চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ০১ অক্টোবর, ২০২০

সর্বশেষ:

‘তথ্য প্রযুক্তিতে সম্পৃক্ত থাকলেই ভবিষ্যৎ প্রজন্ম যোগ্য নাগরিক হয়ে গড়ে উঠবে’

১ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ | ৫:০৭ পূর্বাহ্ণ

বিভাগীয় ইনোভেশন শোকেসিংয়ের সমাপনীতে বক্তারা

‘তথ্য প্রযুক্তিতে সম্পৃক্ত থাকলেই ভবিষ্যৎ প্রজন্ম যোগ্য নাগরিক হয়ে গড়ে উঠবে’

চট্টগ্রাম বিভাগের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) শংকর রঞ্জন সাহা বলেছেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উল্লেখযোগ্য উন্নয়ন সূচকের পাশাপাশি তথ্য প্রযু্িক্ততেও দেশ অনেকদূর এগিয়ে গেছে। তথ্য প্রযু্িক্তর কারণে অনলাইনে ভূমির নামজারিসহ সরকারি অনেক সেবা অতি অল্প সময়ে, কম খরচে, দুর্নীতি ও হয়রানিমুক্ত ছাড়া স্বচ্ছতার সাথে মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে যাচ্ছে। এগুলো হচ্ছে ইনোভেশন।
ইনোভেশনের কারণে বেকার যুবকদের নতুন নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টি হচ্ছে। ইনোভেশনের কারণে শিক্ষা ও স্বাস্থ্যসেবাসহ অন্যান্য সরকারি সেবাগুলো সহজ হয়ে গেছে।

কারিগরি শিক্ষার অগ্রগতির কারণে ঘরে ঘরে তৈরী হচ্ছে উদ্যোক্তা। গতকাল শুক্রবার চট্টগ্রাম এম.এ আজিজ স্টেডিয়াম সংলগ্ন জিমনেসিয়াম মাঠে আয়োজিত বিভাগীয় পর্যায়ে দু’দিন ব্যাপী ইনোভেশন শোকেসিং এর সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় ও বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয় দু’দিন ব্যাপী অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন। ইনোভেশন শোকেসিংয়ে ‘হোম এন্ড অফিস সার্ভিস সাপোর্ট সিস্টেম’ উদ্ভাবনে শ্রেষ্ঠ হয়েছেন চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন ইনোভেশন টিম।

অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (উন্নয়ন) মো. নুরুল আলম নিজামীর সভাপতিত্বে ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাবরিনা আফরিন মুস্তফার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত ইনোভেশন শোকেসিং এর সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মো. আবু হাসান সিদ্দিক ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মো. রেজাউল করিম।

দু’দিন ব্যাপী ইনোভেশন শোকেসিং এ অংশগ্রহণকারী বিভাগের ১১টি জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের মধ্যে বিচারকের নিরপেক্ষ বিচারে হোম এন্ড অফিস সার্ভিস সাপোর্ট সিস্টেম’ উদ্ভাবনে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের কার্যালয়-১ম স্থান, জেলা পর্যায়ে আইসিটি অধিদপ্তরের অনলাইন সেবা ব্যবস্থাপনা ও শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব মনিটরিং সিস্টেম উদ্ভাবনে রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসকের কার্যালয়-২য় স্থান ও প্রকল্পসমূহের একীভূত করণ উদ্ভাবনে লক্ষীপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়-৩য় স্থান অর্জন করেন।

অনুষ্ঠান শেষে বিভাগের শ্রেষ্ঠ তিনটি জেলা ইনোভেশন টিমের হাতে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় পুরস্কার তুলে দেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) শংকর রঞ্জন সাহা। অনুষ্ঠানে বিভাগের বিভিন্ন জেলার জেলা প্রশাসক, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটগণ ও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।-বিজ্ঞপ্তি

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 109 People

সম্পর্কিত পোস্ট