চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০

সর্বশেষ:

অব্যাহত থাকুক পূর্বকোণের জয়যাত্রা

১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ | ৩:৪৬ পূর্বাহ্ণ

আবছার উদ্দিন অলি

অব্যাহত থাকুক পূর্বকোণের জয়যাত্রা

দৈনিক পূর্বকোণ পাঠাকের আস্থা ও ভালো বাসায় ৩৪ বছর অতিবাহিত করলো। দৈনিক পূর্বকোণ শুরু থেকে চট্টগ্রামের নাগরিক সমস্যা সমাধানে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে। তা এখনও অব্যাহত রয়েছে। ভেটেনারি কলেজ প্রতিষ্ঠা, চট্টগ্রাম টিভি কেন্দ্র স্থাপন, অবৈধ বিল বোর্ড উচ্ছেদ, চা শিল্প, যানজট, ট্রাফিক পুলিশের চাঁদাবাজি, ইভটিজিং, জলাবদ্ধতা, ক্রীড়াঙ্গন, খেলার মাঠ দখল, পাহাড় ধস, লোড শেডিং,

গ্যাস সংকট, পানি সংকট, বিদ্যুৎ সমস্যা, বাণিজ্য নগরী চট্টগ্রাম ঘোষণা, ফুটপাত দখল, অবৈধ স্থাপনা, ঝুঁকিপূর্ণ ভবন, চট্টগ্রাম কাস্টম ও বন্দর আধুনিকীরন, পর্যটন শিল্পের সমস্যা সম্ভাবনা, কর্ণফুলী ড্রেজিং, কর্ণফুলী তৃতীয় সেতু নির্মাণ, নজরুল স্কয়ার নির্মাণ, সরকারি বিদ্যালয় সংকট সহ নাগরিক সমস্যাগুলোকে অধিকতর গুরুত্ব দিয়ে পূর্বকোণ সব সময় সাধারণ মানুষের কথা বলে যাচ্ছেন। তাই পূর্বকোণ শতভাগ সফল। পূর্বকোণে ছাপানো ছবির কোয়ালিটি, নিউজের গেট আপ, মেকআপ ও গুণগতমান জাতীয় পত্রিকার চেয়ে অনেক ভাল। আধুনিক সংবাদপত্রের যদি কোন সংজ্ঞা বুঝায় তা পূর্বকোণে পাওয়া যাবে। এছাড়া বিভিন্ন সময়ে জনগুরুত্ব বিষয় বিবেচনা করে গোলটেবিল বৈঠক ও বিশেষ সংখ্যা প্রকাশ করে ইতিমধ্যে পূর্বকোণ ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে।

সংবাদপত্র হচ্ছে গণতন্ত্রের মূল অবয়ব। আধুনিকবিশ্বে সংবাদ পত্রহীন কোনো দেশ কল্পনাও করা যায় না। প্রতিটি নাগরিক তার দেশের রাজনৈতিক সামাজিক ও অর্থনৈতিক অবস্থা এবং এতদ্সম্পর্কিত সমস্যাদি সম্পর্কেও জানতে চান। প্রকাশ করতে চান তার নিজস্ব মতামত। কি রাষ্ট্রীয়, কি সামাজিক, সব ধরনের পরিবর্তন সম্পর্কেও পুরোপুরি জানতে চান। জানতে চান কোথায় কি হচ্ছে বা ঘটছে। সংবাদপত্র সম্পর্কে দার্শনিক হেনরী ওয়ার্ড মন্তব্য করেছেন যে, “সংবাদপত্র হচ্ছে সাধারণ মানুষের স্কুল শিক্ষক”। এই সমাপ্ত বিহীন পুস্তক প্রতিটি দেশের গৌরব।
এখনো অনেক পাঠককে বলতে দেখা যায় পূর্বকোণ না পড়লে যেন সারাদিন কি একটা কাজ বাকি রয়েছে। বার বার মনে তাগাদা দেয়। পূর্বকোণ পুরোপরি চট্টগ্রামবাসীর অভিভাবকের দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছে। পূর্বকোণ তার নিজস্ব সক্রিয় অবস্থানে পাঠকের ভালবাসা নিয়ে এখনো এগিয়ে চলেছে। এজন্য অবশ্যই ধন্যবাদ দিতে হয় দৈনিক পূর্বকোণ প্রকাশক ও পরিচালনা সম্পাদক জসিম উদ্দিন চৌধুরী এবং মান্যবর সম্পাদক ডা. ম. রমিজউদ্দিন চৌধুরী।
অনলাইনের এ যুগের পূর্বকোণের চাহিদা দিন দিন বাড়ছে। রংপুর থেকে আমার এক বন্ধু যখন একটি পূর্বকোণ পাঠাতে বলে তখন বুঝা যায় পূর্বকোণ চাহিদা শুধু চট্টগ্রামে নয় এখন সারাদেশে। তথ্য প্রযুক্তির কারণে সেটা এখন বিশ্বব্যাপী। পূর্বকোণ মানুষ পড়ে এবং ভালোবাসে। ঘুম থেকে উঠার আগেই মোবাইলে লেখা নিয়ে মতামত পাওয়া যায়। লেখাটি এই বিষয়টি ভালো হয়েছে। বিষয় আনা যেতো, তথ্য গুলো সুন্দর ভাবে উপস্থাপন করেছেন নানা রকম অভিমত। এ এক অভূতপূর্ব আনন্দের বিষয়। সত্যিই যেন ভাললাগার ভালবাসার পূর্বকোণ মিশে গেছে হৃদয়ের গভীরে। পূর্বকোণ সবসময় তাজা খবরকে প্রাধান্য দেয়।
পূর্বকোণ এর পাতায় জন্ম থেকে এখনো পর্যন্ত পুরোনো খবর ছাপা হয়নি। যা কিছু এখন পূর্বকোণ ঠিক তখন এই বিষয়টি পূর্বকোণকে বহুগুন জনপ্রিয়তা বাড়িয়ে দিয়েছি।

নিরপেক্ষতা, বস্তুনিষ্ট সংবাদ, সততা, দায়িত্বশীলতা, সর্বোপরি কোন বিশেষ ব্যক্তি বা গোষ্ঠীর পক্ষ না নিয়ে পূর্বকোণ কথা বলে যাচ্ছে পাঠকের জন্য, সাধারণ মানুষের জন্য। সেই অগ্রযাত্রায় সফল সহযোদ্ধা হচ্ছে পূর্বকোণের পাঠকগণ। পূর্বকোণ সব সময় তার নিজস্ব বৈশিষ্ট নিয়ে চলেছে, এখনো চলছে। তাইতো সময়ের পথচলায় এখানো পূর্বকোণ এগিয়ে। অব্যাহত থাকুক পূর্বকোণ এর জয় যাত্রা। গৌরব ও সাফল্যের ধারা অব্যাহত রেখে শ্রেষ্ঠেত্বের যোগ্যতায় প্রথম হয়ে পূর্বকোণ বেঁচে থাক হাজার বছর।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 107 People

সম্পর্কিত পোস্ট