চট্টগ্রাম বুধবার, ২৭ মে, ২০২০

পরিবেশ রক্ষায় প্রয়োজন বিশুদ্ধ বায়ু

১১ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ | ১২:৪৮ পূর্বাহ্ণ

পরিবেশ রক্ষায় প্রয়োজন বিশুদ্ধ বায়ু

গোটাবিশ্বেই পরিবেশ রক্ষার দাবি ক্রমেই জোরালো হয়ে উঠছে। এ পরিস্থিতিতেই ২৩ মার্চ পালিত হয়েছে বিশ্ব আবহাওয়া দিবস। এবারের আবহাওয়া দিবসের মূল প্রতিপাদ্য ছিলো আবহাওয়া, জলবায়ু এবং বিশুদ্ধ বায়ু।

বিশ্বের জলবায়ু পরিবর্তনের একটি বড় ধরণের প্রভাব যেমন পড়ছে সমুদ্র পৃষ্ঠের উচ্চতার ওপর তেমনি পড়ছে বায়ুর ওপর। বিজ্ঞানীরা তাদের গবেষণার ফলে জানতে পারছেন বায়ুর বিশুদ্ধতার বিষয়টি আবহাওয়া এবং পরিবেশের সঙ্গে কত বেশি সম্পৃক্ত। পরিবেশ দুষণের ফলে বায়ুতে বিষাক্ত গ্যাসের মাত্রা দিন দিন বেড়ে চলেছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে বায়ুদূষণ প্রতি বছর গড়ে দুই মিলিয়ন মানুষের মৃত্যুর কারণ হয়ে দাঁড়াচ্ছে। তাই বিশুদ্ধ বায়ুর বিষয়টি এখন পরিবেশ রক্ষার ক্ষেত্রে অন্যতম একটি ইস্যু হয়ে দেখা দিয়েছে। একই সঙ্গে আবাহাওয়ার পূর্বাভাসও এখন পরিণত হয়েছে জলবায়ু পরিবর্তনের নতুন একটি মাত্রায়।
কেবল বিশুদ্ধ বায়ু নয় বিশুদ্ধ পানিও জলবায়ু পরিবর্তন রোধের অন্যতম একটি মাধ্যম যা সকলেই স্বীকার করে থাকে। জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে বায়ু যেভাবে দূষিত হচ্ছে তেমনি বিশুদ্ধ পানি নিশ্চিত করাটাও এখন ক্রমেই কঠিন হয়ে পড়ছে। আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোর তথ্য মতে বর্তমান বিশ্বের ৮৮ কোটি লোক বিশুদ্ধ খাবার পানি পায় না। এবং এ সংখ্যা ২০৩০ সাল নাগাদ এক লাফে দাঁড়াবে ৩৯০ কোটিতে। সম্প্রতি তুরস্কেরর ইস্তাম্বুলে অনুষ্ঠিত বিশ্ব পানি সম্মেলনেও এ নিয়ে হয়েছে বিস্তর আলোচনা। কিন্তু জলবায়ু পরিবর্তন ইস্যুতে রাজনৈতিক সদিচ্ছা যেমন একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে, বিশুদ্ধ পানির ইস্যুতেও রাজনৈতিক সদিচ্ছা একটি কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। যেসব দেশ মূলত অন্য দেশ থেকে বয়ে আসা নদীর ওপর নির্ভরশীল তারা সবসময় পানি পাওয়ার বিষয়টিকে অধিকার হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে চেয়েছে যেমন বাংলাদেশ, স্পেন, সুইজারল্যান্ড আবার যেসব দেশ আন্তর্জাতিক নদীগুলোর বেশিরভাগ দখল করে আছে তারা এ ক্ষেত্রে কোন আইনি বাধ্যবাধকতা মেনে নিতে রাজি নয়। এসব দেশের মধ্যে রয়েছে ব্রাজিল, মিশর ও যুক্তরাষ্ট্রের মত দেশগুলো। তাই আন্তর্জাতিক পানি সম্মেলনেও দেশগুলো ছিলো দ্বিধাবিভক্ত। সংশ্লিষ্ট দেশগুলোর এই মতানৈক্যের কারণেই বিশুদ্ধ পানি নিশ্চিত করার বিষয়ে কার্যকর কোন উদ্যোগ এখন পর্যন্ত দেখা যায়নি।

The Post Viewed By: 68 People

সম্পর্কিত পোস্ট