চট্টগ্রাম বৃহষ্পতিবার, ০১ অক্টোবর, ২০২০

কর্ণফুলী ও হালদার অবৈধ দখল উচ্ছেদ করে নদীকে বাঁচাতে হবে

২৬ জানুয়ারি, ২০২০ | ২:৫৮ পূর্বাহ্ণ

গণঅধিকার ফোরামের মানববন্ধনে বক্তারা

কর্ণফুলী ও হালদার অবৈধ দখল উচ্ছেদ করে নদীকে বাঁচাতে হবে

গণ-অধিকার ফোরাম চট্টগ্রাম উত্তর-দক্ষিণ-মহানগর শাখার যৌথ উদ্যোগে গতকাল শনিবার জামালখানস্থ প্রেসক্লাব চত্বরে অর্থনীতির প্রবেশদ্বার কর্ণফুলী নদী, প্রাকৃতিক মৎস্য প্রজনন কেন্দ্র হালদা নদীকে যৌথভাবে জাতীয় নদী ঘোষণার দাবি ও দূষণমুক্ত করার লক্ষে মানববন্ধন সংগঠনের মহানগর শাখার সভাপতি আবু মোহাম্মদ হোসাইন চৌধুরীর সভাপতিত্বে কেন্দ্রীয় যুগ্মমহাসচিব রোটারিয়ান মোহাম্মদ সালাহউদ্দিন ও রফিকুল ইসলামের যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন চ.গ.অ ফোরামের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম। নদীতে চলাচলকারী নৌযানগুলোর পোড়া তেলে কর্ণফুলীর দূষণ চরমে পৌঁছেছে এবং কর্ণফুলী পেপার মিল (কেপিএম), সিটি কর্পোরেশন, ওয়াসা, সিফএলের মতো সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানই কর্ণফুলী নদী দূষণের জন্য মূলত দায়ী। ওয়াসার কোনো সুয়ারেজ সিস্টেম না থাকায় সমস্যা আরও প্রকট হচ্ছে। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে কর্ণফুলী গবেষক প্রফেসর ড. মো. ইদ্রিস আলী বলেন, নগরের বর্জ্য মিশ্রিত পানির পাশাপাশি পলিথিন ও নানা অপচনশীল প্লাস্টিক সামগ্রীও সরাসরি কর্ণফুলী নদীতে গিয়ে পড়ছে, যার ফলে কর্ণফুলীর পানির দূষণের মাত্রা ছাড়িয়ে গেছে এবং শুষ্ক মৌসুমে পরীক্ষায় দ্রবীভূত অক্সিজেন (ডিও) ৪ দশমিক ৮ থেকে ৫ দশমিক ৫ এর মধ্যে থাকে যা উদ্বেগজনক। আর ডিও ৪ এর নিচে নেমে এলে জলজ প্রাণী বাঁচে না এবং পানিতে ডিওয়ের মান ৪ এর নিচে নামলে তা পানিতে বিদ্যমান জীববৈচিত্র্যের জন্য হুমকিস্বরূপ। বক্তব্য রাখেন, সাংবাদিক জাহেদুল করিম কচি, ইঞ্জিনিয়ার বেলায়েত হোসেন, এডভোকেট তারেক আহমেদ, এডভোকেট ফৌজুল আমিন, চ.গ.অ. ফোরামের ভাইস- চেয়ারম্যান আবদুর রশিদ মেম্বার, ভাইস- চেয়ারম্যান এডভোকেট সেলিম উদ্দিন, আইন বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট জহুরুল আলম, আলমগীর নুর, যুগ্ম মহাসচিব জাফর আহমদ, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ মোস্তফা আলম মাসুম, পরিবেশবিদ মোহাম্মদ সাহাবউদ্দিন রাশেদ, সংগঠনের দক্ষিণ জেলার যুগ্ম আহবায়ক নুর মোহাম্মদ দোহাজারী, উত্তর জেলার যুগ্ম আহ্বায়ক এডভোকেট রায়হান উদ্দিন, যোগযোগ বিষয়ক সম্পাদক মোহাম্মদ আমির হোসেন প্রমুখ।

শেয়ার করুন
The Post Viewed By: 118 People

সম্পর্কিত পোস্ট