চট্টগ্রাম মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২০

চাকরিদাতা ও প্রত্যাশীদের মিলনমেলা ইস্ট ডেল্টায়

২৬ জানুয়ারি, ২০২০ | ৩:১৭ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

চাকরিদাতা ও প্রত্যাশীদের মিলনমেলা ইস্ট ডেল্টায়

৩ হাজার চাকরিপ্রত্যাশী তরুণ ও ৩০টি দেশি-বিদেশি চাকরিদাতা প্রতিষ্ঠানের অংশগ্রহণে জাঁকজমকপূর্ণভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছে ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটি (ইডিইউ) আয়োজিত ‘প্লেসমেন্ট ডে ২০২০’। এতে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে প্রায় ৩ শতাধিক আবেদনকারীর সরাসরি লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষাও নেয়া হয়, যা মোট অংশগ্রহণকারীর ১০ শতাংশ। চট্টগ্রামে বসবাসরত তরুণদের ক্যারিয়ার গঠনে সহায়তা করার লক্ষ্যে শেঠ প্রপার্টিজ ও কেএসআরএম এর সহযোগিতায় গতকাল শনিবার দিনব্যাপী এ চাকরি মেলা অনুষ্ঠিত হয়। চট্টগ্রামে ইস্ট ডেল্টাই

প্রথম এ ধরনের মেলার আয়োজন করেছে। এতে মূল বক্তা বাংলাদেশের গুগলের প্রাক্তন কান্ট্রি ম্যানেজার কাজী মনিরুল কবির বলেন, জীবনের বাঁকে বাঁকে মানুষ অনেক সময় দিশেহারা হয়ে পড়ে। দিকনির্দেশনা দেয়ার জন্যও অনেকেই থাকলেও দিন শেষে নিজেকেই নিজের পথ খুঁজে নিতে হয়। ইডিইউ প্লেসমেন্ট ডে আয়োজন করে দিলেও, চাকরির যোগ্য হয়ে নিজের প্লেসমেন্ট নিজেকেই করতে হবে। বিশেষ অতিথি জুনকস কনসাল্টিংয়ের সহপ্রতিষ্ঠাতা, রবির কর্পোরেট ও পিপল এফেয়ার এর প্রাক্তন প্রধান মতিউল ইসলাম নওশাদ বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় উন্নত হলে শিক্ষার্থী ও এর সাথে সম্পৃক্ত মানুষ উন্নত হয়। মানুষ উন্নত হলে দেশ উন্নত হয়। আমাদের প্রতিটি পদক্ষেপ, প্রতিটি ভূমিকা দেশের ইতিহাস ও ভবিষ্যৎ রচনা করে।

অনুষ্ঠানের গেস্ট অব অনার সাঈদ আল নোমান বলেন, চট্টগ্রামের মেধাবীদেরকে আঞ্চলিকতার গ-ি থেকে বের হয়ে ঢাকাসহ সারা বিশ্বে যাতে ক্যারিয়ার গড়তে পারে, তার লক্ষ্যেই এ আয়োজন। সফট স্কিল, ইমোশনাল ইন্টেলিজেন্স ও ডেটা এনালিটিক্স নিয়ে প্রশিক্ষণ দিয়ে ভবিষ্যতে ইন্ডাস্ট্রিতে নেতৃত্ব দিতে পারে এমন শিক্ষার্থী হিসেবে গড়ে তুলছে ইডিইউ। এই প্লেসমেন্ট ডে’র মাধ্যমে এ দ্বার চট্টগ্রামের সবার জন্য খুলে দিয়েছি যাতে এ অঞ্চলের জনশক্তি বর্তমান চাকরির বাজারের উপযুক্ত হয়ে গড়ে উঠতে পারে। বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে আমরা এটি দায়িত্ব মনে করেছি।

এতে প্রধান অতিথি ছিলেন ইডিইউর উপাচার্য অধ্যাপক মু. সিকান্দার খান। তিনি বলেন, ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটিকে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে পরিচিত করতে হবে। যাতে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের মাধ্যমেই চট্টগ্রাম ও বাংলাদেশকে বিশ্ববাসী চিনতে পারে। এ দায়িত্ব মূলত শিক্ষার্থীদের।
বাংলাদেশে পরিচালিত ৩০টি দেশি-বিদেশি প্রতিষ্ঠানকে এক ছাদের নিচে এনে চাকরিদাতা ও প্রার্থীদের মধ্যে সরাসরি যোগাযোগ স্থাপনে সহযোগিতা করাই এ আয়োজনের উদ্দেশ্য। এছাড়া ক্যারিয়ার গঠনের বিভিন্ন দিক নিয়ে দিনব্যাপী সেমিনারেরও আয়োজন ছিলো।

এতে যোগদানকারী স্বনামধন্য ও উল্লেখযোগ্য প্রতিষ্ঠানগুলো হলো শেঠ প্রপার্টিজ, কেএসআরএম, টেরাকোটা, বিএসআরএম, এমজিএইচ, গ্রামীণফোন, প্যাসিফিক জিন্স, রবি, কনফিডেন্স সিমেন্ট, এপিক প্রপার্টিজ, এলিট পেইন্ট, দি সিটি ব্যাংক লিমিটেড, কেনপার্ক ও রিজেন্সি, ফ্রোবেল একাডেমি, পিটুপি, র‌্যাংকস এফসি প্রপার্টিজ, মাইডাস সেফটি, সিপিডিএল, ভিভো, আকাশ ডিটিএইচ (বেক্সিমকো গ্রুপ), মমতা, আইডিপি, ট্যালেন্ট ম্যানেজমেন্ট, বিওয়াইএলসি ও লিডস বাংলাদেশ।
এ উৎসবের ডিজিটাল পার্টনার ছিলো প্রথমআলো ডটকম ও টেলিভিশন মিডিয়া পার্টনার একাত্তর টিভি, ফুড পার্টনার টেরাকোটা।

এতে সভাপতিত্ব করেন ইডিইউর কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক সামস উদ-দোহা। স্বাগত বক্তব্য রাখেন ইডিইউর নেটওয়ার্কিং এন্ড প্লেসমেন্ট সেলের ডিরেক্টর শাফায়েত কবির চৌধুরী। বক্তব্য রাখেন একুশে টিভির ব্যুরো প্রধান সাংবাদিক রফিকুল বাহার। এছাড়া অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন আইবিএম এর প্রাক্তন সিইও নাভিদ মাহবুব, তিনি পরবর্তীতে প্যানেল আলোচনায়ও অংশ নেন।

নাভিদ মাহবুব বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় গ্র্যাজুয়েট বা পড়–য়াদের জন্য প্লেসমেন্ট ডে যেন ঈদের দিন। এতদিনের পড়ালেখা শেষে কে কতটুকু যোগ্য হয়ে পেরেছি, তা যাচাই করে নেয়া যায় এ দিনেই।
এ মেলায় প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের বিভিন্ন পদে নিয়োগ দিতে সিভি গ্রহণ এবং সরাসরি সাক্ষাৎকার ও লিখিত পরীক্ষা নেয়। এছাড়া, দর্শনার্থীরা প্রতিষ্ঠানগুলোতে চাকরির ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় তথ্য ও সুযোগ-সুবিধাসমূহ জানতে পারে। ইন্টার্নশিপের বিষয়েও অংশগ্রহণকারীদের জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানগুলো।

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
The Post Viewed By: 105 People

সম্পর্কিত পোস্ট