চট্টগ্রাম বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০

সর্বশেষ:

স্কুলবাস পেয়ে আনন্দে আত্মহারা শিক্ষার্থীরা

২৬ জানুয়ারি, ২০২০ | ৩:৪২ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

স্কুলবাস পেয়ে আনন্দে আত্মহারা শিক্ষার্থীরা

শিক্ষার্থীদের বাস উদ্বোধনে শিক্ষা উপমন্ত্রী সততার চর্চা বিদ্যালয় থেকে শুরু করতে হবে

‘সততার চর্চা বিদ্যালয় থেকে শুরু করতে হবে। শিক্ষার্থীদের এই বাসগুলোতে ‘সততা কাউন্টার’ থাকবে, শিক্ষার্থীরা প্রতিবার যে কোনো গন্তব্যে চলাচলের জন্য ৫ টাকা করে ওই কাউন্টারে ফেলবে। ১৭ মার্চ মুজিব বর্ষ শুরু হবে। আমরা ক্ষণগণনা করছি। সেই মুহূর্তে তোমাদের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই উপহার দিয়েছেন। আমরা সবাই সেই উপহার দেখতে এসেছি’। গতকাল শনিবার সকালে নগরীর এম.এ আজিজ স্টেডিয়াম সংলগ্ন জিমনেসিয়াম মাঠে শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল এসব কথা বলেন। এসময় নতুন বাস পেয়ে শিক্ষার্থীরা আনন্দে আত্মহারা হয়ে পড়েন।

শিক্ষা উপমন্ত্রী আরো বলেন, ‘স্কুল-কলেজ শেষ করে আমাদের বড় বড় চাকরি পেতে হবে, সরকারি বড় পদে যেতে হবে। এই যে চিন্তাটা, তা অত্যন্ত সংকীর্ণ চিন্তা। তোমাদের সব সময় সাধারণ মানুষের কথা চিন্তা করতে হবে। শিক্ষাজীবন শেষ করে সাধারণ মানুষের মতো জীবনযাপন করতে কোনো লজ্জা নেই। কোন পেশাকে ছোট করে দেখা উচিত নয়। প্রাতিষ্ঠানিক উচ্চ শিক্ষার পাশাপাশি প্রযুক্তিগত ও কারিগরি দক্ষতা অর্জনে শিক্ষার্থীদের আন্তরিক হতে হবে। বিদেশে পড়ার সময় আমি তিনটা চাকরি করেছি। এটা দেশে আমাদের সন্তানদের অনেকের করতে হয় না। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর শিয়ালদহ স্টেশনে আমার বাবা কাগজ বিক্রি করেছেন। পরে আবার দেশের জন্য কাজ করেছেন’।

ছাত্র রাজনীতি সম্পর্কে শিক্ষা উপমন্ত্রী বলেন, ‘গঠনমূলক রাজনীতি করলে অবশ্যই ছাত্র রাজনীতির প্রতি আস্থা আসবে এবং ছাত্র রাজনীতি সার্থক হবে। বড় বড় নেতাদের পিছনে ঘুরাঘুরি করা ছাত্র নেতাদের কাজ নয়। ভবিষ্যতে একদিন বড় পদে সততার সাথে তোমরা যেন তোমাদের দায়িত্ব পালন করতে পার। যে বিশ্বাস ও আস্থা প্রধানমন্ত্রী রেখেছেন তাঁর প্রতিদান তোমরা দেবে। নিরাপদ সড়কের আন্দোলনে সম্পৃক্ত ছাত্র নেতাদের ধন্যবাদ দিয়ে তিনি ‘গঠনমূলক রাজনীতি’ করার আহ্বান জানান’।
চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেনের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা (মাউশি) অধিদপ্তরের মহাপরিচালক প্রফেসর ড. সৈয়দ মো. গোলাম ফারুক, স্পন্সর প্রতিষ্ঠান জিপিএইচ ইস্পাত লিমিটেডের অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক আলমাস শিমুল ও বিআরটিসি চট্টগ্রাম বাস ডিপোর ম্যানেজার (অপারেশন) এম. জেড রহমান। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নুর জাহান আক্তার সাথীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মো. আবু হাসান সিদ্দিক।

সভাপতির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক মো. ইলিয়াস হোসেন বলেন, ‘মহাত্মা গান্ধী বলেছিলেন চট্টগ্রাম সবার আগে। আসলেই চট্টগ্রাম সবসময় এগিয়ে। এটা তোমাদের অর্জন। সারাদেশে যখন শিক্ষার্থীদের আন্দোলন চলছে, তখন তোমরা কিছু দাবি দিয়েছিলে তারই একটি এই দ্বিতল বাস। প্রতিটি বাসে ছয়টি করে সিসি ক্যামেরা থাকবে। শিক্ষার্থীদের জন্য ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে ৫ টাকা। আশা করি নিজ দায়িত্বে সততা বক্সে ভাড়া দিবে। নিজেদের সম্পদ নিজেরা ধরে রাখবে’।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে প্রফেসর ড. সৈয়দ গোলাম ফারুক বলেন, ‘দেশে এই প্রথম স্কুলছাত্রদের জন্য বাস দিয়ে তোমাদের দাবি পূরণ করেছেন প্রধানমন্ত্রী। গুণগত শিক্ষার পথে আমরা একধাপ এগিয়ে গেলাম। তোমরা এমনভাবে বাসগুলো ব্যবহার করবে যাতে এই দৃষ্টান্ত দিয়ে সারাদেশের শিক্ষার্থীদের জন্য আরও বাস চাইতে পারি’।
স্বাগত বক্তব্যে মো. আবু হাসান সিদ্দিক বলেন, প্রিয় শিক্ষার্থীরা, তোমরা যখন কষ্ট করে টেম্পু কিংবা হিউম্যান হলার করে স্কুলে যাতায়াত কর, এটা দেখে আমাদের খুব দুঃখ হয়। তোমাদের সেই কষ্ট লাগব করতে প্রধানমন্ত্রী তোমাদের জন্য ১০টি দ্বিতল বাস দিয়েছেন। আর তোমরা যাতে বাসে নিরাপত্তাহীনতায় না ভোগ, সেজন্য প্রতিটি বাসে ৬টি করে সিসি ক্যামেরা থাকবে। শিক্ষার্থীদের নিয়ে যাতায়াতের জন্য ২টি রুট নির্ধারণ করা হয়েছে। ১নং রুটে বহদ্দারহাট-মুরাদপুর-চকবাজার-গণি বেকারি-জামালখান-চেরাগী পাহাড়-আন্দরকিল্লা-লালদিঘি-কোতোয়ালী-নিউমার্কেট আসা-যাওয়া এবং ২নং রুটে অক্সিজেন-মুরাদপুর-২নং গেইট-টাইগারপাস-আগ্রাবাদ এলাকায় যাওয়া-আসা করবে।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে জিপিএইচ ইস্পাতের অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আলমাস শিমুল শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে বলেন, এই দেশ ও জাতির দায়িত্বভার আপনাদের নিতে হবে। বর্তমান প্রধানমন্ত্রীর মত এক শিক্ষা ও শিল্পায়নমুখী রাষ্ট্রপ্রধান পেয়ে আমরা ভাগ্যবান। আগামীতেও এই ধরনের সিএসআর কর্মসূচির সাথে সংযুক্ত থাকবেন বলে ঘোষণা দেন তিনি।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মাউশি’র চট্টগ্রাম অঞ্চলের পরিচালক প্রফেসর প্রদীপ কুমার চক্রবর্তী, জিপিএইচ ইস্পাত লিমিটেডের মিডিয়া এডভাইজার ওসমান গণি চৌধুরী, নিরাপদ সড়ক আন্দোলনে চট্টগ্রামে নেতৃত্ব দেওয়া নগর ছাত্রলীগের সাবেক সা. সম্পাদক নুরুল আজিম রনি ও মিনহাজ উদ্দিনসহ বিভিন্ন বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

আজ রবিবার সকাল থেকে নগরীর দুটি রুটে এ ১০টি বাস চলাচল করবে। প্রথম রুটের পাঁচটি বাস বহদ্দারহাট মোড় থেকে ছেড়ে মুরাদপুর, চকবাজার, গণি বেকারি, জামালখান, চেরাগি পাহাড়, আন্দরকিল্লা, কোতোয়ালী মোড় হয়ে নিউমার্কেট যাবে। দ্বিতীয় রুটের বাকি পাঁচটি বাস অক্সিজেন মোড় থেকে ছেড়ে মুরাদপুর, দুই নম্বর গেট, জিইসি মোড়, ওয়াসা, টাইগার পাস হয়ে আগ্রাবাদে যাবে। বাসগুলো একই পথে ফিরবে। ৭৫ আসনের বাসগুলোর নিচতলা ছাত্রীদের এবং দ্বিতীয় তলা ছাত্রদের জন্য নির্ধারিত।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 211 People

সম্পর্কিত পোস্ট