চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০

সর্বশেষ:

পদ্মা সেতুতে ধীরগতি

২৯ জানুয়ারি, ২০২০ | ৪:২৪ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক হ ঢাকা অফিস

পদ্মা সেতুতে ধীরগতি

নদীর তলদেশের কাজ শেষ হওয়ায় দ্রুত এগিয়ে চলছে পদ্মা সেতুর নির্মাণকাজ। প্রতি মাসে তিনটি করে স্প্যান বসানো হচ্ছে। ২২টি স্প্যান বসানোর পর সেতুর ৩ হাজার ৩০০ মিটার অংশ এখন দৃশ্যমান। বাকি ১৯টি স্প্যান চলতি বছরের মাঝামাঝি সময়ের মধ্যে বসানোর লক্ষ্যে কাজ চলছে। তবে চীনের করোনাভাইরাসের প্রভাব পড়েছে পদ্মা সেতু প্রকল্পে। কারণ, প্রায় পৌনে সাত শ চীনা নাগরিক প্রকল্পের কাজ করছেন। তাঁদের বড় একটি অংশ চীনা নববর্ষ

উদ্যাপন করতে নিজ দেশে বেড়াতে গেছে। ছুটি কাটিয়ে তাঁদের মধ্যে কয়েকজন বাংলাদেশে ফিরলেও অনেকে চীনে আটকা পড়েছেন। কাজ যোগ দিতে চীন থেকে যাঁরা ফিরেছেন, তাঁদেরও পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। তাই এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়লে সেতুর কাজের গতি মন্থরও হতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন প্রকল্প সংশ্লিষ্টরা।

প্রকল্প সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, পদ্মা সেতুর নির্মাণে কাজ করছেন ৫ হাজার ৩০০ শ্রমিক। তাঁরা সবাই বাংলাদেশি। তাঁদের সঙ্গে ৬৬০ জন চীনা প্রকৌশলী ও স্টাফ রয়েছেন। এ ছাড়া নিউজিল্যান্ড, দক্ষিণ কোরিয়া, সিঙ্গাপুর, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাষ্ট্রসহ বিভিন্ন দেশের ১৩০ জন সুপারভিশন কনসালট্যান্ট পদ্মার সেতুর প্রকল্পে যুক্ত রয়েছেন। চীনা নববর্ষ উদ্যাপন করতে জানুয়ারি মাসের মাঝামাঝি চীনে ফিরে গেছেন প্রকল্প–সংশ্লিষ্ট ৩০ শতাংশ চীনা। হুবেই প্রদেশ থেকে ছুটি কাটিয়ে ৩০ জন চীনা কর্মকর্তা ও স্টাফ ফিরে এসে কাজে যোগ দিয়েছেন। কিন্তু তাঁদের ফিল্ড ওয়ার্কে রাখা হচ্ছে না।

পদ্মা সেতু প্রকল্প–সংশ্লিষ্ট একাধিক কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, আপাতত মাওয়ার জাজিরায় পদ্মা সেতুর প্রকল্প এলাকায় কোয়ারেন্টাইনে রাখা হচ্ছে চীন থেকে সদ্য ফিরে আসা প্রকৌশলী ও স্টাফদের। সেখানে তাঁদের ১৪ দিনের পর্যবেক্ষণে রাখা হচ্ছে। তাঁদের এ সময় কেবল দাপ্তরিক কাজ করতে দেওয়া হচ্ছে।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 131 People

সম্পর্কিত পোস্ট