চট্টগ্রাম বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০

সর্বশেষ:

ভালবাসায় সিক্ত পূর্বকোণ

১১ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ | ৭:২৩ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

ভালবাসায় সিক্ত পূর্বকোণ

সর্বস্তরের মানুষের ভালবাসায় সিক্ত পূর্বকোণ। প্রতিষ্ঠার ৩৫তম বর্ষে পদার্পণের শুভলগ্নে গতকাল ১০ ফেব্রুয়ারি সকাল থেকে রাত অবধি রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠন, পাঠক ও শুভানুধ্যায়ীগণ ফুলেল শুভেচ্ছা জানিয়েছেন দৈনিক পূর্বকোণকে। এসময় প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে গিয়ে সবাই বলেছেন, জনগণের সুখ-দুঃখের কথা বলে পূর্বকোণ; উন্নয়নের কথা বলে পূর্বকোণ; বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশন করে পূর্বকোণ। এজন্য পূর্বকোণ পাঠকপ্রিয় পত্রিকা। ভবিষ্যতেও এই ধারা অব্যাহত থাকবে বলে প্রত্যাশা। সকাল ১১টায় কেক কেটে ও বেলুন উড়িয়ে পূর্বকোণের ৩৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী কর্মসূচির সূচনা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন, মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী, নজরুল ইসলাম চৌধুরী এমপি, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এম এ সালাম, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াছ হোসেন, পিএইচপি গ্রুপের চেয়ারম্যান সুফি মিজানুর রহমান, মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার শ্যামল কুমার নাথ, জেলা পুলিশের এডিশনাল এসপি মহিউদ্দিন সোহেল ও সিএমপির ডিসি নর্থ বিজয় বসাক। পরবর্তীতে দৈনিক পূর্বকোণ লিমিটেডের চেয়ারম্যান ও দৈনিক পূর্বকোণ সম্পাদক ডা. ম. রমিজউদ্দিন চৌধুরীকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানিয়ে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন রেলপথ মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় কমিটির সভাপতি ফজলে করিম চৌধুরী এমপি, মহানগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন, সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বক্কর, দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আবু সুফিয়ান, চিটাগং চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম, রাউজান পৌরসভার মেয়র দেবাশীষ পালিত, চট্টগ্রাম ফ্রেইট ফরওয়ার্ডারস এসোসিয়েশনের পরিচালক খায়রুল আলম সুজন প্রমুখ।

আ জ ম নাছির উদ্দিন : দৈনিক পূর্বকোণ চট্টগ্রামের কথা বলে, মাটি ও মানুষের কথা বলে, চট্টগ্রামের সমস্যা তুলে ধরে এবং সমাধানে কী করণীয় সেটার অনুকূলে জনমত সৃষ্টি করে। চট্টগ্রাম নগর আমাদের এ প্রিয় জন্মভূমি। প্রিয় নগরকে একটি বাসযোগ্য নগর হিসেবে সাজাতে চাই। এক্ষেত্রে অতীতে পূর্বকোণ যে বলিষ্ঠ ভূমিকা রেখেছে, তেমনি সামনের দিনগুলোতেও নগরের সমস্যাগুলোকে চিহ্নিত করে বরাবরের মতো ভূমিকা রাখবে। পূর্বকোণ আরও বহুদূর এগিয়ে যাবে সে প্রত্যাশা থাকবে।

এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি : ভাষার মাসে প্রথমে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাচ্ছি। পূর্বকোণ পরিবারের সাথে আমার আত্মার সম্পর্ক। পূর্বকোণ আমার পত্রিকা, রাউজানবাসীর পত্রিকা। সাংবাদিকের কলম তলোয়ারের চেয়ে শাণিত। পূর্বকোণ আমাদের অনেক দিক নির্দেশনা দিয়ে এসেছে, ভবিষ্যতেও এই ধারা অব্যাহত রাখবে বলে প্রত্যাশা। পূর্বকোণের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে পূর্বকোণ পরিবারের সবাইকে অভিনন্দন জানাচ্ছি।
নজরুল ইসলাম চৌধুরী এমপি : চট্টগ্রামের আধুনিক পত্রিকার প্রবর্তক দৈনিক পূর্বকোণ। পূর্বকোণ যেভাবে শুরু করেছিল, তেমনি আগামীতেও এ ধারা অব্যাহত রাখবে। সত্য ও বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশ করে সমাজের দর্পণ হিসেবে যেভাবে তারা খ্যাতি অর্জন করেছে, তেমনি যুগ যুগ ধরে সে সুনাম অক্ষুণœ রাখবে। দেশ ও জাতি গঠনে আরও বহুদূর এগিয়ে যাবে।

মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী : অতীতের মতোই আগামীর দিনগুলো যেন পূর্বকোণ তাদের কাজের ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে পারে সেটাই কামনা করছি আজকের দিনে। পূর্বকোণ সবসময় চট্টগ্রামের জন্য কাজ করে যাচ্ছে। সামনেও এ ধারবাহিকতা বজায় থাকবে।
পিএইচপি চেয়ারম্যান : সুফি মোহাম্মদ মিজানুর রহমান বলেন, দৈনিক পূর্বকোণ বিগত ৩৪ বছর সর্বস্তরের মানুষকে উজ্জীবিত করার জন্য নিরলসভাবে কাজ করে গেছে। যিনি এ পূর্বকোণনের কর্ণধার ছিলেন, বর্তমানে যারা আছেন তাদের সাথে নিয়ে আমরা সকলে দেশের জন্য কাজ করে যাবো। দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে কাঁধে কাঁধ রেখে কাজ করে যাবো। শুরু থেকেই পিএইচপি পূর্বকোণের সাথে ছিল, এখনো আছে এবং ভবিষ্যতে সকলে একসাথে কাজ করে যাবো- সে প্রত্যাশা থাকলো আজকের দিনে।

চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক : ৩৪ বছর পেরিয়ে ৩৫-এ পূর্বকোণ। সময়টা কিন্তু একেবারেই কম নয়। পূর্বকোণের বড় বৈশিষ্ট্য তারা বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশ করে থাকেন। সংবাদপত্র অনেক সময় অনেকধরণের সংবাদ প্রকাশ করে থাকে। কিন্তু পূর্বকোণ তাদের চেয়ে একটু ভিন্ন। সংবাদ পরিবেশনের যে ধারা তা বস্তুনিষ্ঠ ও সত্যনিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশ করা হয়। এমন ধারা সবসময় অব্যাহত ধরে রাখবে পূর্বকোণ। এ পূর্বকোণকে নিয়ে প্রতিষ্ঠাতা ইউসুফ চৌধুরীর যে স্বপ্ন ছিল, সে স্বপ্ন বাস্তবায়ন করবেন তারই উত্তসূরীরা। স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ গড়ার পেছনে যারা কাজ করে তাদের মধ্যে আমি মনে করি পূর্বকোণও কাজ করে যাবে।
এমএ সালাম : চট্টগ্রামের বহুল প্রচারিত দৈনিক পূর্বকোণ যেভাবে চট্টগ্রামের কথা তুলে ধরে, তেমনি সারাদেশের কথাগুলোও তুলে ধরে তারা। শুধু চট্টগ্রামের পত্রিকা নয়, বরং জাতীয় পত্রিকা হিসেবে কাজ করে যাচ্ছে পূর্বকোণ। পূর্বকোণ সবসময় গণমানুষের কথা বলে এসেছে, অন্যায়ের বিরুদ্ধে সোচ্চার ছিল এবং সত্যের পথেই ছিল। আগামী দিনেও সে ধারা অব্যহত থাকবে। পূর্বকোণ আরও শতবছর টিকে থাকুক মানুষের অন্তরে।

সিএমপি : সিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার শ্যামল কুমার নাথ বলেন, একটি দৈনিক পত্রিকা শহরের এবং দেশের ও গণমানুষের চিন্তা চেতনা এবং আশা-আকাক্সক্ষার প্রতিচ্ছবি। দৈনিক পূর্বকোণ দীর্ঘদিন যাবৎ চট্টগ্রামসহ সারাদেশের মানুষের চিন্তা-চেতনা প্রতিফলনের জায়গা হিসেবে ভূমিকা রাখছে। পূর্বকোণ দিনদিন তাদের কাজের মাধ্যমে যেভাবে এগিয়ে যাচ্ছে, ঠিক সেভাবেই গণমানুষের আশা-আকাক্সক্ষার প্রতিচ্ছবি হিসেবে মানুষের আশাকে জাগ্রত করবে। মানুষের চিন্তা-চেতনাকে আরও যুগোপযোগী করার জন্য অবদান রাখবে।

মহানগর বিএনপি : দলের সভাপতি ডা. শাহাদাৎ হোসেন বলেন, আজকের দিনে স্মরণ করছি পূর্বকোণ প্রতিষ্ঠাতা ইউসুফ চৌধুরী ও পরবর্তীতে যার হাত ধরে এ পর্যায়ে এসে দাঁড়িয়েছে স্মরণ করছি সেই স্থপতি তসলিম উদ্দিন চৌধুরীকেও। এখনো মনে পড়ে, পূর্বকোণের শুরু কথাগুলো। অনেক পত্রিকার ভিড়ে এ পত্রিকা সবার মনে জায়গা করে নিয়েছে। অন্য পত্রিকার ভিড়ে পূর্বকোণ ছিল সবার চেয়ে ভিন্ন। সে ভিন্নতাকে কাজে লাগিয়ে আজ বহুল প্রচারিত হিসেবে জায়গা করে নিয়েছে পূর্বকোণ। পূর্বকোণ সত্য কথা বলুক, গণতন্ত্রের কথা বলুক এবং মানুষের ভোটের অধিকারের কথা বলুক। পাশাপাশি সাংবিধানিক অধিকারের কথা বলুক, আইনের শাসন ও গণতান্ত্রিক অধিকারের কথা তুলে ধরুক। তাহলে জনগণও অতীতের মতো আপনাদের পাশে রাখবে।
আবু সুফিয়ান : চট্টগ্রামের সাধারণ মানুষের একটি সংবাদ মাধ্যম পূর্বকোণ। দেশের অধিকারের লড়াইয়ে সবসময় পূর্বকোণ পাশে ছিল। আমরা চাই অতীতের মতো দেশের মানুষের দুঃখ-দুর্দশার কথাগুলো পূর্বকোণ আগামীতেও তুলে ধরবে।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 134 People

সম্পর্কিত পোস্ট