপুর ২টার দিকে স্থানীয় জেলেরা ও বোটে থাকা প্রতিবেশীরা সাগরে কিনারে ভাসমান অবস্থায় খানখানাবাদ ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের মৃত ইদ্রিস মিয়ার পুত্র আবদুল মালেক(৫০) ও খানখানাবাদের ২নং ওয়ার্ডের কদম রসুল গ্রামের জালাল (৫৫) নামের অপর ব্যক্তি ট্রলার ডুবির ঘটনার নিঁেখাজ রয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে সে মারা গেছে ।

গন্ডামারা রুহুল্লার বাড়ির প্রত্যক্ষদর্শী মো. সেলিম বলেন, গন্ডামারা ইউনিয়নের খাটখালী মোহনায় ট্রলার ডুবির ঘটনায় ২ জনের লাশ ভাসমান অবস্থায় উদ্ধার করে তাদের পরিবারের লোকজন নিয়ে গেছে। কাথরিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো.শাহজাহান চৌধুরী বলেন, নিহতের পরিবারকে সরকারি ভাবে আর্থিক সহায়তা করা হয়। মৃত দুজনেই একই বাগমারা গ্রামের।

খানখানাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান মো.বদরউদ্দিন চৌধুরী বলেন, কুতুবদিয়া দরবার শরীফ যাওয়ার পথে ফিশিং ট্রলার ডুবে কদমরসুল গ্রামের ১ আবদুল মালেকের মৃত্যু নিশ্চিত হওয়া গেছে। অপরজন জালাল উদ্দীনের খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। সে ঐ ইঞ্জিন চালিত বোটে করে দরবার শরীফে যাচ্ছিল। ১০ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে ও তাকে উদ্ধার করা যায়নি।

বাঁশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. রেজাউল করিম মজুমদার বলেন, জলকদরখালে ফিশিং ট্রলার ডুবির ঘটনায় ২ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এছাড়াও খানখানাবাদে ২ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এব্যাপারে পৃথক দুটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে।
বাঁশখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোমেনা আক্তার বলেন, বাঁশখালী উপজেলার খানখানাবাদ ও কাথরিয়া থেকে দুটি পৃথক মাছ ধরার বোট নিয়ে কুতুবদিয়া দরবার শরীফে যাওয়ার পথে জলকদরখালে ও গন্ডমারা মোহনায় পৃথক দুর্ঘটনা দুটি ঘটে। এতে ৩জনের মৃত্যু অনিশ্চিত হওয়া গেছে। ১ জন নিখোঁজ রয়েছে। বিষয়টি উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 149 People

সম্পর্কিত পোস্ট